বকুল এর ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য বাংলা উপন্যাস’ -দ্বিতীয় পর্ব

প্রথম পর্ব

পূর্ণদৈর্ঘ্য বাংলা উপন্যাস-দ্বিতীয় পর্ব

বকুল


সারাবেলাই শিউলি ঘুমিয়ে কাটালো।প্রচন্ড খিদা লাগছিলো তাও ওঠেনি।রান্না করতেও ইচ্ছে করছেনা।আনিসের সাথে যখন প্রেম ছিলো তখন ও একটা কল সেন্টারে কাজ করতো।মাইনে বেশি ছিলোনা।তবে নিজের অর্জনের টাকা!
বেতন পেলেই ও আর আনিস চলে যেত চাংখার পুলে।জম্পেশ খাই দাই।আড্ডায় ভরপুর।তখন আনিস চাকরি পায়নি।ছবি আঁকতো।আর ফ্যা ফ্যা করে ঘুরতো।ওর সিগারেটের খরচেই আমার বেতন সব চলে যেত।কিন্তু সেটা তো কথা না।আনিস কথা দিয়েছিলো বিয়ের পর আমাকে এভাবে ডেকচি মাস্টারি করাবে না।কিন্তু সে নিয়ে আনিসের কোনো ভ্রুক্ষেপও নেই।সারাদিন ঘরে একা একা।

মাঝে মাঝেই তাই রান্নায় ইচ্ছে করে অতিরিক্ত লবণ দেয়।যেহেতু আনিস এটা পছন্দ করেনা।প্রথমদিন তো ব্যাপক ঝাল আর লবণ দিয়ে ফেলেছিলো।সেদিন অবশ্য আনিসের শরীর ভালো ছিলোনা।কিছুই খায়নি।যেহেতু ফ্রিজ নাই তাই শিউলিকে একাই খেতে হয়েছে।খাবার নষ্ট করা আবার শিউলির ধাতে ঠিক সয়না।আবার তার এই গৃহবধু জীবনটাও খারাপ লাগেনা।আনিসের পেইন্টিং এর মডেল সবসময় শিউলিই থাকে।সেগুলো দেখলেই মন জুড়িয়ে যায়।ইয়া বড় বড় সব ক্যানভাসে নিজের মুখ।কার না ভাল্লাগে?

তবুও……


আনিস চিরকুটটা হাতে নিয়ে থতমত খেলো।তারপর আরাম করে বসলো।চিরকুটে কি লেখা আছে তা আবার পড়লো ‘আনিস ভাই,আর কতভাবে বোঝালে আপনি আমার ভালোবাসাটা বুঝবেন’।এবার পকেট থেকে ফোনটা বের করে শিউলির নাম্বারে কল দিলো।বার কতক দিতে হোলো।তারপর থেকে যা শুনবার ছিলো তাই শুনে ফোনটা পকেটে গুঁজে রাখলো।

শিউলি এদিকে বারবার দেখছিলো বরাবরের মত আনিস আবার অফিস টাইমে কল করে তাকে সময় দিচ্ছে ভান করে কল দিচ্ছে।আনিস যথারীতি পাঁচবার কল দিতেই শিউলি ফোনটা নিয়ে অফ করে পাশের ডেস্কের ড্র্য়ারে রেখে দিলো।যখন আনিস এসে ড্রয়ার থেকে বের করে দেবে ততক্ষন পর্যন্ত ছুয়েও দেখবেনা শিউলি।বিগত কয়েক মাসে এরকম ঘটনা বহুবার ঘটেছে।ঠিক এভাবেই হঠাত করেই শিউলির মুখ গোমড়া।উঠবেনা।আনিস নিজেই হঠাত করে উঠেই তড়িঘড়ি করে অফিসে চলে যাবে।

ব্যাপারটায় খুব মজা লাগে শিউলীর।আনিস এসেই যা সব রোমান্টিক কথা বার্তা বলে একদিন তো কবিতা লিখে নিয়ে এসেছিলো।একটু দাঁড়ান এই দু মিনিট ।এখানেই কোথাও আছে।আনিস একটা প্যাডে লিখে এনে দিয়েছিলো।
ধুর
এখানেই তো ছিলো।থাকে।আমি বারবার পড়ি বারবার ভাল্লাগে।আর বারবার এই খেলাটা খেলতে ইচ্ছে করে!

চলছে চলবে…

২ thoughts on “বকুল এর ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য বাংলা উপন্যাস’ -দ্বিতীয় পর্ব

    1. হ ভাই।আমিও সেডাই ভাবতিছিলাম
      হ ভাই।আমিও সেডাই ভাবতিছিলাম।ফার্স্ট পেইজ থেকে আউট হইলেই নতুন পর্ব দিতে হবে।নিয়মিত পোস্ট করতে আলসেমি লাগে তো তাই এখনই দুখানা দিয়ে রাখলুম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *