নিউইয়র্কভিত্তিক ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য এখন বাংলাদেশ

বাংলাদেশের বন্দর নগরী চট্টগ্রামে এই প্রথম ও একমাত্র ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার নির্মিত হয়েছে। নান্দনিক স্থাপত্যশৈলী ও বিশ্বমানের সব সুবিধা সম্পন্ন ২৪ তলাবিশিষ্ট ভবনটি দেশের উন্নয়নের পালকে বিশেষ অবদান রাখবে বলেই আমার মনে হয়। এ ভবনের বিভিন্ন তলায় রয়েছে এক্সিবিশন হল, সুইমিং পুল, ট্রেড ইন্সটিটিউট, আইটি জোন, কনভেনশন হল, পাঁচ তারকা হোটেল, কনফারেন্স সেন্টার, টেম্পোরারি অ্যান্ড পার্মেনেন্ট এক্সিবিশন হল, একই সঙ্গে ৪০০ গাড়ির ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন তিনটি বেইজমেন্ট কার পার্কিং, ব্যাংক, শপ, ফুড কোর্ট, হোলিপ্যাডসহ বিশ্বমানের সব সুযোগ-সুবিধা। ২৯৮ ফুট উচ্চতার এ ভবন চট্টগ্রামের সর্বোচ্চ ভবন। বিশ্বের অন্য সব ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের মতো সব নিয়ম-কানুন মেনে নির্মাণ করা হয়েছে এটি। এ ভবন নির্মাণ করতে নিউইয়র্কভিত্তিক ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য হতে হয়েছে বাংলাদেশকে। বর্তমানে বিশ্বের ৯১টি দেশে ৩৩০টি ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার একটি নেটওয়ার্কে যুক্ত। বাংলাদেশে এই প্রথম ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার নির্মাণের মধ্য দিয়ে সেই নেটওয়ার্কে যুক্ত হচ্ছে। এর ফলে বিশ্ববাসীর কাছে নতুনভাবে পরিচিতি পাবে চট্টগ্রাম। চট্টগ্রাম চেম্বারের শতবর্ষ উৎযাপন উপলক্ষে স্বপ্নের এ ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার উদ্বোধন হবে। ২৯ জানুয়ারি বিভিন্ন জাতি গোষ্ঠীর ঐতিহ্য তুলে ধরে প্রথম দিনে হবে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা। ৩০ জানুয়ারি বিদেশী কয়েকজন রাষ্ট্রপ্রধানকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করবেন এ ভবন। বিশ্বমানের সব সুবিধা সম্পন্ন এই ভবনের মাধ্যমে বন্দর নগরী চট্টগ্রামকে বিশ্ব চিনবে নতুন করে।

২ thoughts on “নিউইয়র্কভিত্তিক ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য এখন বাংলাদেশ

  1. এটি জাতির জন্য শুভসংবাদ। আরও
    এটি জাতির জন্য শুভসংবাদ। আরও এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ।
    লেখককে আন্তরিক অভিনন্দন ও ধন্যবাদ।

  2. প্রথমে যখন এই বিষয়ে শুনি তখন
    প্রথমে যখন এই বিষয়ে শুনি তখন শুনেছি বিশ তলা করে পাশাপাশি দুটো বিল্ডিং হবে ৷
    আপনার লেখাটা পড়ে ভাল লাগল ৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *