দৈনিক ফাত্রামি — মকা সাবের বিচি ধরে চিত্রনায়ক ওরফে গুন্ডা সোহেল রানার “ নাড়াচাড়ায় “ স্বরাষ্ট্র গন্ধানালয়ে ধস

ব্রেকিং নিউজ — মকা সাবের বিচি ধরে চিত্রনায়ক ওরফে গুন্ডা সোহেল রানার “ নাড়াচাড়ায় “ স্বরাষ্ট্র গন্ধানালয়ে ধস

আজ কোন এক সময়ে সুপার ডুপার চিত্রনায়ক ওরফে “ যার জন্ম পরিচয় ন জানি “ ওরফে রানা প্লাজার স্বনামধন্য গুন্ডা সোহেল রানা বাচাল মখা সাবের বিচি ধরে অনাবরত ” নাড়াচাড়া ” শুরু করে । প্রত্যক্ষদর্শী জানায় এই সময় মকা সাহেব চিৎকার করে বলতে থাকেন – “ ছেড়ে দে শয়তান , দেহ পাবি তবু বিচি পাবি না “ ; বিচি ধরে বেশুমার “ নাড়াচাড়া ”র এক পর্যায়ে হঠাত বলা নাই কওয়া নাই স্বরাষ্ট্র গন্ধানালয়ে ধস নামে । প্রতিবেশী হাসনাত আব্দুল হাই এই প্রতিবেদকে জানান ভবনটি ধসের সময় অন্যরা লুঙ্গী পরে ফ্যান ছেড়ে ঘুমাচ্ছিল আর তিনি দূরদৃষ্টি নিক্ষেপ করে পাশের দালান থেকে এই দালানে ফ্যানের বাতাসে লুঙ্গীর তলদেশ পর্যবেক্ষণ করে একখানা ভ্রমন কাহিনী লিখছিলেন । ঠিক সেই সময়ই মকা সাব আর সোহেল রানার মধ্যকার “ কাম ডা “ শুরু হয় এবং ভবনটি ধসে পড়ে ।

এই মুহূর্তে ধ্বংসস্তূপের নীচে চাপা পড়ে আছে দুইজন । সোহেল রানা’র স্বঘোষিত বাপ তৌহিদ জং মুরাদ ও তার কুলাঙ্গার পুত্র সোহেল রানা । টিভি ক্যামেরা নিয়ে রিপোর্টাররা আসলে পিলারের নীচ চাপা পড়া অবস্থাতেও তৌহিদ জং মুরাদ চুলে সিঁথি করতে করতে বলেন – “ আমাকে বাঁচাও , আমার হাতে এখনো মকা সাবের বিচি ধরা আছে , আমাকে না উদ্ধার করলে আমি বিচি গিলে ফেলবো । হু … “ সোহেল রানাকে এই সময় কুকুরের মত জিবহা বের করে তার স্বঘোষিত বাপের পুটু চাটতে দেখা যায় । তবে আশ্চর্য জনকভাবে মকা সাবকে ঘটনাস্থলে পাওয়া যায়নি । স্থানীয় জনগণকে এই ভবন ধসে ভুভুজেলা বাজিয়ে উল্লাস প্রকাশ করেছে বলে এই প্রতিবেদক নিশ্চিত করেছে ।
শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ‘ হেফাজতে ধস ‘ তার কর্মী বাহিনী নিয়ে ধ্বংসস্তূপের পৌনে দুশ গজ দূরে দাড়িয়ে ননস্টপ ” গজব গজব ” ধ্বনি তুলছে ।

সকল চরিত্র কাল্পনিক । জীবিত কারও সাথে মিলে গেলে কোন ব্লগার দায়ী নয় ।

—————————————————————————————–
একজন দায়িত্বপ্রাপ্ত মানুষের একটি অডিও শুনে প্রচণ্ড রাগে এই স্যাটায়ারের জন্ম । মনে পড়ে With great power comes great responsibility
যখন সেই রেস্পন্সিবিলিটির এতো করুণ দশা দেখতে হয় তখন উত্তেজিত হয়ে যাই ( টানাহেচড়াতেই ভবন ধস, অটল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

যাই হোক গতকাল আমার একটি ফেবু স্ট্যাটাস দিয়ে পোষ্ট শেষ করছি

আমি একবারও দেখি নাই কোন নেতা বেডে শুয়ে রক্ত দিতেছে ( মিডিয়ার সামনে ক্ষানিক পজ হয়তো দিয়েছে )
আমি জীবনেও দেখি নাই কোন নেতা নেত্রী দুর্ঘটনা কবলিত জায়গায় নিজের নিরাপত্তা প্রোটোকলের তোয়াক্কা না করে উদ্ধার কাজে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন । কাঁধে করে বয়ে নিয়ে আসচ্ছে নিহত বা আহত শরীর
আমি একবারও দেখি নাই কোন মন্ত্রী এমপি নিজের লুটকৃত সম্পতি ঘোষণা দিয়ে জনগণের সেবায় বিলিয়ে দিয়েছেন

এমনও হতে পারে তারা এইসব করেছেন , আমি দেখি নাই । আমি অন্ধ ।
কিন্তু এই নষ্ট চোখ নিয়ে আমি দেখেছি ফায়ার সার্ভিস ডিপার্টমেন্ট তাদের অপ্রতুল যন্ত্রপাতি নিয়েও কিভাবে রক্ষা করে চলেছে মানুষকে
এই নষ্ট চোখ দিয়ে আমি দেখছি আমার ডাক্তার ভাই বোনেরা কসাই ট্যাগ তোয়াক্কা করে নিজেদের সর্বস্ব দিয়ে বাচিয়ে চলেছেন আমাদের জীবন
এই দুটি নষ্ট চোখ দিয়ে আমি দেখেছি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর , পুলিশ , আনসার , র‍্যাব বাহিনীর কর্মতৎপরতা
আমি দেখেছি সাধারণ মানুষ কিভাবে অতি অল্প সময়ে রক্তের ডাকে নিজের রক্ত বিলিয়ে দেয় , কোন কিছু পাওয়ার আশা না করে ঝাঁপিয়ে পড়ে মানুষ রক্ষায় ।

এই দেশের নেতা কর্মীরা চুতিয়া হতে পারে কিন্তু এই দেশের সাধারণ মানুষের উপর থেকে আমি কখনো বিশ্বাস হারাইনি । হারাবো না । মানবতার জয় হোক

৭ thoughts on “দৈনিক ফাত্রামি — মকা সাবের বিচি ধরে চিত্রনায়ক ওরফে গুন্ডা সোহেল রানার “ নাড়াচাড়ায় “ স্বরাষ্ট্র গন্ধানালয়ে ধস

    1. বাস তো করি না , আতিক ভাই
      বাস তো করি না , আতিক ভাই

      আমাদের খাচায় বন্দি করে মজা করা হয় ! এঁকে তো বাস বলে না , এঁকে বলে বন্ধিত্ত

  1. বাড়ির পোষা কুত্তা মারা গেলেও
    বাড়ির পোষা কুত্তা মারা গেলেও মালিকের যে পরিমাণ আফসোস হয়, তার চেয়েও কম আফসোস রাজনীতিবিদদের আমাদের দেশের মানুষের জন্য! প্রকৃত পক্ষে তারা তো মানুষের জন্য রাজনীতি করে না ! তারা রাজনীতি করে নিজেদের ভাগ্যের পরিবর্তনের! আমরা পাবলিক রাম বোদাই, তা হলে বর্তমান প্রেতক্ষাপটে আমাদের দেশের রাজনীতিবিদদের লাত্থায়া দেশ থেকে বাইর করে দেয়া ‍উচিত !

    1. বাড়ির পোষা কুত্তা মারা গেলেও

      বাড়ির পোষা কুত্তা মারা গেলেও মালিকের যে পরিমাণ আফসোস হয়, তার চেয়েও কম আফসোস রাজনীতিবিদদের আমাদের দেশের মানুষের জন্য!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *