ক্ষণিকের নীল জল

আমি কি পায়ে হেঁটে যাব না রিক্সায় যাব?
না না পায়ে হেঁটেই যাই„ পায়ে হেঁটে গেলে যেমন স্বাস্থের জন্য ভাল, তেমন আমার টাকাও বাঁচবে।
মন্দ কি? একের ভিতর দুই।

হ্যা আমি যাচ্ছি ২১শে বইমেলায়..
যাওয়ার পথে কত কিছু যে ভাবতেছি…
বর্তমানে আমাদের দেশের তরুণরা ভাষাকে কত ধরণের ভঙ্গীতে লিখে।
যেমন কেও বাংলিশ লিখে
আবার কেও কেও আমাকে লিখতে গিয়ে লিখে আম্রে, কোথায় আছ বা কি হয়েছে? এগুলোকে লিখে কুন্ডে, কিচ্ছে..
আরও কত ধরণের ভঙ্গী তাদের।
এগুলো কি বাংলা ভাষা? না ভাষার বিপরীত জানিনা
তবে তরুণরা যেদিকে নিয়ে যাবে ভাষার ভাবভঙ্গীও সেদিকেই যাবে।

হ্যা আমি বইমেলাতে যাচ্ছি
ঘুরতে নয় বই কিনতে।

আমি কি পায়ে হেঁটে যাব না রিক্সায় যাব?
না না পায়ে হেঁটেই যাই„ পায়ে হেঁটে গেলে যেমন স্বাস্থের জন্য ভাল, তেমন আমার টাকাও বাঁচবে।
মন্দ কি? একের ভিতর দুই।

হ্যা আমি যাচ্ছি ২১শে বইমেলায়..
যাওয়ার পথে কত কিছু যে ভাবতেছি…
বর্তমানে আমাদের দেশের তরুণরা ভাষাকে কত ধরণের ভঙ্গীতে লিখে।
যেমন কেও বাংলিশ লিখে
আবার কেও কেও আমাকে লিখতে গিয়ে লিখে আম্রে, কোথায় আছ বা কি হয়েছে? এগুলোকে লিখে কুন্ডে, কিচ্ছে..
আরও কত ধরণের ভঙ্গী তাদের।
এগুলো কি বাংলা ভাষা? না ভাষার বিপরীত জানিনা
তবে তরুণরা যেদিকে নিয়ে যাবে ভাষার ভাবভঙ্গীও সেদিকেই যাবে।

হ্যা আমি বইমেলাতে যাচ্ছি
ঘুরতে নয় বই কিনতে।
রেডিওবিডিজোন পরিবার থেকে,
রেডিওমুন্নার-শব্দ ছুঁয়ে স্বপ্ন নিয়ে…
Mpszএর-হারানো MPSZ® গ্রহের সন্ধানে…
জয়বিডি থেকে- স্বপ্নপূরণে জয়বিডি…
তার বাহিরে রেডিওস্বদেশের-কণ্ঠে বিশ্ব হৃদয়ে স্বদেশ…
সাথে অভি দাদার সম্পাদনায়
রৌদ্র ছায়ার গল্প, নিভৃত রোদেলায় জোছনার গল্প & অন্য গল্প সহ আরও অনেকগুলো বই নেয়ার প্রবল ইচ্ছে নিয়ে যাচ্ছি বইমেলাতে।

প্রিয় মানুষগুলোর প্রকাশিত বই সাথে সহ সঙ্গীদের লেখা গল্পগুলো নিতে তো আমাকে হবেই হবে।
লেখক নয় আমি কিন্তু লেখা কিনতে যাচ্ছি।

আমি যে বইগুলো নেয়ার আগ্রহী,
সে পরিমাণ টাকা আমার কাছে নেই।
আম্মুর কাছে টাকা চেয়েছি আম্মু না করে দিয়েছে এক টাকাও দিবেনা আমাকে।
আম্মুকে কতবার বললাম আমি বই কিনবো তবুও আম্মু কিছুতেই বিশ্বাস করেনা।
বিশ্বাস না করার কারণ এর আগেও মিথ্যা বলে আম্মুর কাছ থেকে প্রচুর টাকা নিয়েছি।
সেই সকাল থেকে আম্মুকে বিরক্ত করতে করতে আম্মু ত্যক্ত হয়ে বিকেল ৪টায় মাত্র ১৫শ টাকা দেয়।
আমি এখন কোন বই রেখে কোন বই নিবো কিছুই বুঝতে পারতেছিনা।

আম্মু বলছে যদি সত্যি এই টাকা দিয়ে বই ক্রয় করি, তাহলে আমাকে আরো টাকা দিবে।
তবে এখন নয় আরো কয়েকদিন পর।
যেহেতু আম্মু বলছে সেহেতু সত্যিই আমাকে দিবে।

যদি দেয় তাহলে এই টাকা গুলো জমা করে রাখবো, একটা জাগ্রত স্বপ্নে দিন কাটাচ্ছি।
শেওলা ধরা এই মনটা এখন করছে এক আবোলতাবোল অনুরোধ।
আগামী বছর এই দিন গুলোতে আমার টাকার খুব প্রয়োজন হতে পারে।
এই টাকার সাথে আরো কিছু টাকা জমিয়ে সেইদিন কাজে লাগাবো।

আম্মুর কাছ থেকে টাকা নিয়ে প্রায় বইমেলার কাছে চলে এসেছি কিন্তু কেন জানি আর এগুতে পারতেছিনা।
কেও একজন আমাকে যেতে দিচ্ছেনা, আমি যেতে চাই, সে ক্রমাগত বাধা দিয়ে যাচ্ছে।
কিন্তু সে কে আমি তাকে দেখতে পারছিনা।
তাহলে কি আর বইমেলায় যাওয়া হবেনা?
প্রিয় বইগুলো কি আর নেয়া হবেনা?

আমি বুঝতে পারতেছি, কেন যেতে পারছিনা।
কারণ আমি যে এখন ঘুমন্ত শহরে।
এটা স্বপ্ন হলেও আমি দেখতে চাই, স্বপ্নের শেষটুকু কি হয়?
আমি জাগ্রত হতে চাইনা।
জীবনের এই প্রথম বাস্তব না হলেও আমি স্বপ্নের হাত ধরে যেতে চাই।
প্রাণপণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে প্রচণ্ড অস্বস্তিকর যন্ত্রণায় চটপট করতে করতে আমি চমকে উঠি।

হায় হায় আমি এখন কোথায়?
মাথার উপর বিশাল এক নীল আকাশ
মরভূমি সাথে বিশাল এক নীলসাগর
যত’ই ঝড়, তুফান, বৃষ্টিবাদল, আসুক এই সাগর থাকে সবসময় নিরব নিস্তব্ধ নির্বোধ একাকী-এর নাম আরবসাগর।

মাঝে মাঝে সাগর পাড়ে ঘুরতে যাই।
উপরে নীল, নিছেও নীল, যতদূর দৃষ্টি যায় অতোদূর শুধু নীল আর নীল।
জানিনা কোথায় এই নীলের শেষ
কিংবা কোথায় আমার সোনার বাংলাদেশ…

এই নীল হয়তো আমার খুব আপনজন
মাঝে মধ্যে নীলের ধারে বসে বসে অনেক কিছু ভাবি, ভাবনা শেষে আমার নীল সুখ দুঃখ স্বপ্ন গুলো এই নীলের সাথে একত্রিত করে দিয়ে আসি।
হ্যা আমি এই নীল শহরের কোনো একটি কোণে বসবাস করি।
কোনো মিলাদ মাহফিল ছাড়া আমি এর একটা নামও দিয়েছি।
বাংলার কুখ্যাত আসামীর কাশেমপুর কারাগার

আমার পুরো শরীর ঘিরে আছে লাল সাদা একটি কম্বল…
আমি আছি ৪-১০_____অমুক জায়গা তে।
মাথার পিছনে ফ্রিজ, তার উপর আমার কলিজার টুকরো ছোট্ট মোবাইলটি।
হাত টানা দিয়ে মোবাইল নিয়ে ফেসবুক লগিন দিলাম।
কিছু কি লিখবো?
কেন জানি আমার এখন আর একটুও লিখতে ইচ্ছে করেনা, খুব বিরক্তিকর মনে হয়।
লিখার প্রতিভাকে নিজেই গলা টিপে হত্যা করেছি।

যদিও আমি রাশি বিশ্বাস করিনা তবে আমি মীন রাশির জাতক।
এই রাশির প্রতিটি লাইন মনে হয় আমার জীবন থেকে নেয়া„ অল্পতেই রাগ, অভিমান, ঘৃণা, ক্রোধ, তেজ, ঘাড় ত্যাড়া, সব কিছুই আমার সাথে হুবহুব মিল।
শুধু একটি লাইন ছাড়া„ সেটা হলো পৃথিবীর সব নামীদামী বিখ্যাত ব্যক্তিদের মীন রাশি„ সেই ক্ষেত্রে আমি বোধহয় ভিন্ন।

আমি লিখেই বা কি হবে?
আমার লিখা কি শুধুই চার দেয়ালের প্রোফাইল ঘিরেই থাকবে?
অহেতুক স্বপ্নের জাল ভুনছি।

কি আজব আমি কি জেগে জেগে স্বপ্ন দেখতেছি?
ও হ্যা এটাইতো সত্যিকারের স্বপ্ন„ এই স্বপ্নইতো আমাকে ঘুমোতে দেয়না।

জানি হয়তো-বা আমার থেকে একটু ভিন্ন হলেও একই স্বপ্নে আবদ্ধ কয়েকজন সমবয়সী কিংবা বড় ভাই।
আমরা এই স্বপ্ন নিয়ে থাকলেতো হবেনা ভাই আমাদের আরও কয়েকজনের স্বপ্ন পূরণ করতে হবে, তাদের প্রতিশ্রুতি দিতে হবে, আমাদের উপর ভড় করে আছে একটি দেশে।
সেটা মেনে নিতে হবে কিচ্ছু করার নেই।

সুতরাং আমাদের স্বপ্নগুলো স্বপ্ন’ই সুন্দর বাস্তবগুলো দুটো মানচিত্রে একটি দেশ„ অনেক ______।
আচ্ছা এই ইমোটার (^_^) মানে কি?
আমি জানিনা
কেও যদি জেনে থাকেন জানাবেন
-আরোহী হাসান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *