ফেসবুক ও বাংলাদেশ, কোথায় যাচ্ছি আমরা?

বিদেশিরা যেসব কারনে ফেসবুক ব্যাবহার করেঃ

১) সোশ্যাল নেটওয়ার্ক।
২) বন্ধু বান্ধবের খোজ খবর রাখা।
৩) জন্মদিনে উইশ করা।
৪) মজার মজার ফটো/ ভিডিও আপলোড করা।
৫) বন্ধু / প্রেমিক/ প্রেমিকার সাথে চ্যাট করা।
৬) নিজ দেশের বিভিন্ন সমস্যা ও প্রতিকার নিয়ে আলোচনা করা।

আর বাংলাদেশে যেসব কারনে আমরা ফেসবুক ব্যাবহার করিঃ

১) মেয়েদের পটানোর চেষ্টা। ফেসবুকেই প্রেম/ফেসবুকেই ব্রেক আপ।
২) একটা ডিএসএলআর কিনে নিজের নামে ফটোগ্রাফি পেজ খোলা।
৩) নিজ দেশ/ অন্য দেশের সেলিব্রেটিদের ফটোতে গিয়ে অশ্লীল কমেন্ট করা।
৪) মোবাইলে কিভাবে ফ্রী ১৫০ টাকার টপআপ পাওয়া যায়, প্রত্যেক জায়গায় গিয়ে স্প্যামিং করা।
৫) কারনে/অকারনে, টয়লেটে,গরুর সাথে অথবা মৃত ব্যাক্তির সাথে গিয়ে সেলফি তোলা।
৬) পেজ অথবা স্ট্যাটাসে লাইক/শেয়ার টাকা দিয়ে কিনে নিজেকে ফেসবুক সেলেব্রিটি হিসেবে তুলে ধরা।
৭) ”পাদ দিলেন নুসরাত ফারিয়া (ভিডিওসহ)”/ ”রাজ্জাক আর নেই” টাইপের আপত্তিকর/বিভ্রান্তিকর নিউজ দিয়ে ওয়েবসাইটের হিট বাড়ানো।
৮) মিনিমাম ৩-৪ টা ফেসবুক একাউন্ট রাখা। একটা বন্ধুদের জন্য/ একটা ফ্যামিলির জন্য/ একটা বিভিন্ন ছবি/পোস্টে গিয়ে উলটা পালটা কমেন্ট করার জন্য।
৯) মেয়েদের (আসলে ছেলেদের) ফেক একাউন্টে (তামিল নায়িকার ছবি প্রোফাইল পিক) গিয়ে ”তুমি কত সুন্দর”, ”আমি তোমার বন্ধু হতে চাই”, ”এড মি পিলিগ” জাতীয় কমেন্ট করা।
১০) জাপানে ভুমিকম্প হলে বাংলাদেশে বসে ” ফেসবুক সেফটি চেক ইন” দেওয়া।

বাংলাদেশে ফেসবুক ব্যাবহারের আর অনেক উদাহরন দিতে পারতাম। হাজার হোক নিজের দেশের মানুষ, বলতেও খারাপ লাগে।

যেখানে মানুষ প্রযুক্তি ব্যাবহার করে দিন দিন এগিয়ে যাচ্ছে, আমরা সেই প্রযুক্তিকে ভুল কাজে ব্যাবহার করে দিন দিন পিছনের দিকে যাচ্ছি। ফেসবুকে রেশারেশি,গালাগালি, ভণ্ডামি আর কত?

ছুরি দিয়ে আপেলও কাটা যায়, আবার মানুষ খুনও করা যায়। ব্যাবহার করা জানাটাই আসল ব্যাপার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *