বিবেক প্রতিবন্ধীর স্বরূপ

আজ খুব সচেতন ভাবে অবাক হয়ে লক্ষ করলাম দেশে নতুন আরেক ধরনের প্রতিবন্ধীর উম্মেষ ঘঠেছে! আগে আমরা দেখেছি বুদ্ধি-প্রতিবন্ধী ও শাররীক-প্রতিবন্ধী, নব- উম্মেষিত প্রতিবন্ধীর নামকরন করা যেতে পারে “বিবেক প্রতিবন্ধী” নামে! এই নতুন আবিষ্কৃত প্রতিবন্ধীর স্বরূপ কেমন তা এইবার লক্ষ করি।

ধরুন এক গ্রামের এক ভন্ড ধার্মিক (এমন একজন যে কিনা ঐ গ্রামের প্রতিষ্ঠালগ্নে গ্রামটির বিরোধিতা সহ নানা মানবতা বিরোধী অপরাধ করেছিল ঐ এবং গ্রামের মানুষের বিকাশ/ উন্নতি চাই না) একটা বিদ্যা্লয়ে এ গিয়ে দেখেল ঐখানে খুব ভাল লিখা-পড়া হচ্ছে আর ভন্ড ধার্মিকদের স্বরূপ ঊম্মচন করছে (যা ঐ ভন্ড ধার্মিকদের জন্যে হূমকি)! অথচ তিনি বাইরে এসে বললেন ঐ বিদ্যা্লয়ের খুব বাঝে অবস্থা; যেমন- কোন পরা-শূনা তো হই না, বরং ছাত্রদের কে পরা-শূনাই নিরূৎসায়িত করা হচ্ছে, বা ব্লা-ব্লা-ব্লা। আবার এই বিবেক প্রতিবন্ধীর কথা বিশ্বাস করে আরেক জন সম-মনা যাচাই না করেই এইটা মানূষের মাঝে বা, ঐ বিদ্যা্লয়ের ছাত্রকে বলছে। ঐ ব্যক্তি আরও বলছে যে ঐ বিদ্যা্লয়ে মদ-গাজার উৎসব আর আশ্লীল নৃ্ত্য-গান-বাজনা হয়! এমনও দাবি করছে যে তার কাছে এমন ছবি ও আছে বা, সে দেখেছে। বা, কিছূ দিন পর বলল ঐ স্কু্লের এক শিক্ষক-কে জবাই করে মেরে দাবি করল ঐ শিক্ষক নাস্তিক! সুতারাং, ঐ বিদ্যা্লয়ের সকল শিক্ষক-কে ফাসিঁ দিতে হবে। আর ঐ গ্রামের সরল ধর্মপ্রান মানূষকে এই বিদ্ধেষ দিয়ে নারকীয় তান্ডব ঘটাল।

এখন আপনি বলেন আমরা এদেরকে কি বলতে পারি? জ্ঞান-পাপী? না, আমি এই শব্দটাকে অসাড় বলে মনে করি! কারণ প্রকৃত অর্থে যে জ্ঞানী সে কখনো পাপী হতে পারে না। অর্থাৎ পাপীর কোন জ্ঞান নাই ! সার্টিফিকেট কোন জ্ঞান না ! তাহলে, শত-শত ডঃ, প্রৌঃ, ব্যরিঃ ব্লা ব্লা ব্লা সার্টিফিকেট ধারীদেরও আমরা জ্ঞানী বলতাম ! “শিক্ষিত লোক মাত্র-ই স্ব-শিক্ষিত” ! এই শিক্ষা আসলে বিবেক-এর শিক্ষা, এই শিক্ষা আত্বঃ উপলব্দির শিক্ষা । কেবল এবং কেবলমাত্র অর্থ ঊপার্জনের জন্য যে শিক্ষা তা সূ-শিক্ষা নয়, আর এই জন্যে যারা পরা-শূনা করে তারা আসলে শিক্ষার মূল উদ্যেশ্য “মূল্যবোধ সৃষ্টি” থেকে বঞ্চিত! আর তারা-ই বিবেক প্রতিবন্ধী! আর আজকের ব্লগীয় পরিভাষার ছাগুরা-ই “বিবেক প্রতিবন্ধী”! তারা জেনে শুনে-ই আম কে, আমরা বলছে!!

আর, আমি সরকারের প্রতি জোর দাবী জানাব ছাগু তথা “বিবেক প্রতিবন্ধী”-দের জন্যে পূনর্বাসন, চিকিৎসা, বা, নিরাময় কেন্দ্র অথবা, বিবেক প্রতিবন্ধী স্কুল গড়ে তোলার জন্যে ! এদের মানষিক চিকিৎসা-ই একমাত্র ঊত্তরণের উপায়!! Autistic দের যেমন, তেমন গুরূত্ত্ব দিয়ে তাদের পূনর্বাসন করতে হবে! তবেই অচিরে দেশ বিবেক প্রতিবন্ধী মুক্ত হবে!

৩ thoughts on “বিবেক প্রতিবন্ধীর স্বরূপ

  1. আর, আমি সরকারের প্রতি জোর

    আর, আমি সরকারের প্রতি জোর দাবী জানাব ছাগু তথা “বিবেক প্রতিবন্ধী”-দের জন্যে পূনর্বাসন, চিকিৎসা, বা, নিরাময় কেন্দ্র অথবা, বিবেক প্রতিবন্ধী স্কুল গড়ে তোলার জন্যে ! এদের মানষিক চিকিৎসা-ই একমাত্র ঊত্তরণের উপায়!! Autistic দের যেমন, তেমন গুরূত্ত্ব দিয়ে তাদের পূনর্বাসন করতে হবে! তবেই অচিরে দেশ বিবেক প্রতিবন্ধী মুক্ত হবে!

    ভালো প্রস্তাব। অটিস্টিক নিয়ে আর্ন্তজাতিক পর্যায়ে আমাদের প্রধানমন্ত্রীর তনয়া পুতুল আপা ব্যাপক কাজ করছেন। সমাজকল্যান মন্ত্রনালয়ের অধীনে একটা প্রকল্প গ্রহন করে পুতুল আপাকে প্রকল্পের দায়িত্ব দিয়ে এদের পূর্ণবাসনের ব্যবস্থা দ্রুত করা হোক। পুতুল আপার আর্ন্তজাতিক পর্যায়ে অটিস্টিক জাতীয় প্রতিবন্ধী বিষয়ক দাতাদের সাথে কানেকশন ভাল আছে। ফান্ডের অভাব আশাকরি হবেনা। দুই দিকেই লাভ হবে। সাপও মরবে, লাঠিও ভাঙবেনা। 😀

    1. যারা যুগের সাথে টা মিলাতে
      যারা যুগের সাথে টা মিলাতে ব্যর্থ তাদের আসলে বাঁচার অধিকার নাই, বিজ্ঞানও তাই বলে!!
      misfit -দের জন্যে না, এই দুনিয়া!! তবে, এ নিয়ম যুগের চেয়ে যারা এগিয়ে তাদের নিরাশ করবে না। তারাই বর্তমানকে ভবিষ্যতে নিয়ে যাবে…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *