টেলিমেডিসিন একটি ডিজিটাল স্বাস্থ্যসেবা

টেলিমেডিসিন চিকিৎসা সেবা একটি আধুনিক চিকিৎসা সেবা পদ্ধতি। এ পদ্ধতি ব্যবহার করে গ্রামের প্রত্যন্ত মানুষকেও বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের মাধ্যমে চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব। বাংলাদেশের প্রতি চার হাজার ২৫১ জন লোকের জন্য একজন মাত্র ডাক্তার। ফলে অনেক মানুষেরই কষ্ট করে অনেক দূরের কোনো চিকিৎসাকেন্দ্রে গিয়ে চিকিৎসা নিতে হয়। এসব বিষয়কে সামনে নিয়ে আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে টেলিমেডিসিন স্বাস্থ্য সেবা চালুর উদ্যোগ নিয়েছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। আধুনিক এই প্রযুক্তিতে প্রথম পর্যায়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীন ইনফো সরকার প্রকল্প থেকে ২৫টি উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে টেলিমেডিসিন স্বাস্থ্য সেবা চালু করতে যাচ্ছে সরকার। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ ১১টি হাসপাতাল ও প্রতিষ্ঠান প্রতিদিন ২৫টি উপজেলা কমপ্লেক্সে গ্রাম থেকে আগত রোগীদের বিনামূল্যে টেলিমেডিসিনে চিকিৎসা সেবা দেবে। পর্যাক্রমে এ ধরনের আরও টেলিমেডিসিন স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র চালুর পরিকল্পনায় সরকার। বর্তমান সরকার দেশের প্রতিটি মানুষের জন্য চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে অঙ্গীকারাবদ্ধ। সে কারণে চিকিৎসা সেবার প্রচলিত পদ্ধতিতে পরিবর্তন এনে ধীরে ধীরে ডিজিটাল পদ্ধতিতে চিকিৎসা সেবা চালুর উদ্যোগ নিয়েছে তারা। যাতে কেউ-ই এ চিকিৎসা সেবার বাইরে না থাকে সেজন্য সরকার ইতোমধ্যে প্রয়োজনীয় স্থানে টেলি স্টেথেস্কোপ, টেলি অপথালমোস্কোপ, টেলি স্পইরোমিটার, টেলি ইসিজি, টেলি বিপি মেশিন, টেলি পালস অক্সিমিটার, টেলি মাইক্রোসকোপসহ আধুনিক যন্ত্রপাতি পৌঁছে দিয়েছে যেটি একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *