সম্ভ্রম তুমি কার? ধর্ষিতার নাকি ধর্ষকের?

সম্ভ্রম শব্দের অর্থ কী?
সম্ভ্রম একটি বিশেষ্য পদ। এর অর্থ হিসেবে বাংলা একাডেমীতে উল্লেখ করা হয়েছে-
মর্যাদা, সম্মান, মান, গৌরব, সমাদার, ভয়মিশ্রিত শ্রদ্ধা।
সম্ভ্রম এর ইংরেজি শব্দ-honour, dignity, prestige; reverence mixed with awe and submission, deference; modesty।

সম্ভ্রম শব্দটি সব থেকে বেশি যে ২টি বিষয়টিতে ব্যবহার করতে দেখেছি ও শুনেছি তা হল-
১। আমাদের মুক্তিযুদ্ধে ৪ লক্ষ নারী ধর্ষণের ঘটনার বর্ণনায়।
২। যখনই কোন ধর্ষণের ঘটনা ঘটে তখনই এই শব্দটির প্রয়োগ অধিক হারে লক্ষ্য করা যায়।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, একজন নারী যখন ধর্ষিত হয়, তার কী কী ক্ষতি হয়?

১। শারীরিক ভাবে অসুস্থতা।
২। মানুসিকভাবে অসুস্থতা।
৩। পরিবারকে হেনস্তা করা।
৪। পুলিশ, প্রশাসন দ্বারা হেনস্তা।
এরকম আরো অনেক কিছু।

এখন লক্ষ্য করুন তো, একজন ধর্ষিতার যে ক্ষতিগুলো হয়, সেগুলোকে একটি শব্দে নিয়ে এসে বলা হয় সে ‘সম্ভ্রম’ হারিয়েছে, তার ‘সম্ভ্রম’ কেড়ে নেয়া হয়েছে।
সে শারীরিক ভাবে অসুস্থ হয়েছে, তার মানে কি সে তার সম্ভ্রম হারিয়েছে? মর্যাদা হারিয়েছে? গৌরব হারিয়েছে? তাহলে যে ব্যক্তি ছিনতাইকারীর কবলে পরে আহত হয়, যে সন্ত্রাসীর দ্বারা খুন হয়, তাহলে তার ক্ষেত্রে কেনো, ‘সম্ভ্রম/মর্যাদা’ হারিয়েছে বলা হয় না?

আমরা এমন এক জাতি যে, আমরা ধর্ষক এবং ধর্ষিতার সংজ্ঞা গুলিয়ে ফেলেছি, এবং খুব সচেতন ভাবেই এটা হয়েছে। যেখানে- মর্যাদা, সম্মান, মান, গৌরব, সমাদার, ভয়মিশ্রিত শ্রদ্ধা এগুলো হারানোর কথা ধর্ষকের, সেখানে এই গুলো হারায় ধর্ষিতা!! কী অদ্ভুত রাষ্ট্র আমার।

আরেকটা বিষয় লক্ষ্য করুন, কেউ কি কখনো শুনেছেন, কোন পুরুষকে বলা হয়েছে, সে সম্ভ্রম হারিয়েছে? না, আমি শুনি নি। এটা আমার সীমাবদ্ধতা হতে পারে কিংবা আমার শ্রদ্ধেয় পুরুষতান্ত্রিক সমাজের বিচক্ষনতা হতে পারে।
তার মানে এটাই কী স্পষ্ট হয়ে ওঠে না যে, পুরুষের কোন সম্ভ্রম নেই? পুরুষের কোন মর্যাদা, সম্মান, মান, গৌরব, সমাদার, ভয়মিশ্রিত শ্রদ্ধা এগুলো নেই? হয়তো, অসম্ভ্রমতাই একজন পুরুষকে আরও বেশি পুরুষ করে তোলে। তাই অসম্ভ্রতাই একজন পুরুষকে গৌরবিত করে!

শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দেশ্যে আমরা যেমন বলে থাকি, ৩০ লক্ষ শহিদের আত্মত্যাগে আমাদের এই বাংলাদেশ, তেমনি ৪ লক্ষ মা-বোনের ধর্ষিত হওয়াটাও আত্মত্যাগ, ‘সম্ভ্রম’ নয়।

তনুর ধর্ষণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে, যারা বক্তব্যে, লেখায় ‘তনুর সম্ভ্রম’ কেঁড়ে নেয়া হয়েছে বলে তীব্র নিন্দা জানাচ্ছেন, তাদের জন্য করুণা। আপনাদের পুরুষতান্ত্রিক সমাজের এই চতুর শব্দগুলোকে আমরা কিন্তু লাথি মেরে ভেঙে চুরে দিতে শিখে গেছি।

নারী, জোরপূর্বক একদল হিংস্র জানোয়ার তোমার যোনীকে রক্তাক্ত করলে, তোমার সম্ভ্রম হারায় না, সম্ভ্রম হারায় ওই জানোয়ারগুলোর। তুমি আওয়াজ তোলো, গর্জে ওঠো।
তনুরা সম্ভ্রম হারায় না, সম্ভ্রম হারায় ধর্ষক, সম্ভ্রম হারায় ধর্ষক চাষ করা রাষ্ট্র।

৩ thoughts on “সম্ভ্রম তুমি কার? ধর্ষিতার নাকি ধর্ষকের?

  1. নারী, জোরপূর্বক একদল হিংস্র

    নারী, জোরপূর্বক একদল হিংস্র জানোয়ার তোমার যোনীকে রক্তাক্ত করলে, তোমার সম্ভ্রম হারায় না, সম্ভ্রম হারায় ওই জানোয়ারগুলোর। তুমি আওয়াজ তোলো, গর্জে ওঠো। তনুরা সম্ভ্রম হারায় না, সম্ভ্রম হারায় ধর্ষক, সম্ভ্রম হারায় ধর্ষক চাষ করা রাষ্ট্র। – See more at: http://istishon.blog/node/16435#sthash.EJnQR6uj.dpuf

    একমত। এখানে ধর্ষিতার কোন দায় বা লজ্জা নেই। সব দায় আর লজ্জা ধর্ষকের।

  2. নারীকে আরও আত্মপ্রত্যয়ী ও
    নারীকে আরও আত্মপ্রত্যয়ী ও সচেতন হতে হবে। হায়েনাদের কবল থেকে বাঁচার উপায় শিখতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *