পশ্চিম বঙ্গের দুরাবস্থা কবে দুর হবে?

ভারত অনেক দিক দিয়ে এগোলেও পশ্চিম বঙ্গ শুধু পিছিয়েছে কারন কি ?



১. হিন্দুধর্ম

হিন্দুকেই হিন্দু সহ্য করতে পারে না, মুসলমানকে কিভাবে সহ্য করবে?

আসলে এইসব লোকের নির্বুদ্ধিতা যে কোন পর্যায়ের, তা ভাষা দিয়ে প্রকাশ করা সম্ভব নয়। এই লোকগুলো মনে করে, মুসলমান ও হিন্দুর সহাবস্থান সম্ভব। একাত্তর টিভি ও সময় টিভিতে এরা টকশোতে গলাবাজি করে। ‘অসাম্প্রদায়িক’ ‘অসাম্প্রদায়িক’ বলে মুখে ফেনা তুলে ফেলে।

অথচ মুসলমান তো দূরে, হিন্দুরা হিন্দুদেরকেই সহ্য করতে নারাজ। খবরে প্রকাশ হয়েছে, “নেপালের রাষ্ট্রপতি বিধবা, তাই মন্দির ধোয়া হলো গঙ্গার পানিতে”। মন্দিরের দর্শনার্থী ও কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে হিমালয়ান টাইমস জানায়, গত বৃহস্পতিবার ‘রাম-জানকী বিবাহ মহোৎসব’ উপলক্ষে মন্দির দর্শনে আসে নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারি। নেপালের বিখ্যাত এই জানকী মন্দিরে প্রতিবছর রাম-সীতার বিবাহবার্ষিকী অনুষ্ঠিত হয়।

আর তার চলে যাওয়ার পরই নাকি গঙ্গাজলে ধুয়ে মন্দির শুদ্ধ করা হয়েছে। তার কারণ নেপালের মহিলা রাষ্ট্রপতি বিধবা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মন্দিরের পুরোহিতের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমটি জানায়, জানকী মন্দিরের প্রচলিত প্রথা অনুযায়ী মন্দিরে শুভক্ষণে কোনো বিধবা প্রবেশ কিংবা পূজা দিলে অমঙ্গল হয়। তাই ‘পবিত্র’ গঙ্গাজলে ধুয়ে মন্দিরে ‘শুদ্ধি’ করা হয়েছে।

নিন্মশ্রেণীর হিন্দুর কথা বাদই দিলাম, নেপালের রাষ্ট্রপতি কেবল ‘বিধবা’ বলেই তার সাথে এরূপ আচরণ করা হলো। খোদ দেশের রাষ্ট্রপতির প্রতিই যেখানে এই আচরণ, সেখানে এসব হিন্দুরা কী করে মুসলমানদের সাথে ভালো ব্যবহার করতে পারে?

অথচ ভারতের মুসলমানরা এখনো হিন্দুদেরকে ভাই ডাকতে ব্যাকুল। হিন্দুদের দ্বারা প্রতিনিয়ত নির্যাতনের শিকার হওয়ার পরও ভারতের মুসলমানরা যেভাবে হিন্দুদের সাথে থাকার সাফাই গায়, যেভাবে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের বিরোধিতা করে, তা দেখলে রীতিমতো বমি চলে আসে।

১ thought on “পশ্চিম বঙ্গের দুরাবস্থা কবে দুর হবে?

  1. তবে ধর্ম অবমাননার দোহাই দিয়ে
    তবে ধর্ম অবমাননার দোহাই দিয়ে কারোকে পশ্চিমবঙ্গে চাপাতি মারা হয় না।আর লেখার সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের দুরবস্থার সম্পর্ক পাওয়া গেলো না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *