মুসলিমকে মদ পানে বাধ্য করাও ফরাসীদের সংস্কৃতি !

গত ২৯ জানুয়ারী ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির ফ্রান্স সফর নিয়ে একটি পত্রিকায় নিউজ দেখলাম। ফরাসী কতৃপক্ষের আয়োজনে একটি ভোজে যোগ দেয়ার কথা ছিল তার।
কিন্তু পরে সেই ভোজনে যোগদান করতে পারেন নি তিনি।
কারণ ফরাসী কতৃপক্ষ সাফ জানিয়ে দিয়েছে এখানে খেতে হলে মদ সমেত খানা খেতে হবে। সে তুমি মুসলিম হও আর যাই হও।
ফরাসী রীতি অনুযায়ী ঐতিহ্যবাহী স্থানীয় খাবার ও মদ পরিবেশন করা জরুরি। ইরানিদের উপযোগী খাবার পরিবেশন করা ফ্রান্সের মূল্যবোধ(!) পরিপন্থী ।

একজন মুসলিমকে মদ পানে বাধ্য করাও কি ফরাসীদের শিষ্টাচারের মধ্য পড়ে?
এহেন কমিউনাল আচরন তো ইন্ডিয়ানরাও করে না।

গত ২৯ জানুয়ারী ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির ফ্রান্স সফর নিয়ে একটি পত্রিকায় নিউজ দেখলাম। ফরাসী কতৃপক্ষের আয়োজনে একটি ভোজে যোগ দেয়ার কথা ছিল তার।
কিন্তু পরে সেই ভোজনে যোগদান করতে পারেন নি তিনি।
কারণ ফরাসী কতৃপক্ষ সাফ জানিয়ে দিয়েছে এখানে খেতে হলে মদ সমেত খানা খেতে হবে। সে তুমি মুসলিম হও আর যাই হও।
ফরাসী রীতি অনুযায়ী ঐতিহ্যবাহী স্থানীয় খাবার ও মদ পরিবেশন করা জরুরি। ইরানিদের উপযোগী খাবার পরিবেশন করা ফ্রান্সের মূল্যবোধ(!) পরিপন্থী ।

একজন মুসলিমকে মদ পানে বাধ্য করাও কি ফরাসীদের শিষ্টাচারের মধ্য পড়ে?
এহেন কমিউনাল আচরন তো ইন্ডিয়ানরাও করে না।
ফরাসী কতৃপক্ষ এই আচরণের মাধ্যমে কি এমন ভাবে পরিচিত হল না যে তারা জাত পাতে বহুদা বিভক্ত ইন্ডিয়ানদের চেয়েও নিচু জাত ও ভয়ঙ্কর সাম্প্রদায়িক মানুষিকতা সংরক্ষণ করে।
মুসলিমদের দেশ সমূহ কে তারা অনেক তুচ্ছ জ্ঞান করে বিভিন্ন সময় তাদের উপর প্রচার সন্ত্রাস, অস্ত্র সন্ত্রাস, ভূমী আগ্রাসন, সংস্কৃতিক আগ্রাসন করে এসেছে। তবে তা করেছে খুব কৌশলে। এবার তারা প্রকাশ্য এলো।

সম্মিলিত এন্টি ইসলামিক জোটের জনগন ও তাদের নেতাদের মনে রাখা উচিৎ সময় সর্বদা এক থাকে না, আর এক মাঘে শীত যায় না। চেঙ্গিস খাঁ কিন্তু বর্তমান জোটের চেয়েও বেসি ভয়ঙ্কর ছিল কিন্তু তার সম্রাজ্যও টিকে থাকেনি, তার দখল করা ভূমীতেই আবার মুসলিম শক্তি পরাশক্তি হিসেবেই আত্মপ্রকাশ করেছিল।
মুসলিম পুনঃজাগরণ হবে কি না তা জানি না, তবে আপনাদের পতন হবে নিশ্চিত, এটাই সত্য যে কোন কিছুই চিরস্থায়ী নয়। কিন্তু পতনের পরে আপনাদের অপকর্মের প্রমান বিশ্ববাসী ইতিহাসেই দেখবে আর তখন চেংগিসের চেয়েও ঘৃণিত হবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *