সমাজকে পাল্টাতে হবে তরুণ-তরুণীদের

আমাদের সমাজের প্রতিটি মানুষ নরকের দিকে দৌড়াচ্ছে। আবাল, বৃদ্ধা, বনিতা সবাই ধ্বংসের খেলা খেলছে,শুধু এখানেই শেষ নয় যাঁরা এই ভাঙনের পথে অন্তরায় তাঁদের কে সর্বপ্রকার নির্যাতন, জেল, নির্বাসন দিয়ে এই সমাজ শান্তি পায়। আর এই সমাজের এই ভাল মানুষদের রক্ষক হতে পারে তরুণ-তরুণীরা। কিন্তু এদেরকে সমাজ বেঁধে রেখেছে বিনে সুতায়। বিনে সুতার নাম প্রেম,বিধান বিরোধী প্রেম। এই সমাজে কি না হয়? যে স্যার প্রিয়াঙ্কা কে সারাজীবন মেয়ে বলেছে, সেই স্যার প্রিয়াঙ্কার উরুসিজে হাত দেয়। যে প্রিয়াঙ্কা লেখাপড়া নিয়ে আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন দেখে, তাকে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে হয় অল্পবয়সেই।কারণ সে অসম্ভব সুন্দরী, সুগোল, অষ্টাদশী। তাঁর দিকে বাবার বয়সী স্যার থেকে আবাল পর্যস্ত সবাই লালসার দিকে তাকায়। তাই বলি
I can’t spare a moment for you. Although I LOVE
YOU too much. Because I’ll concern with my
nation,freedom and country.
যুব সমাজ যদি এই মনমানসিতা ধারণ করে তবে এই সমাজ কে পাল্টানো সম্ভব। আর যদি এখোন প্রেমে ডুব দেয় সবাই তবে হয়ত, ভবিষ্যৎ প্রজন্ম তার মায়ের, বোনের দিকেও লালসার চোখে তাকাবে।

আমাদের এই সমাজে নিচু শ্রেণির মানুষদের মুখে হাসি ফোটাটে আমাদের উচিৎ প্রতিদিন প্রেমিকার বা প্রেমিকের পিঁছনে ১০০/১০০০ টাকা অপব্যয় না করে বস্তির, ভিক্ষুকের হাতে ওই টাকা তুলে দেওয়া। তবে হয়ত সমাজে শান্তি ফিরে আসবে। এমন লোক আমাদের সমাজেও আছে, যেমন অনিকা ইবনাথ, যাঁর একটি কথা আমাকে সবসময় তাড়িয়ে বেড়ায় যে, ছিঁচকাঁদুনে ভালবাসার সময় নাই হাতে, সহজ সরল আজ জনতা মরছে ভুখে ভাতে।
তাই আসুন একটু সেক্রিফাইজ করে সমাজকে নতুন করে গড়ি, প্রিয়াঙ্কা কে বাঁচাই,বস্তির ঘরে হাসি ফুটাই।

লেখক : সাইফুল ইসলাম সাইফ

১ thought on “সমাজকে পাল্টাতে হবে তরুণ-তরুণীদের

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *