“মায়ের মতো ছোট বোন আছে”

হঠাত্‍ শুনি পেছন থেকে কেউ ডাকছে ফিরে অনেক খোঁজেও কাউকে পাইনা এমনটা মাঝে মাঝে হয়,শেষ হয়েছিল গত বত্‍সর।
গত বত্‍সর মানে ২০১৫ ডিসেম্বরে শীত যখন বেশ জেকে ধরেছিলো মধ্যদুপুর দিনেও সূর্য মামার দেখা পাওয়া যাচ্ছিলো না।
তেমন দিনে খুব পরিচিত কন্ঠের ডাক শুনে ফিরে চেয়ে দেখি ডাক দেয়ার মতো কেউ আশে পাশে নেই,অনেক্ষন অপেক্ষাও করেছিলাম সেদিন।
তারপর আর ঐরকম ঘটনা ঘটেনি।।
অন্যকারো কাছে সামান্য হলেও মায়ের অপারেশন টা আমাদের পরিবারে বেশ বড় সড় ধাক্কাই বলা যায়।

হঠাত্‍ শুনি পেছন থেকে কেউ ডাকছে ফিরে অনেক খোঁজেও কাউকে পাইনা এমনটা মাঝে মাঝে হয়,শেষ হয়েছিল গত বত্‍সর।
গত বত্‍সর মানে ২০১৫ ডিসেম্বরে শীত যখন বেশ জেকে ধরেছিলো মধ্যদুপুর দিনেও সূর্য মামার দেখা পাওয়া যাচ্ছিলো না।
তেমন দিনে খুব পরিচিত কন্ঠের ডাক শুনে ফিরে চেয়ে দেখি ডাক দেয়ার মতো কেউ আশে পাশে নেই,অনেক্ষন অপেক্ষাও করেছিলাম সেদিন।
তারপর আর ঐরকম ঘটনা ঘটেনি।।
অন্যকারো কাছে সামান্য হলেও মায়ের অপারেশন টা আমাদের পরিবারে বেশ বড় সড় ধাক্কাই বলা যায়।
কাল যখন অপারেশন রুমে মাকে নেয়া হলো ভয় লাগছিলো মায়ের লো প্রেসার তারউপর ছুড়ি চাক্কু এসব কে প্রচন্ড রকম ভয় পান অপারেশন রুম থেকে বাজে কোন সংবাদ যেন না আসে সেই দোয়াই করছিলাম শুধু।
মধ্যরাত পর্যন্ত ICU রুমের সামনে বসেছিলাম তারপর কেবিনে এসেও ঠিক শান্তি পাচ্ছিলাম না,শত মাইল দূরের আরেকটা মানুষ ও শান্তি পাচ্ছিলো না।ঘুম হয়নি একে বারেই ফজরে আজান শুনে ঘুমিয়ে আবার ৭টায় উঠে পরেছি।
আজও দৌড়দৌড়ি কম হয়নি,সমান তালে দৌড়েছে ইমন ভাইয়ের আরএক্স বাইক আর বাইকের ছোট্ট চালক মিঃগিট্টু।
মিঃগিট্টু এখন ঘুমচ্ছে যাওয়ার আগে কড়া গাম্ভীর্য গলায় ঢেলে বলেছে ‘তোমার ঘুম দরখার বা’।আমি নিজেও জানি আমার ঘুম প্রয়োজন।শুধু প্রয়োজন নয় খুব বেশীই প্রয়োজন।
সেও হয়তো ঘুমাচ্ছে কিন্তু আমি এই ছাইপাশ লিখা গুলো লিখছি।কারণ ঐ শুরুর কথা গুলো,মাথার ভিতর মোবাইলের রিংটোন ভ্রাইবেশন সহ বাজছিলো তাই মোবাইল বন্ধ করে ঘুমালাম স্পষ্ট শুনলাম বোন ডাকছে জেগে উঠে দেখি সে ঘুমোচ্ছে বল্লাম ডাকছিস সে বলে না কৈ ডাকলাম তোমাকে।
ঢুলুঢুলু চোখে আবার ঘুমিয়ে পড়লো,বোনটার মুখের দিকে তাকিয়ে আছি বড় মায়া লাগছে দেখতে,এখন যতটুকু মায়া নিয়ে তাকিয়ে আছি তার মুখের দিকে তারথেকে শত গুন বেশী মায়া নিয়ে আমার মুখের দিকে তাকিয়েছিলো দু বছর আগে।
রাত দশটা সাড়ে দশটা হতেই যে মেয়েটা ঘুমিয়ে পড়ে সে রাত ৩টা সাড়ে ৩টায় কপালে জলপট্টি দিচ্ছিলো আমার।
শুনেছি বড় বোনরা মায়ের মতো হয় আমার বড় বোন নেই তবে “মায়ের মতো ছোট বোন আছে”।
আজ আমার আর ঘুম হলো না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *