চাপাতির কোপ খাবো তবু পরাধীন থাকতে পারবো না।

মৌলবাদীদের চাপাতির কাছে আমাদের বাক-স্বাধিনতা বন্দি।স্বাধিন দেশে তবু পরাধীনের মত বেচে আছি! কথা বলতে গেলে লাগে ভয়,কখন আবার রক্তপিপাসুরা চাপাতি নিয়ে ঝাপিয়ে পরে। তাই এদেশের মৌলবাদীদের মন জুগিয়ে চলা ছাড়া বেচে থাকার কোনো উপায় নাই। মন জুগিয়ে চলাটা হলো তাদের প্রতি অনুগত থেকে তাদের গুনগান গাওয়া অথবা মুখে টেপ দিয়ে বন্ধ করে রাখা। এটাকে যদি স্বাধিনতা বলে তাহলে আমি এই স্বাধিনতা চাই না। পরাধীন থাকার চেয়ে চাপাতির কোপ খাওয়া অনেক ভাল। দেশের নারীরা তো আছে নরকবাসে। ইসলামের নামে তাদের নাকে ঠুসি পরিয়ে দাসী করে রাখা হচ্ছে। নারীদেরকে এরা মানুষ মনে করে না, এদের কাছে নারী হলো ভোগ্যবস্তু। আমরা এরকম স্বাধিনতা চাই না, যে স্বাধিনতায় আমাদের কথা বলার অধিকার হনন করে। আমরা প্রকৃত স্বাধিনতাকে খুজছি। কবে পাবো তার দেখা?

৩ thoughts on “চাপাতির কোপ খাবো তবু পরাধীন থাকতে পারবো না।

  1. ভাই, চাপাতির কোপ খাওয়াটা কোনো
    ভাই, চাপাতির কোপ খাওয়াটা কোনো গর্বের বিষয় নয়।
    আমরা এখন স্বাধীন দেশের নাগরিক। আমাদের স্বাধীনতা পূর্ণ মাত্রায় বিরাজমান।
    আসুন, আমরা সুস্থ-সুন্দর চিন্তা করি।

  2. ভাই, আপনার বোঝার হয়তো ভুল
    ভাই, আপনার বোঝার হয়তো ভুল হয়েছে। আমি আসলে মৌলবাদীদের ঔদত্যের কথা বুঝাতে চেয়েছি। তাদের চাপাতির কাছে আমাদের স্বাধিনতা বন্দি।

  3. ধর্মের অসঙ্গতিগুলো থেকে যতদিন
    ধর্মের অসঙ্গতিগুলো থেকে যতদিন আমরা মুক্ত হতে পারবোনা ততদিন মানুষের আসলে কোন স্বাধীনতা বলে কিছুই নাই।

    পোস্টগুলো আরো একটু বড় ও বক্তব্যের ডিটেইলস আসলে ভাল হত। বানানের দিকে নজর রাখবেন। স্বাধীনভাবে মত প্রকাশ করতে থাকুন। আমাদের কথা বলতেই হবে। মানুষ হিসাবে নিজের কথাগুলো অন্যকে জানানো স্বাভাবিক প্রবৃত্তি। এটি আপনার অধিকার। আর হ্যাঁ, ইস্টিশনে স্বাগতম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *