পাকিস্তান নামক শয়তানরাষ্ট্রটি কবে গোরস্থান হবে?

পাকিস্তান নামক শয়তানরাষ্ট্রটি কবে গোরস্থান হবে?
সাইয়িদ রফিকুল হক

পাকিস্তান নামক শয়তানরাষ্ট্রটি ধ্বংস করার জন্য যেকোনো বাঙালির সবসময় মানসিক প্রস্তুতি থাকা প্রয়োজন। এইরকম একটি জারজরাষ্ট্র পৃথিবীতে টিকে থাকলে মানবজাতি একসময় ধ্বংসপ্রাপ্ত হবে। আর পাকিস্তানের মতো একটি জারজরাষ্ট্র টিকে আছে বলেই পৃথিবীতে আজ জঙ্গীবাদের এতো উত্থান। আর সমস্ত জঙ্গীদের পৃষ্ঠপোষক পাকিস্তান ও তাদের জারজ-গোয়েন্দাসংস্থা আইএসআই। ১৯৭১ সালের মতো আজও পাকিস্তানরাষ্ট্র ও পাকিস্তানের শাসকগোষ্ঠী সারা পৃথিবীতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে আধিপত্যবিস্তারের অপচেষ্টা চালাচ্ছে। ২০১০ সালে বাংলাদেশে ১৯৭১ সালের চিহ্নিত-ঘৃণিত যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকার্যক্রম শুরু হওয়ার পর থেকে পাকিস্তানের শাসকবর্গ পাগলাকুত্তার মতো ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে। আর তারা একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বানচাল করার জন্য বিশ্বের আরেকটি শয়তানরাষ্ট্র তুরস্ককে সহযোগী করে যারপরনাই ঘৃণ্যপ্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এদের শয়তানী থেমে নেই। আর কখনও এদের শয়তানী থামবে না।

সাম্প্রতিককালে আমাদের দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক—বাংলাদেশ ব্যাংক-এর রিজার্ভ থেকে ৮০০কোটি টাকা চুরি হয়েছে আমেরিকার ফেডারেল ব্যাংক থেকে। আর এই ব্যাংক-ডাকাতি বা হ্যাকিংয়ের সঙ্গে জড়িত পাকিস্তানের হ্যাকাররা। তাদের সহযোগী হচ্ছে উত্তর কোরিয়ার হ্যাকারগণ। শুধু তাই নয়, সাম্প্রতিককালে বাংলাদেশে যতরকমের নাশকতা, খুন, ধর্ষণ, হত্যাকাণ্ড ঘটেছে তার মূলে পাকিস্তানের আইএসআই।
বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ-চুরিতে তিনটি দেশের হ্যাকাররা জড়িত। আর এতে প্রথমেই রয়েছে পাকিস্তানের হ্যাকারগণ, তারপরে উত্তর কোরিয়ার হ্যাকারগণ। আর তৃতীয় শয়তান-গ্রুপের নামটি এখনও জানা যায়নি।
মাত্র কয়েকদিন আগে একাত্তরের চিহ্নিত-যুদ্ধাপরাধী ও আলবদর-কমান্ডার নিজামীর ফাঁসিকে কেন্দ্র করে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ও শয়তানপুত্র নাফিস জাকারিয়া এক বিবৃতিতে বলেছে, “বাংলাদেশের জামায়াতের আমীরের একমাত্র অপরাধ ছিল, তিনি পাকিস্তানের সংবিধান ও আইন সমুন্নত রাখতে চেয়েছিলেন!” দেখুন, কী ধৃষ্টতা এই শয়তানদের! নিজামী স্বাধীন বাংলাদেশে বসবাস করে পাকিস্তানের প্রতি আনুগত্যশীল ছিল! নিজেদের পাপ তারা নিজেরাই আজ স্বীকার করে নিচ্ছে। আর একেই বলে: ধর্মের কল বাতাসে নড়ে।
পাকিস্তানের জারজ-সংসদে বাংলাদেশের চিহ্নিত-দালাল নিজামীর মৃত্যুদণ্ডের বিরুদ্ধে একটি নিন্দাপ্রস্তাব পাস হয়। গত বুধবার পাকিস্তানের বন্ধু নিজামীর মৃত্যুদণ্ড-কার্যকরের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের বেসামাল জারজ-পার্লামেন্ট একটি ন্দিাপ্রস্তাব পাস করেছে। আর এই শয়তানীনিন্দাপ্রস্তাবে বাংলাদেশে নিজামীর ফাঁসিকে ‘মানবাধিকার লংঘনের ঘটনা’ হিসাবে অভিহিত করে এতে আন্তর্জাতিক দালালসম্প্রদায়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে। আর এই নিন্দাপ্রস্তাবের ওপর আলোচনা করতে গিয়ে পাকিস্তানের জারজ-রেলমন্ত্রী খাজা সাদ রফিক বলেছে, “শেখ মুজিবের মেয়ে পাকিস্তান বাংলাদেশের সম্পর্কে কাঁটা বিছিয়ে দিচ্ছেন!” একাত্তরের চিহ্নিত-যুদ্ধাপরাধী নিজামীর ফাঁসিতে মৃত্যুতে ‘মানবাধিকারের লংঘন’ হয়! আর নিজামীরা ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে পরিকল্পিতভাবে হাজার-হাজার মানুষকে হত্যা করেছে, এতে মানবাধিকারের লংঘন হয় না? এই হলো পৃথিবীর জারজরাষ্ট্র পাকিস্তানের রাষ্ট্রীয় মূলনীতি!
নিজামীর মৃত্যুতে আধাপাগল হয়ে পাকিস্তানের জামায়াতে ইসলামীর আমীর সিরাজ-উল-হক বলেছে, “পাকিস্তানের প্রতি ভালোবাসার কারণেই তাকে (নিজামীকে) ফাঁসিতে ঝুলানো হয়েছে!…ভারতের চাপেই বাংলাদেশের শেখ হাসিনা সরকার নিজামীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়েছে!” জামায়াতে ইসলামী পাকিস্তান-সহ পাকিস্তানের সর্বস্তরের চিহ্নিত-লম্পট-রাজনীতিবিদগণ নিজামীর জন্য একাধিকবার গায়েবানা জানাজা পড়েছে! আর লাহোরে-করাচীতে এখনও নাকি গায়েবানা জানাজা চলছে!
নিজামীর মৃত্যুকে গুরুত্ব দিয়ে সংবাদপ্রকাশ করেছে পাকিস্তানের ডন, দালাল বিবিসি, ঘাতক আল জাজিরা, ষড়যন্ত্রকারীগোষ্ঠী নিউইয়র্ক টাইমস ও চাটুকার বার্তাসংস্থা এপি!

পাকিস্তানের আগ্রাসন ক্রমশঃ আমাদের সহ্যের সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। এরা দিনের-পর-দিন লাগামহীন ও শিষ্টাচারবর্জিত কথাবার্তার মাধ্যমে বাংলাদেশে তাদের পরিচালিত নাশকতার সত্যতা স্বীকার করে নিচ্ছে। এদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ মদদেই বাংলাদেশে নানারকমের নাশকতাসৃষ্টি হয়েছে এবং হচ্ছে। কিন্তু আর নয়। এই শয়তানদের বিষদাঁত উপড়ে ফেলার ব্যবস্থা আমাদেরই করতে হবে। আমাদের বন্ধুরাষ্ট্রগুলোর সহযোগিতায় পাকিস্তানকে ধ্বংস করার বিধিসম্মত-ব্যবস্থাগ্রহণ করাটা অতীব জরুরি।

বাংলাদেশে আন্তর্জাতিকমানের যুদ্ধাপরাধ-ট্রাইব্যুনালে একাত্তরের চিহ্নিত-ঘাতক নিজামীর বিচার কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। আর এই বিচারব্যবস্থার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে শয়তানরাষ্ট্র পাকিস্তান। এদের পতন না হওয়া পর্যন্ত বাঙালি-জাতির স্বস্তি ও শান্তি নাই। তাই, ভাবছি: পাকিস্তান নামক শয়তানরাষ্ট্রটি কবে গোরস্থান হবে? আর পাকিস্তানরাষ্ট্রটি কবে ধ্বংস হবে?

সাইয়িদ রফিকুল হক
মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ।
১২/০৫/২০১৬

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *