দুর্নীতি ও বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে বাস্তবতা

দুর্নীতি প্রতিরোধ – প্রতিকার নিয়ে বিশেষজ্ঞ মতামতের শেষ নেই। প্রশাসনের ছাত্র হিসেবে ঢের পড়েছি, সবই সুন্দরী কথা! কিছু যুক্তি তুলে ধরি একটু সময় নষ্ট করে পড়বেন।
.
ধরুন, সরকারে নেই এমন কোন দলের দিনে ৬৪টি জেলায় গড়ে ২০টি করে ১২৮০ টি প্রোগ্রাম হচ্ছে।

দুর্নীতি প্রতিরোধ – প্রতিকার নিয়ে বিশেষজ্ঞ মতামতের শেষ নেই। প্রশাসনের ছাত্র হিসেবে ঢের পড়েছি, সবই সুন্দরী কথা! কিছু যুক্তি তুলে ধরি একটু সময় নষ্ট করে পড়বেন।
.
ধরুন, সরকারে নেই এমন কোন দলের দিনে ৬৪টি জেলায় গড়ে ২০টি করে ১২৮০ টি প্রোগ্রাম হচ্ছে।
প্রতি প্রোগামে ১ লক্ষ টাকা মাইক, মঞ্চ,কর্মীদের যানবাহন, বিড়ি চা, খাবার অনেক সময় অডিটেরিয়াম ভাড়া সহ নানা কাজে ব্যয় হয়। তাহলে ১২৮০ টি প্রোগ্রামের জন্য ১৩ কোটি টাকা প্রতিদিন। আর যে সব কর্মীরা নিজের প্রতিদিনের কাজ ফেলে এসব প্রোগ্রামে যোগ দেয় তাদের একদিনের বা অর্ধ দিনের শ্রমের মূল্য হবে প্রতি প্রোগ্রামে নূন্যতম ২০০জন করে ধরলে ১২৮০*২০০*৩০০= ৭কোটি ৬৪ লক্ষ ( ৩০০টাকা দিন মুজুরী ধরে)। তাহলে মোট দিনে ২০ কোটি টাকা দিনে, ৩৬৫দিনে ৭ হাজার ৩০০কোটি টাকা আর পাঁচ বছরে ৩৬৫০০ কোটি টাকা। ব্যাংক ঋণ হিসেবে সুদ ধরলে পাঁচ বছরে ৬০ হাজার কোটি টাকা হবে প্রায়।
.
একটি দলে পাঁচ বছর সরকারের বাইরে থাকলে এটা তাদের খরচের হিসাব। এই খরচের ৪০% বড় নেতা, শিল্পপতি, ঠিকাদার দেয়, ৩৫ % কর্মীদের শ্রমবাবদ তাদের নিজস্ব পুজি, ২৫% জেলা উপজেলা ইউনিয়নের শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের চাঁদা তথা নিজ দায়িত্বে দলীয় উদ্দেশ্য খরচ।
.
৬০ হাজার কোটি টাকার দল চালাতে গিয়ে আমাদের আবদান হল চাঁয়ের স্টলে এদের দুর্নাম বলা। এরা ক্ষমতায় গেলে সেই ৬০ হাজার টাকার টাকা টেন্ডারবাজি, পার্সেন্টবাজী, টি আর, কাবিখা, বড় বড় প্রজেক্টের পার্সেন্টেজ, ভুয়া ভাউচারবাজী করে তুলে নেয়। মুখে যে সব দেশ প্রেমের কথা কয় তা হল মেরে খাওয়ার ফাকে ক্লান্তি হয়ে চাঁ খাওয়া মাত্র।
.
তারা তাদের ৬০ হাজার টাকার সাথে নির্বচনকালীন আরো কয়েক হাজার কোটি টাকা ব্যয় হয়। আবার ভবিষ্যতের খরচও বহন করার জমা রাখতে হয় সেই সাথে তাদের দল্গুলোর সরকারে থাকা অবস্থায় আরো ৬০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করতে হয় প্রোগাম চালানোর জন্য।
.
তার মানে একটি দল বিরোধী পাঁচ বছরে ৬০+ সরকালে গেলে ৬০ মোট ১২০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করে সেখানে ২ লক্ষ কোটি টাকা যদি দুর্নীতি করতে হয় সরকারে থাকার সময় সেটা অবাক হবার নয়! সেটা সকল বড় নেতাটি জানে যে জনগণ দল চালানোর জন্য টাকা দিবে না, তাই তারা করের টাকা থেকে এই টাকা দুর্নীতি থেকে ম্যানেজ করে। প্রত্যেকটি দুর্নীতিবাজ নেতা কিন্তু দলের খুবই ভাল মানের ডোনার, এরাই দলের পরোক্ষভাবে প্রাণ।
.
তাই যতই টি আই বি চিল্লানী দিক, বামেরা চিল্লানী দিক, আমার মত জটা দেশ প্রেমিকেরা লেখুক আর মার্কামারা বিশেষজ্ঞ ভাব নিক জনগন স্বতস্ফূর্তভাবে রাজনীতিতে অংশ না নিলে, দলীয় চাঁদা না দিলে, রাজনীতে ভাল আদর্শ নিয়ে নেতৃত্বের প্রতিযোগীতা না করলে যতই চিল্লানী দিক কাজের কাজ কিছুই হবে না। তারা হাজার কোটি টাকা ব্যয় করে নির্বাচন করবে, দল চালাবে আর আমরা চায়ের কাপে দেশ উদ্ধার করি।
.
* তথ্য অনুমানকৃত, বুঝানোর জন্য! কম বেশি অবশ্যই হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *