সৃষ্টিকর্তা এবং প্রশ্ন

সৃষ্টিকর্তা সম্পর্কে যে সকল প্রশ্নের উদ্রেক হয়: ১/ঈশ্বর বা স্রষ্টা কে? ,, ২/তিনি কিভাবে সৃষ্টি হলেন?,,,৩/তিনি কি স্বয়ং সৃষ্ট?৪/তিনি স্ব্যং কোন কোন উপদানে সৃষ্ট?৫/এত উপদান তিনি পেলেন কোথায়? ৬/বিশ্ব ব্রম্মান্ড আগে না স্রষ্টা আগে?৭/জগৎ আগে থাকলে তিনি পৃথিবী সৃষ্টি করলেন কিভাবে?৮/তিনি কোথায় অবস্থান করে জগৎ সৃষ্টি করেছেন?৯/জগৎ আগে থাকলে স্রষ্টার সৃষ্টি কথা কি ঠিক?১০/স্রষ্টিকর্তার ও কি কোন স্রষ্টা আছে?১১/যদি তিনি শুণ্য বা আকারহীন হন তবে সাকার কিভাবে স্রষ্টি করলেন?১২/শুণ্য কে ০(শুণ্য) দিয়ে গুন করলে কি হয়?১৩/স্রষ্টা কি সব ধর্মের স্রষ্টা?১৪/তিনি যদি সকলের সৃষ্টিকর্তা হন তাহলে এত ধর্মের স্রষ্টি কেন?১৫/ধর্ম নিয়ে তথা বিভিন্ন মতবাদে মানুষে মানুষে মারামারি হানাহানি তিনি কি দেখেন না?১৬/ পিতা সকল সন্তানকে সমান চোখে না দেখে মানুষকে এত ভেদাভেদ করে স্রষ্টি করলেন কেন?১৭/কেন ধনী দরিদ্রের এত বৈষম্য?১৮/কেন ভূমিকম্প বা অন্যান্য প্রাকৃতিক দূর্যোগে লক্ষ লক্ষ প্রাণী ও সম্পদের ক্ষতি হয়?১৯/লেং,খোড়া,আতুর,বধির,ল তথা বিকলাংগ প্রানীর ও কি তিনি স্রষ্টা?20/কেন এক প্রানী আরেক প্রাণীকে ধরে খায়?২১/ সব প্রাণী বাঁচতে চায় তা কি তিনি দেখেন না?২২/তিনি কেন থাকে পূজার জন্য বা মনতুষ্টির জন্য প্রাণী হত্যার বিধান দিয়েছেন?২৩/যার সন্তান সে কি খায়?২৪/তিনি কি বর্তমানে তার নির্দিষ্ট জায়গায় নেই?২৫/ থাকলে আওব কিছুর উপর নিয়ন্ত্রণ নেই কেন?২৬/স্রষ্টার অবয়ব বা আকার কেমন?২৭/তিনি মহা শক্তিধর হলে সকলের মানসিক্রিয়া একরকম করতে পারেন না কেন?২৮/যোযক বা নরকে তার স্রষ্টি জীব কষ্ট পেলে তিনি দুখ পান না কেন?২৯/মানুষের রোগ ব্যাধির ও কি তিনি স্রষ্টিকর্তা?৩০/তিনি প্রাণীকে অমরত্ব করে স্রষ্টি করলেন না কেন?৩১/মহা শক্তিধরের কি অমরত্ব করার ক্ষমতা নেই?৩২/মহাশক্তিধর ও কি মরণশীল? ৩৩/দেবতা বা জিনের ও কি তিনি স্রষ্টা?৩৪/খারাপ জিন তিনি কেন স্রষ্টি করবেন?৩৫/মহাশক্তি বলে তিনি মানুষের পশুত্ব কেন দূরিভূত করেন না?৩৬/দূর্বলের উপর সবলের অত্যাচার কেন?৩৭/ইহা কি তিনি দেখেন না?৩৮/জগৎ অনিত্য দুঃখময়। এই অনিত্য ও দুখেরও স্রষ্টিকর্তা কি তিনি?৩৯/স্রষ্টার কি আদি অন্ত নেই?৪০/তিনি কি অবিরাম স্রষ্টির মধ্যে আছেন না বিশ্রামে?৪১/ আসলে কথিত স্রষ্টার আধিপত্য কি জগতে নেই? উপরে ঘুটিয়ে ঘুটিয়ে ৪১ টি প্রশ্নের অবতারনা করা হয়েছে। যেগুলোর কোন সমাধা নেই। বিশেষ করে যে মহান স্রষ্টা বা শক্তিধরের কল্পনা করা হয়-তার স্রষ্টি সম্পর্কে। কেননা স্রষ্টার ও তো একজন সৃষ্টিকর্তার দরকার। আর স্রষ্টা যদি এমনি এমনি স্রষ্টি হতে পারে তা হলে আমরা কেন এমনি এমনি সৃষ্টি হতে পারব না? কেননা,স্রষ্টার সৃষ্টির পিছনে তো কিছু উপদান থাকার কথা। ঐ সমস্ত উপদান গুলু থাকলে প্রানী জগৎ ও এমনি এমনি স্রষ্টি হতে পারে। সুতরাং স্রষ্টার চিন্তা নিরর্থক।

৪ thoughts on “সৃষ্টিকর্তা এবং প্রশ্ন

  1. আপনার ধারণা ভুল। ঈশ্বর বা
    আপনার ধারণা ভুল। ঈশ্বর বা আল্লাহ অবশ্যই আছে।
    আপনি তাঁর শক্তি উপলব্ধি করতে পারছেন না।
    এই পৃথিবীতে কোন্ জিনিসটি কারিগর ছাড়া তৈরী হয়েছে?
    এর জবাব দিলে খুশি হবো।

    1. এই পৃথিবীতে সবচেয়ে অবাক হওয়ার
      এই পৃথিবীতে সবচেয়ে অবাক হওয়ার মত জিনিস হচ্ছে মানুষ। মানুষ কোন কারিগর ছাড়াই তৈরি হয়েছে। মানুষের জন্ম হয় একটা জৈবিক পক্রিয়ার মাধ্যমে। আর মানুষের প্রয়োজনে মানুষ সব তৈরি এবং আবিষ্কার করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *