গতি ফিরেছে নিষ্প্রাণ ব্যবসা-বাণিজ্যে

নানা সীমাবদ্ধতা এবং প্রতিকূলতা সত্ত্বেও সরকারের দু’বছরে দেশে নিষ্প্রাণ ব্যবসা-বাণিজ্যে গতি ফিরেছে এবং এগিয়ে চলেছে। পণ্য ও সেবার অভ্যন্তরীণ চাহিদা বাড়ার পাশাপাশি বেড়েছে মানুষের ক্রয়ক্ষমতাও। এই বাড়তি চাহিদা এবং ক্রয়ক্ষমতা বৃদ্ধির কারণে দ্বিপক্ষীয় লেনদেনে গতি ফিরে পেয়েছে। অন্যদিকে অভ্যন্তরীণ উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি বাণিজ্য উদারীকরণের পথও খোলা ছিল। এতে করে প্রয়োজনীয় পণ্য ও সেবা এবং মূলধনী যন্ত্রপাতি ও কাঁচামাল আমদানির প্রবাহও ক্রমাগত বেড়েছে। সার্বিক ব্যবসায়িক পরিবেশ ছিল স্বাভাবিক ও স্থিতিশীল। রাজনৈতিক অস্থিরতা কম হওয়ার কারণে ব্যবসায়িক নিরাপত্তা বজায় ছিল বিধায় ব্যবসায়ে প্রাণও ধরে রেখেছে। তবে কিছু সমস্যা তো ছিলই। এসব সমস্যা সমাধানে সরকার অব্যাহতভাবে কাজ করছে। তবে আশার কথা হচ্ছে, অনেক দেশের অর্থনীতি ও ব্যবসা-বাণিজ্যের উত্থান-পতন ঘটলেও এদেশের বাণিজ্য পরিস্থিতি রয়েছে স্থিতিশীল। সৃষ্টি হয়েছে ব্যবসা সহায়ক পরিবেশ যার ফলে অভ্যন্তরীণ ক্রমবর্ধমান অর্থনীতির বিপুল চাহিদা তৈরি হচ্ছে এবং অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য সহায়ক হিসেবেও রয়েছে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে-সহনীয় দ্রব্যমূল্য, গার্মেন্ট খাতে স্থিতিশীলতা, নগদ প্রণোদনা, ভ্যাট-ট্যাক্স ও শুল্ক ছাড়, আনুষঙ্গিক সুবিধাদি প্রদান, রফতানি নীতি ও আমদানি আদেশ প্রণয়ন, পেপারলেস আরজেএসসি, চা শিল্পে বাধ্যবাধকতা আরোপ, এমএলএম কোম্পানির অস্তিত্ব বিলীন এবং আন্তর্জাতিক বাণিজ্য। শুধু অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য পরিস্থিতির উন্নতির লক্ষ্যই সরকারের নজরে ছিল না বরং আন্তর্জাতিক বাণিজ্য ও আঞ্চলিক যোগাযোগ রক্ষা এবং এর থেকে সর্বোচ্চ সুযোগ লুফে নেয়াও ছিল অন্যতম লক্ষ্য। সে লক্ষ্য অর্জনে আমাদের সবচেয়ে বড় সাফল্য হচ্ছে ভারত-নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে বাংলাদেশের ত্রিদেশীয় ট্রানজিট চুক্তি। এ ছাড়া বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার (ডব্লিউটিওর) মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্সের বাংলাদেশের অগ্রণী ভূমিকার কারণে এলডিসিভুক্ত দেশগুলোর সহায়তায় উন্নত বিশ্ব থেকে শেষ হয়ে যাওয়া ট্রিপস চুক্তির মেয়াদ ২০৩৩ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ নবায়ন করতে পেরেছে যা এদেশের উন্নয়নে সহায়ক ভূমিকা রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে।

১ thought on “গতি ফিরেছে নিষ্প্রাণ ব্যবসা-বাণিজ্যে

  1. দেশের উন্নয়ন হয়েছে, হচ্ছে,
    দেশের উন্নয়ন হয়েছে, হচ্ছে, আরও হবে ইনশা আল্লাহ। শুধু এক্ষেত্রে আমাদের একটুখানি ধৈর্যধারণ করতে হবে। যুগোপযোগী লেখার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আর শুভেচ্ছাসহ আমার ব্লগে স্বাগতম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *