ম্যানহোলের ঢাকনা নেই তো কি হয়েছে ফেসবুকের তো আছে

দেশে তো শান্তি বিরাজ করছে।শুধু শুধু কিছু নাস্তিক,মুক্তমনা অনলাইনে দেশের অশান্তি ডেকে আনছে।এরা বুঝে না যত্ত অশান্তির মুল হল লেখা লেখি।লেখা লেখি করবি কর সমস্যা নাই।কে লিখতে নিষেধ করেছে।তা বলি সরকারের আচল ধরে টান মেরে লিখতে হবে কেন?ফুল পাখি নিয়ে লেখ,গাছ পালা নিয়ে লেখ।

এমন দেশটি কোথাও খুজে পাবে নাকো তুমি
সকল দেশের রাণী সে যে আমার জন্মভূমি
সে যে আমার জন্মভূমি, সে যে আমার জন্মভূমি।


দেশে তো শান্তি বিরাজ করছে।শুধু শুধু কিছু নাস্তিক,মুক্তমনা অনলাইনে দেশের অশান্তি ডেকে আনছে।এরা বুঝে না যত্ত অশান্তির মুল হল লেখা লেখি।লেখা লেখি করবি কর সমস্যা নাই।কে লিখতে নিষেধ করেছে।তা বলি সরকারের আচল ধরে টান মেরে লিখতে হবে কেন?ফুল পাখি নিয়ে লেখ,গাছ পালা নিয়ে লেখ।

এমন দেশটি কোথাও খুজে পাবে নাকো তুমি
সকল দেশের রাণী সে যে আমার জন্মভূমি
সে যে আমার জন্মভূমি, সে যে আমার জন্মভূমি।

এমন কাল জয়ী দুয়েকটা লেখ না।দেখ কত পুরষ্কার পাবি।আর যদি পারিস সরকারের প্রসংসায় দু চার লাইন লেখ।দেখবি তোর ঘর ভরে পদকের ছড়া ছড়ি।তা না করে বাপু শুধু শুধু সরকারের নামে বদনাম।আরে গাধার দল কোথাও কি দেখেছিস সরকার নিরাপত্তার জন্য সোসাল সাইট বন্ধ করে দেয়।আমরা দেই।তোদের নিরাপত্তার জন্য দেই।আমরা সর্বসাধারনের নিরাপত্তার ব্যাবস্থা করি।
আরে বোকার দল ম্যানহলের ঢাকনা নেই তো কি হয়েছে ফেসবুকে তো ঢাকনা লাগিয়েছি।নিরাপত্তা দিয়েছি।কি লিখছিস তোরা!ম্যানহোলে শিশু পড়ে গেছে।আর তোরা আমার আচল ধরে টান মারিস!আরে টান দিবি দে তো আমার গায়ের কাপড় তো সরে যাচ্ছে।তা বলি বাবা এই খাদে পরা তো সব গোপালির কাজ।এ গুলো সব চক্রান্ত।আমার কি শান্তি পুর্ন ভাবে বাচ্চারে বাঁচাইলাম।তোরা এইটা নিয়া লেখনা তাইলেই তো হল। তোদের নিরাপত্তা সরকার দেবে।সরকারের বিরুদ্ধে লিখলে দুচার ঘা সরকারে বাহীনি দিলে কি আর করার আছে।আমাদের তো নিরাপত্তা দিতে হবে তাই না।
তা যাই বল বাপু এ ভাবে লিখে শুধু শুধু সেন্টিমেন্টে আঘাত দিয়া কি হবে।আরে আমরা তো মুসলমান তাই না।শুধু শুধু আঘাত দিয়ে আমাদের খেপিয়ে দাও।তোমাদের নিরাপত্তার জন্যই এবার তোমাদের ধরা হবে।তোমরা খেপিয়ে দিয়ে নিরাপত্তা চাইবা।তোমাদের বিচার হওয়া উচিৎ।আমাদের সোনার দেশে কোন জঙ্গি নাই।যত্ত নষ্টের মুল তোমরা।সোনার ছেলেদের মাথা একটু আকটু গরম হলে দুষ্টামি করে আর কি।ছোট থেকেই চাপাতি নিয়ে খেলার অভ্যাস তো তাই আরকি!তা বাপু বাচ্চা ছেলেদের এই দুষ্টামিতে কেন তোমরা উল্টা পাল্টা লেখ।আমার সোনার ছেলেদের দুষ্টামি মেনে নাও।নামাজ পর হেদায়েতের পথে আস।দেখে পরম শান্তি।না হয় দুষ্টামি করে দু চার জন মেয়ে কে ধর্ষন করলা,লাথি মেরে না হয় পেটের বাচ্চাকেই মেরে দিলা।সোনার ছেলেরা কিচ্ছু হবে না।আমাদের শান্তির দেশ সোনার দেশ।দেশে একটু আকটু দুষ্টমি ছেলেরা করে থাকে।
তাই বলে ভেবনা দেশে আই এস আই আছে।এ গুলো সব আমার ছেলেদের দুষ্টামি।দেশ শান্তির পথে চলছে।ম্যানহোলের ঢাকনা নেই তো কি ফেসবুকে তো আছে।মসজিদে বোমা মারছে তো কি হইছে?ইমাম মরছে তো কি হইছে? দেশে শান্তি বিরাজ করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *