২১ শে ফেব্রুয়ারি সম্পর্কে মুমিনদের ভাবনা-

২১ শে ফেব্রুয়ারি সম্পর্কে মুমিনদের ভাবনা-

প্রশ্নঃ সবাই বলে আপনারা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করেন না। কিন্তু কেন ?
উত্তরঃ বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম । শহীদ দিবসকে অন্য কিছু বানালে তা আমরা মানবো কেন ? পালনই বা করব কেন ? আমরা ২১ শে ফেব্রুয়ারিকে শহীদ দিবস হিসাবে মানি ।

প্রশ্নঃ কিভাবে মানেন ?
উত্তরঃ দেখুন , আমরা বেদাত করি না । আমরা আমাদের তরিকায় মানি । এদিন আমরা শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করি ।

প্রশ্নঃ আচ্ছা! আচ্ছা! তাহলে আমাদের বলুন, ২১ শে ফেব্রুয়ারির তাৎপর্য কী ?
উত্তরঃ এটা শহীদ দিবস । এই দিনে আমাদের কিছু মুসলমান ভাই জীবন দিয়েছিল । নামগুলো দেখুন- সালাম, রফিক, জব্বার… কোনো মালাউন নাই…

প্রশ্নঃ বাংলা কি বাংগালীর ভাষা নয় ? আপনি কি বাংজ্ঞালী নন ?
উত্তরঃ দেখুন জন্মের পরেই আজান শুনেছি , সবার আগে আমি একজন মুসলিম ।

প্রশ্নঃ কিসের জন্য জীবন দিয়েছিল জানেন ?
উত্তরঃ মালাউনদের ষড়যন্ত্র ও উস্কানীতে ।

প্রশ্নঃ কিরকম ষড়যন্ত্র ?
উত্তরঃ দেখুন! ঐ সময়ে এই মালাউনরাই বাংলা বাংলা বলে বেশী লাফাইছে । । যাদের নেতা ছিল মালাউন ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত । মুসলিম লীগের কোন নেতা কি ঐ সময়ে আন্দোলনে ছিল ? ছিল না। কারণ তারা ভাল করেই জানতো বাংলা মালাউনদের ভাষা । অথচ এই মুসলিম লীগের জন্যই আমরা মুসলমানদের জন্য একটা দেশ পাইছি । তা নাহলে মালাউন ভারতের অধীনে থাকতে হতো। এই জন্য কি মুসলিম লীগের প্রতি কৃতজ্ঞ থাকা উচিত না ?

প্রশ্নঃ “আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি” –এই কথার দ্বারা কি বুঝেন ?
উত্তরঃ আমাদের মুসলিম ভাইদের রক্তকে ভুলতে মানা করেছে ।

প্রশ্নঃ তাদের ঋন কিভাবে শোধ করবেন ?
উত্তরঃ দেখুন, আমরা মিথ্যা বলিও না আবার শুধু ঐ লোক দেখানো বেদাত কাজ করিও না । কিছু মুসলমান হিন্দু কাফেরদের সাথে মিলমিশা করায় তাদের আচরণও কাফেরদের মতই হয়েছে । এই জন্যই কোরানে সূরা নিসার ৮৯ নম্বর আয়াতে আল্লাহ তাদের সাথে মিশতে মানা করেছেন । অবশ্য যাদের উস্কানীতে আমাদের ভাইজানেরা শহীদ হইছে তাদেরকে এই দেশ থেকে উৎখাত করার সং গ্রাম চালিয়ে যাচ্ছি। একদিন আমরা সফল সবই, ইনশাল্লাহ । আর এটাই হবে আমাদের ভাইদের রক্ত ও জানের বদলা । এই বিষয়ে আমরা সর্বদলীয় জিহাদ পরিষদও গঠন করেছি ।

প্রশ্নঃ কি বললেন ? সর্ব দলীয় জিহাদ পরিষদ আবার কবে হইল ?
উত্তরঃ আপনারা কানা তাই দেখতে পান না ।

প্রশ্নঃ কিরকম ? একটু বিস্তারিত ভাবে বলুন ।
উত্তরঃ দেখুন এই দেশে হিন্দুদের ধন সম্পত্তি ও তাদের মেয়েদেরকে ভুলিয়ে ভালিয়ে বিয়ে করার ক্ষেত্রে ও তাদেরকে পিটিয়ে ভয় দেখিয়ে হেন্দুদের দেশ ভারত পাঠানোর কাজে কি কোন দল কারো থেকে পিছিয়ে আছে ? এই বিষয়ে কি কোনো দল দ্বীমত হয়ে মারামারি করেছে ? সকল দলের নেতা ভাইরাই এই জিহাদে শামিল আছে । এই বিষয়ে সরকার বাহাদুরও আমাদের সাথে আছে ।

প্রশ্নঃ হ্যাঁ, কোন কোন নেতারা হয়তো আছে কিন্তু সরকার আবার আপনাদের সাথে কিভাবে থাকলো ?
উত্তরঃ হিন্দু উৎখাতের কোন মামলাতে কি কোন আদালত আমাদের কোন ভাই ব্রাদারদেরকে শাস্তি দিতে দেখেছেন ? এবার সরকার হিন্দু মেয়েদেরকেও বাবার সম্পত্তিতে অধিকার প্রতিষ্ঠা করার জন্য আইন পাশ করলেই দেখবেন আমাদের কাজ কত সহজ হয়ে যায় ।

প্রশ্নঃ আপনি এত হিন্দু বিদ্বেষী কেন ?
উত্তরঃ দেখুন এখানে বিদ্বেষের কিছু নাই । আল্লাহ নিজে তাদেরকে কাফের বলেছে । তা ছাড়া তারা ৭১-এ মুক্তি যুদ্ধের সময় সব পালিয়ে ভারতে গিয়ে তামাশা দেখেছে । মুক্তি যুদ্ধ করেছি আমরা মুসলমান ভাইরা । হিসাব দেখেন। তখন ৩০% এর উপরে হিন্দু ছিলো। আমাদের বীরশ্রেষ্ঠ ৭ জন। মালাউনরা যুদ্ধ করলে হিসাবে এদের অন্তত ২ জন হিন্দু থাকতো। আছে? বাদ দ্যান। বীর প্রতীকে কয়জন হিন্দু আছে? আমরা দেশ স্বাধীন করার জন্য রক্ত দিব জান দিব অথচ তারা ভোগ করবে তা কি হতে দেওয়া যায় ? এ ছাড়া রাস্ট্রধর্ম অনুযায়ী দেশ আমাদের । এক মাত্র মুসলমানদের । কোরান সুন্নাহ অনুযায়ী কাফেরদেরকে উতখাত করাই এক জন মুসলমানের প্রকৃত জিহাদ ও প্রকৃত পরিচয় । না হলে আলাহ পাকের কাছে কি জবাব দিব !!

প্রশ্নঃ তবে কি যারা আপনাদের ভাষায় বেদাত কাজ করছে তারা অমুসলিম ?
উত্তরঃ আজ আর না ভাই নামাজের সময় হয়ে গেছে । । ২১শে ফ্রেব্রুয়ারি, ২১শে ফ্রেব্রুয়ারি । জিন্দাবাদ জিন্দাবাদ । সালাম, রফিক, বরকত আমরা তোমাদের ভুলব না । আলালহ হাফেজ ।

১ thought on “২১ শে ফেব্রুয়ারি সম্পর্কে মুমিনদের ভাবনা-

  1. ভাষা কারো বাপ-দাদার সম্পত্তি
    ভাষা কারো বাপ-দাদার সম্পত্তি না, এটা আল্লাহর দান, এটা কোন সরকারি সম্পত্তিও না যে ইচ্ছা করলেই নিয়ে যেতে পারবে। হিন্দুদের এই দেশ থেকে কেউ তারাতে চায় না তারা নিজেরাই চলে যায় কারন অতি সহজ মুসলমানদের সাথে থাকলে মাল খাইতে পারে না, মাগিবাজি করতে পারে না,রাস্তাঘাটে লেঙটা হয়ে নাচতে পারে না তাই মানুষের টাকা পয়শা মেরে বর্ডার পার হয়ে যায়।ভারত মাতা কি জয়!!!!!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *