ভগবান শব্দের অর্থ কি ? “ইন্দ্র” এক ধর্ষণকারী সৃষ্টিকর্তার নাম

ভগবান অর্থ কি ?

বিষ্ণুপুরাণে বলা আছে,

“ যিনি পরম ঐশ্বর্য, বীর্য, যশ, শ্রী, জ্ঞান ও বৈরাগ্য গুনযুক্তা তিনিই ভগবান ।”

বিষ্ণুপুরাণ গাঁজাখুরি গল্পে ভরা । এটাকেও তা মনে করে চেপে যান । ভগবান নামের মধ্যেও লুকিয়ে আছে দেব-দেবীর রগরগে যৌন কামনার ইঙ্গিত । হিন্দু দেবদেবী মা,বোন,মেয়ে কাউকেই ছাড়েনি । আর এদের পূজা করে হিন্দুরা । আসুন জেনে নেই,

ভগবানের নাম কেনো ” ভগবান ” হলো !

ভগবান শব্দটিকে হিন্দুরা সৃষ্টিকর্তা অর্থে ব্যবহার করেন। কিন্তু এই শব্দটা মোটেও কোন ভাল শব্দ নয়। এটি একটি অশ্লীল গালি।সংস্কৃত “ভগ” শব্দের অর্থ “স্ত্রী যোনী” আর “ভগবান” এর অর্থ “স্ত্রী যোনি আছে যার” ।


ভগবান অর্থ কি ?

বিষ্ণুপুরাণে বলা আছে,

“ যিনি পরম ঐশ্বর্য, বীর্য, যশ, শ্রী, জ্ঞান ও বৈরাগ্য গুনযুক্তা তিনিই ভগবান ।”

বিষ্ণুপুরাণ গাঁজাখুরি গল্পে ভরা । এটাকেও তা মনে করে চেপে যান । ভগবান নামের মধ্যেও লুকিয়ে আছে দেব-দেবীর রগরগে যৌন কামনার ইঙ্গিত । হিন্দু দেবদেবী মা,বোন,মেয়ে কাউকেই ছাড়েনি । আর এদের পূজা করে হিন্দুরা । আসুন জেনে নেই,

ভগবানের নাম কেনো ” ভগবান ” হলো !

ভগবান শব্দটিকে হিন্দুরা সৃষ্টিকর্তা অর্থে ব্যবহার করেন। কিন্তু এই শব্দটা মোটেও কোন ভাল শব্দ নয়। এটি একটি অশ্লীল গালি।সংস্কৃত “ভগ” শব্দের অর্থ “স্ত্রী যোনী” আর “ভগবান” এর অর্থ “স্ত্রী যোনি আছে যার” ।

এই শব্দটা ব্যবহারের কারণ:-

দেবরাজ ইন্দ্র একদা তার গুরু গৌতমের স্ত্রীকে স্নান করে ফিরে আসার পথে ভেজা কাপড়ে দেখে কামাতুর হয়ে পড়ে। তিনি কৌশলে গুরুর স্ত্রীকে সম্ভোগ বা ধর্ষণ করে। গৌতম এই ঘটনা জানার পর ইন্দ্রকে অভিশাপ দেয় যার ফলে ইন্দ্রের সারা শরীরে সহস্র ভগ বা স্ত্রী যোনী সৃষ্টি হয় ।

এর মানে হিন্দুরা তাদের সৃষ্টিকর্তাকে আসলে জোনীচিহ্নযুক্ত বা ধর্ষণের শাস্তিপ্রাপ্ত বলে ডাকছে।

যে ধর্মে সৃষ্টিকর্তাকে এভাবে কে এভাবে গালি দিয়ে ডাকা হয় সেই ধর্ম অবশ্যই সম্পূর্ণ ভুল ধর্ম।
ইন্দ্রের মতো এরকম ধর্ষণকারীকে ভগবান ডাকা হবে এটাতো খুবই স্বাভাবিক।

তথ্যসূত্র : উইকিপিডিয়া, হিন্দুপুরাণ ।

২ thoughts on “ভগবান শব্দের অর্থ কি ? “ইন্দ্র” এক ধর্ষণকারী সৃষ্টিকর্তার নাম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *