যীশুর রহস্য খোজে

যীশুর রহস্য খোজে:

ইসলাম ও খ্রিষ্ট ধর্মে বিস্বাসী দের দাবি যিশু এখনও মরে নি(খ্রিষ্ট ধর্ম মতে তিনি মৃত তবে স্বর্গে জীবিত)। খ্রিষ্ট ধর্মে বিস্বাসীরা দাবী করেন খ্রিষ্ট বেচে আছেন।
ইসলাম ধর্মও বিশ্বাস করে খ্রিষ্ট বেচে আছেন।
মোটামুটি আব্রাহামিক ধর্মগুলোর এই বিস্বাসটা মোটামুটি একই রকম।
তিনি নাকী কেয়ামত বা মহাবিশ্ব ধ্বংশ হবার আগে তলোয়ার হাতে পৃথিবীতে নেমে আসবেন এবং ৪০ বছর অবস্থান করবেন।
তখন তিনি সমস্ত ক্রাইষ্ট বিরোধীদের হত্যা করবেন।সমস্ত শূকর হত্যা করবেন।সমস্ত ক্রুশ ভেঙে ফেলবেন।
এখন মানলাম আব্রাহামিকরা বাদে সবাই মারা যাবে।

যীশুর রহস্য খোজে:

ইসলাম ও খ্রিষ্ট ধর্মে বিস্বাসী দের দাবি যিশু এখনও মরে নি(খ্রিষ্ট ধর্ম মতে তিনি মৃত তবে স্বর্গে জীবিত)। খ্রিষ্ট ধর্মে বিস্বাসীরা দাবী করেন খ্রিষ্ট বেচে আছেন।
ইসলাম ধর্মও বিশ্বাস করে খ্রিষ্ট বেচে আছেন।
মোটামুটি আব্রাহামিক ধর্মগুলোর এই বিস্বাসটা মোটামুটি একই রকম।
তিনি নাকী কেয়ামত বা মহাবিশ্ব ধ্বংশ হবার আগে তলোয়ার হাতে পৃথিবীতে নেমে আসবেন এবং ৪০ বছর অবস্থান করবেন।
তখন তিনি সমস্ত ক্রাইষ্ট বিরোধীদের হত্যা করবেন।সমস্ত শূকর হত্যা করবেন।সমস্ত ক্রুশ ভেঙে ফেলবেন।
এখন মানলাম আব্রাহামিকরা বাদে সবাই মারা যাবে।
আমার প্রশ্ন ক্রাইষ্ট বিরোধীর সংখ্যা প্রায় ৪৫০ কোটি।তবে প্রতিদিন ১০০০০জন হত্যা করলেও ১২৩২৮ বছর মত লাগবে।
তিনি ৪০ বছরে তা কেমনে করবেন?গবেষনামতে খ্রিষ্ট ধর্ম অনুসারীদের ৮৮%ক্রুশ ব্যাবহারকারী। তাদের সংখ্যা কম ধরলেও ১৩২ কোটি।
মানে ১৩২কোটি ক্রুশ আছে।প্রতিটা ক্রুশ ভাঙতে ১ মিনিট লাগালেও ২৫১১৮ বছর দরকার শুধু ক্রশ ধ্বংশ করতে।
তিনি প্রায় সাড়ে ৩৭ হাজার বছরের কাজ সারলেন ৪০ ববছরে (শূকর বাদে)
তিনি নাকি তলোয়ার নিয়ে নামবেন।এই পারমানবিক বোমার যুগে যেখানে ১টা শহর ধ্বংশ করতে ১ টা বোমা দরকার;শহরের সূচ থেকে সুতার খবর বের করতে কয়েক ঘন্টা লাগে। তিনি একজন দুই হাজার পাচশো বছরের বুড়ো মানুষ হয়ে কেমনে এতো মানুষ মারবেন?
যারা ধর্মগ্রন্থ্রে খালি বিজ্ঞান দেখেন তারা আমার প্রশ্ন গুলোর একটু বিজ্ঞানসম্মত উত্তর দিনতো দেখি?
(পারসোনালি আমি মনএ করি মন দিয়ে ধর্মগ্রন্থ পড়লে সেই ব্যাক্তি নাস্তিক হতে বাধ্য।আমার ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে)

১ thought on “যীশুর রহস্য খোজে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *