বিকাশ একাউন্ট আছে যাদের, সাবধান!

অপরিচিত নাম্বার থেকে ফোন করে বিকাশের কাস্টমার কেয়ারের কর্মকর্তা দাবী করে কেউ আপনাকে ফোন করতে পারে। বলবে বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন নিয়মানুযায়ী মেন্যুর ৪নাম্বার অপশনটি বদলে যাবে কালকের মধ্যে, সেক্ষেত্রে আপনাকে একটি প্রক্রিয়া অনুসরণ করে এক পর্যায়ে গিয়ে পিন নাম্বার চাইবে।


অপরিচিত নাম্বার থেকে ফোন করে বিকাশের কাস্টমার কেয়ারের কর্মকর্তা দাবী করে কেউ আপনাকে ফোন করতে পারে। বলবে বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন নিয়মানুযায়ী মেন্যুর ৪নাম্বার অপশনটি বদলে যাবে কালকের মধ্যে, সেক্ষেত্রে আপনাকে একটি প্রক্রিয়া অনুসরণ করে এক পর্যায়ে গিয়ে পিন নাম্বার চাইবে।

আমি অবশ্য তার আগেই কাস্টমার কেয়ার কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলাম। লোকটি তখন বললো এক্ষুনি আপনার কাছে ১৬২৪৭ থেকে একটি কল যাবে। আসলেই আসলো, তবে তা +১৬২৪৭ থেকে। এটুকু বিশ্বাস করে ফেলেছিলাম, কিন্তু যখনি পিন চাইলো, তখন বললাম আজকে আমি ব্যস্ত আছি, পরে করবো। আমাকে ভয় দেখালো আগামীকালের মধ্যে না করলে নাকি বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হয়ে যাবে।

ফোন রেখে পরিচিত এক সাংবাদিককে জানালাম। তিনি বিকাশের আসল কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে নিশ্চিত করলেন এরা আসলে একটি জালিয়াতি চক্র।

এর আগে জেনেছি বিকাশের কিছু কর্মকর্তার সাথে অপরাধীরা একসাথে কাজ করে সিম ক্লোন করে এজেন্টদের লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এবার নিজেই অভিজ্ঞতা অর্জন করলাম! আর সন্দেহ করাতে রক্ষা পেলাম।

বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে – বিশেষতঃ দুই নাম্বারীতে।

৩ thoughts on “বিকাশ একাউন্ট আছে যাদের, সাবধান!

  1. ইদানিং দেশে ইলেক্ট্রনিক
    ইদানিং দেশে ইলেক্ট্রনিক লেনদেনের সেবাগুলোতে প্রতারণার হার অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে গেছে। বিকাশের মাধ্যমে অতীতেও অনেক ধরনের প্রতারণামুলক কাণ্ড ঘটেছে। সবাইকে যে কোন ইলেক্ট্রনিক লেনদেনের ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত। আমাদের দেশে এসব লেনদেনের ক্ষেত্রে সিকিউরিটি কখনই শতভাগ ছিল না। এই সুযোগটাই প্রতারকচক্র কাজে লাগাচ্ছে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানসমূহের কিছু অসাধু কর্মচারী ও কর্মকর্তার যোগসাজসে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *