৫ জানুয়ারি গণতন্ত্র ড্যাশ দিবস!

:: রনি রেজা ::
ধরুন আপনি একটি চাকুরীর পরীক্ষা দিতে গিয়েছেন। প্রশ্ন করা হয়েছে ০৫ জানুয়ারি কি দিবস? এমন অবস্থায় কি উত্তর দিবেন আপনি? যদি আপনি আওয়ামীলীগ বা বিএনপি যে কোনো এক দলের সমর্থক হয়ে থাকেন তাহলে সহসা উত্তরটা দিতে পারবেন।


:: রনি রেজা ::
ধরুন আপনি একটি চাকুরীর পরীক্ষা দিতে গিয়েছেন। প্রশ্ন করা হয়েছে ০৫ জানুয়ারি কি দিবস? এমন অবস্থায় কি উত্তর দিবেন আপনি? যদি আপনি আওয়ামীলীগ বা বিএনপি যে কোনো এক দলের সমর্থক হয়ে থাকেন তাহলে সহসা উত্তরটা দিতে পারবেন।

এজন্য আপনাকে বাড়তি কষ্ট করে উত্তরটা মুখস্থ করতে হবে না। আপনার দলই আপনাকে শিখিয়ে দিবে ৫ জানুয়ারি কি দিবস? গণতন্ত্র মুক্তি দিবস নাকি গণতন্ত্র হত্যা দিবস। কিন্তু বিপাকে পড়বেন যদি আপনি কোনো রাজনৈতিক দলের সমর্থক না হোন। কোনটা লিখবেন? এক্ষেত্রে আপনাকে উত্তরটা মুখস্থ রাখতে হবে গণতন্ত্র ড্যাশ দিবস হিসেবেই। যখন যেটা প্রয়োজন তখন শূন্যস্থানে সেই উত্তরটা দিলেই আপনার জ্ঞানের পরিচয় মিলবে। নতুবা নরেন কাকার মত পরিস্থিতি হবে আপনার। কি ভাবছেন, নরেন কাকা! এ ব্যাটা আবার কে? হতে পারে আব্দুর রহিম, আব্দুল করিমও। নিরাপত্তার কথা ভেবেই নরেন কাকার নামটা ব্যবহার করলাম আর কি! সে যা’ই হোক। নামটা মুখ্য না। গল্পটা শুনুন।

নরেন কাকা যখন স্নাতক শেষ করে চাকুরীর জন্য দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন তখন চাকুরীর বাজারে বেশ খরা। অনেক আবেদন করেও চাকুরী মেলাতে পারছেন না। তাছাড়া বেচারা কোনো রাজনৈতিক দলের সাথেও সেভাবে জড়িত নেই। অনেক কষ্টে সেবার একটা ভাইবা বোর্ডে যাওয়ার পরে যখন তাকে প্রশ্ন করা হলো স্বাধীনতার ঘোষক কে? নরেন কাকা সাবলীলভাবে উত্তর দিলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান। সেবারের মত ভুল উত্তর প্রদানের জন্য চাকুরীটা হলো না নরেন কাকার।

তাকে বোর্ড থেকে জানিয়ে দেয়া হলো স্বাধীনতার ঘোষক আসলে মেজর জিয়াউর রহমান। নামটা মুখস্থ করে নিলেন নতুন করে। এর কয়েক বছর পরে যখন আরেকটা ভাইবায় গেলেন সেখানেও একই প্রশ্ন করা হলো। এইবার অনেকটা হাসিমুখে উত্তর দিলেন নরেন কাকা। তাকে কোনো এক ভাইবা বোর্ড থেকেই শেখানো হয়েছে উত্তরটা। তাই এইবার চাকুরীটা হবেই। ভুল হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। কিন্তু অবাক হলেন তিনি। এবারও ভুল। এবারও হলোনা। তখন নরেন কাকা আবিষ্কার করতে পেরেছিলেন, সব প্রশ্নের উত্তর স্থির হয় না। সময়ের পরিবর্তনের সাথে পরিবর্তন হয় উত্তরেরও। এসকল প্রশ্নের উত্তর মুখস্থ করতে হয় শূন্যস্থান রেখেই। যখন যেমন তখন তেমন উত্তর দিতে হবে। এরপর পার হয়ে গেছে অনেক বছর।

এসেছে নতুন প্রশ্ন। ৫ জানুয়ারি কি দিবস? আমরাও উত্তর শিখে নিয়েছি। অপেক্ষায় আছি আরো এমন অনেক প্রশ্নের। ড্যাশে ড্যাশে পূর্ণ হোক আমাদের প্রশ্নমালা।

লেখক: কথাসাহিত্যিক ও সাংবাদিক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *