আপনি কি জানেন ? হিন্দুরা কেন পূজায় যায় ?

By মুহম্মদ আব্দুল্লাহ্


By মুহম্মদ আব্দুল্লাহ্

দশমীতে মূর্তি বিসর্জনে আগে হয় সিঁদুর খেলা। বিবাহিত নারীদের এই মধ্যে এই সিদুর খেলার নিয়ম থাকলেও এখন সধবা-কুমারী, নারী-পুরুষ সবাই মিলে এই খেলায় মেতে ওঠে। সবাই সবাইকে সিদুর-রং মাখিয়ে দেয়, ! মন্দিরের মধ্যে নারী-পুরুষ রং নিয়ে মাখা-মাখি, নাচা-নাচি, সাথে আরো কত আকাম কুকাম করে। বউদীরা সব ধুনুচি নাচ শুরু করে, আর দেবররা সব হা করে তাকিযে আনন্দ নেয়, কেউবা বাড়তি কিছুরও সুযোগ পায়। একেই বলে পবিত্র ধর্মীয় অনুষ্ঠান দূর্গা পূজা ! হা হা হা…। ধর্মের কি বাহার !!!! এমন ধর্ম কি করে হিন্দুরা হাতছাড়া করবে। পূজায় সব কিছু যেহেতু ফ্রী পাওয়া যায় তাহলে আর মন্দ কি। এটা তো কিছুই না ঠিকভাবে বর্ণনা করলে চটিগল্প রচনা হয়ে যাবে।

কলকাতার ক্লওজ গ্রুপ ‘গুরুচণ্ডালী’-তে অনিন্দ মিত্র নামক এক নিকৃষ্ট হিন্দু এ সম্পর্কে বলল- “পাড়ার বউরা সব সিঁদুর খেলতে যাচ্ছে তার তাদের দিকে হা করে বা আড় চোখে তাকিয়ে মেপে নেওয়া আর কি, “গুরু উনি বোস বাড়ির নতুন ভাড়াটিয়া না , কি ঝাকাস মাইরি, ” বা বস দ্যাখ যদি সিঁদুর মাখাতে আসে মেখে নেবো কিন্তু ,তোরা শুধু বউ কে আড়াল করে রাখিস,। ” মামা কি দেখতে – শালা কেন যে আগে বিয়ে করলাম কে জানে !!! ” (স্ক্রিনশট আছে, লাগলে দেবো)

সত্যিই বলতে ধর্ম যদি মানুষকে অশ্লীলতা দিয়ে ডাকে তবে কিছুই বলার নাই। মানুষের বিবেকের কাছে প্রশ্ন কিভাবে ধর্ম এমন কাজ করতে বলে ? মন্দিরে যে মানুষ যায় কেন ? কিসের নেশায় যায় ? কি দেখতে যায় তা আর বুঝতে বাকি রইল না ? আর অনিন্দ মিত্রের ভাষায় ‘কি মাপতে যায়’ ?

( সিঁদুর খেলার কিছু ছবি, বেশিরভাগ ছবি ঢাকার পূজা মণ্ডপগুলোর, সামান্য কয়েকটা আছে ভারতের। বিডি নিউজ লিঙ্কে অনেকগুলো পাবেন- http://goo.gl/qDQ57d)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *