কলকাতা এখন ধর্ষণের রাজধানী


আন্তর্জাতিক নারী দিবস অর্থাৎ গত মঙ্গলবার কলকাতার রাস্তায় হাঁটলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভোটের মুখে তার মিছিলে সেøাগানও উঠল কিন্তু মমতা জানেন না, গত মঙ্গলবার সকালেই সংসদের টেবিলে সাংসদদের প্রশ্নের যে জবাব জমা পড়েছে, তাতে পশ্চিমবঙ্গ সম্পর্কে কী তথ্য দেয়া হয়েছে। সম্প্রতি লোকসভায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে ধর্ষণ সংক্রান্ত একটি প্রশ্ন করেছিলেন সংসদ সদস্য বি সেনগুত্তুভান। ঘটনাচক্রে নারী দিবসের দিনে সংসদে প্রশ্নটির উত্তর দিয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হরিভাই প্রতিভাই চৌধুরী। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, গত দু’বছরে গোটা দেশের মধ্যে ধর্ষণের মামলায় এক নম্বরে স্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। এক সময়ে বানতলা বা ফুলবাগানের মতো ঘটনাগুলো পশ্চিমবঙ্গের ইতিহাসে কালো আঁচড়ের দাগ হয়ে রয়েছে। ক্ষমতা বদলের পরে অনেকেই ভেবেছিলেন, পরিস্থিতির পরিবর্তন হবে কিন্তু পার্কস্ট্রিট থেকে কামদুনির মহিলাদের উপর নির্যাতনের ঘটনা বেড়েই চলেছে। তবে সিপিএম সংসদ বলেছেন, কলকাতা এখন ধর্ষণের রাজধানী। বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠেছে, নারী নির্যাতন রুখতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের মনোভাব নিয়েও। এই সময়েই উঠে এল রাজ্যের পরিস্থিতি সম্পর্কে এমন সব তথ্য। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় জানিয়েছে, পশ্চিমবঙ্গে ২০১২ থেকে ২০১৪ সালের মধ্যে ১৬৫৬টি ধর্ষণের ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছে। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বিহার। সেই রাজ্যে ওই সময়ে নথিভুক্ত ধর্ষণের ঘটনা ৪৮৪টি।যা শুনে তৃণমূলের সংসদ সদস্য ডেরেক ও’ব্রায়েনের পাল্টা দাবি, প্রতিটি ধর্ষণের ঘটনাই অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক।

৪ thoughts on “কলকাতা এখন ধর্ষণের রাজধানী

  1. ভারতে ধর্ষণকারীদের কোনো
    ভারতে ধর্ষণকারীদের কোনো শাস্তি হয় না। নেতারা ধর্ষণের পক্ষে।
    এদের নির্মূল করা প্রয়োজন।

  2. আমাদের দিদি বলে শরীর থাকলে
    আমাদের দিদি বলে শরীর থাকলে যেমন জ্বর সর্দি হয় ,তেমন ধর্ষণ হবে । রাজনীতিতে ধর্ষণ ধর্ম সহজ উপায় ক্ষমতায় আসার

  3. ভারতে বেশির ভাগ ধর্ষণ হয়
    ভারতে বেশির ভাগ ধর্ষণ হয় রাজনীতি কারনে । আর সবচে বড় কারণ ধর্ষকরা বেশিরভাগ সংখ্যালঘু । সংখ্যালঘু তোষণের মধ্যে এরা খালাস পেয়ে যায় । সন্ন্যাসী ধর্ষণেও বেশিরভাগ সংখ্যালঘুছিল ।
    আর হয় প্রেমঘটিত ব্যপার থেকে ।
    ভারতের যে সব মহিলা নাইটক্লাবে যায় তারা কিন্তু ধর্ষণ হয় না , ধর্ষণ হয় সাধারণ মেয়েরা ।

  4. উপরের এই ছবিটাতে যে
    উপরের এই ছবিটাতে যে সন্যাসীনির উল্যেক করা হয়েছে থাকে কিন্তু বাংলাদেশী মুসলমানরাই ধর্ষন করেছিল যেটা পরে প্রমাণিত ও হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *