পৃথিবীর সবচেয়ে বড় প্রতারকের নাম মুহাম্মদ আর পৃথিবীর সবচেয়ে বড় প্রতারণার নাম ইসলাম।

একসময় ইসলামকে নিয়ে গর্ব করতাম এবং মুসলিম পড়িচয় দিতে গর্ববোধ করতাম কিন্তুু এখন ইসলামকে নিয়ে গর্ব করিনা এবং মুসলিম পড়িচয় দিতে লজ্জাবোধ করি কারণ পৃথিবীর সবচেয়ে বড় প্রতারকের নাম মুহাম্মদ আর পৃথিবীর সবচেয়ে বড় প্রতারণার নাম ইসলাম।


একসময় ইসলামকে নিয়ে গর্ব করতাম এবং মুসলিম পড়িচয় দিতে গর্ববোধ করতাম কিন্তুু এখন ইসলামকে নিয়ে গর্ব করিনা এবং মুসলিম পড়িচয় দিতে লজ্জাবোধ করি কারণ পৃথিবীর সবচেয়ে বড় প্রতারকের নাম মুহাম্মদ আর পৃথিবীর সবচেয়ে বড় প্রতারণার নাম ইসলাম।

জাকির নায়েক এবং বিশ্বের সব ইসলামী চিন্তাবিদ তাদের লেকচারে বলেন। তারা গর্বের সাথে বলেন ইউরোপ আমেরিকা সহ সব যায়গায় ইসলাম ধর্মের সবচেয়ে প্রসার হচ্ছে। জাকির নায়েক এবং অন্যান্য ইসলামী চিন্তাবিদ তাদের লেকচারে আরও বলছেন পশ্চীমাদের এই ইসলাম গ্রহনকে তারা কনভার্ট নয় রিভার্ট বলবেন।কারন মহানবীর হাদিস অনুযায়ী সব মানুষ মুসলমান হয়ে জন্মগ্রহন করে তার বাবা-মা তাকে মূর্তি পূজারি, অগ্নি পূজারি, ইহুদী, খ্রিষ্টান বানিয়ে দেয়। তারা এটাও বলেন ইসলামের অনুসারির সংখ্যা বাড়ছে। একটি ১৯৮৬ সালের পরিসংখ্যান দেখিয়ে বলেন সারা পৃথিবীতে মুসলমানদের বৃদ্ধির হার ছিল ২৩৪%। যা হোক আপাত দৃষ্টিতে মনে হতে পারে পৃথিবী, ইউরোপ আমেরিকা সর্বত্র মুসলিম বাড়ছে কারন ব্যাপকহারে মানুষ ধর্মান্তরিত হয়ে মুসলিম হচ্ছে।এটা অজ্ঞ মুসলিমদের খুশীর কারন হতে পারে।

১. তারা একটা ম্যাগাজিনের রেফারেন্স দিয়ে গর্বের সাথে বলেছেন যে মুসলিমের সংখ্যা ২৩৪% বেড়েছে। মানে প্রচুর মানুষ। আমারতো মনে হয় না এটা মুসলমানদের জন্য গর্বের বরং হতে পারে লজ্জার। কারন এটা আংশিক সত্য। ইসলাম দ্রুত বর্ধনশীল ধর্ম বটে তবে এর মূল কারন হল মুসলমানদের অনুপাতহীন জন্মহার। যেখানে সারা পৃথিবীর জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ১.৫% সেখানে মুসলিমদের ২.২%। জাকির নায়েক এবং অন্যান্য ইসলামী চিন্তাবিদ খ্রিষ্টান ধর্মের সাথে তুলনা করলেন কিন্তু খ্রিষ্টান ধর্মের অনুসারীরা বেশীরভাগ ইউরোপ আমেরিকার মত উন্নত বিশ্বের লোক। আবার উন্নত, উদার, সচেতন অ-পশ্চীমা রাষ্ট্র যেমন জাপান কোরিয়ায় মানুষ খুব বেশী মুসলিম নয়। যেখানে উন্নত বিশ্বের মানুষের ধর্ম ইসলাম নয়। সেখানে ইসলাম বেশীরভাগ ই তৃতীয় বিশ্বের মানুষের ধর্ম।

২. শতকরা পদ্ধতির দূর্বলতাটা তারা ভালভাবেই কাজে লাগিয়েছেন।উদাহরন দেই কোন ঘরে ৫টা ১০ মিনিটে ১০০ খ্রিষ্টান ২ জন মুসলিম আছে। যদি ৫টা ৩০ এ দেখা যায় ঐ ঘরে ৮ জন মুসলিম এবং ১৫০ খ্রিষ্টান আছে তবে বলা যাবে ২০ মিনিটে খ্রিষ্টান বেড়েছে ৫০% কিন্তু মুসলিম বেড়েছে ৪০০% কিন্তু যদি ও খ্রিষ্টান বেড়েছে ৫০ জন মুসলীম ৬ জন।

৩. ইউরোপ আমেরিকার ক্ষেত্রে এ কথা প্রযোজ্য ওরাতো আগে থেকে খ্রিষ্টান। এ কারনে শতকরা বৃদ্ধির হারের দিক সহজে বাড়ে না।

৪. তাদের ভাষ্য অনুযায়ী আমেরিকায় প্রচুর মানুষ মুসলিম হচ্ছে। অথচ আমেরিকায় মুসলিম ০.৮% মাত্র! আমেরিকায় জনসংখ্যা যদি ৩০ কোটি হয়। তবে ২৪ লাখের মত মুসলিম।

৫. আমেরিকায় মুসলিম হয়তো বেড়েছে শতকরা হিসবে অনেক। তার একটা কারন ঐ ২ নং পয়েন্ট। তবে মূল কারনটা হল প্রচুর মুসলিম ইমিগ্রান্ট হয়ে আমেরিকা গেছে।বাংলাদেশ পাকিস্তান ভারত থেকে অনেক মুসলিম ডিভি লটারি পেয়ে আমেরিকা যায়। আমেরিকার মুসলিমদের ৩৪% সাউথ এশিয়ান,২৪% আরব, ২৫% আফ্রিকান, বাকি ১৫% অন্যান্য। তার মানে তো আমেরিকান পিউর আমেরিকান মুসলিম খুব কম। আর ধর্মান্তরিত মুসলিমের সংখ্যাতো আরো কম হবে। ৭২ নারী ভোগের লোভ আমেরিকানদের মধ্যে খুব কাজ করেনি। ব্যাপক মানুষের ইসলাম গ্রহনের কথা ঠিক না।

৬. ইউরোপের ক্ষেত্রে ও একই কথা প্রযোজ্য। তাছাড়া ইউরোপে তো অনেক মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ রাষ্ট্র আছেই। তাই আমেরিকার তুলনয়া শতকরায় বেশী হবেই।

৭. তারা এশিয়ার দিকে তাকান না সেখানে আবার দেখবেন বিভিন্ন দেশে শতকরায় খ্রিষ্টান খুব বেড়েছে তবে তার ও মূল কারন ঐ ২ নং পয়েন্ট এটা মনে রাখতে হবে।

৮. আমি জানি না সংখ্যার দিক থেকে কোন ধর্মে সবচেয়ে বেশী কনভার্ট হয়েছে। তবে কনভার্টের সাংখ্যিক তথ্য মূল চিত্র তুলে ধরে না। জাকির নায়েক এবং অন্যান্য ইসলামী চিন্তাবিদগন একটা কথা বলেন যে একজন ভারতীয় হিন্দুর মুসলিম হওয়া ৫০ জন পশ্চীমার মুসলীম হবার সমান। কারন পশ্চীমারা উদার।ভারতীয়রা রক্ষনশীল। তেমনি মুসলমানরা তো আরোও বেশী রক্ষনশীল। তাই যদি সংখ্যায় দেখা যায় ১০ জন খ্রিষ্টান মুসলিম হয়েছে আর ২ জন মুসলিম খ্রিষ্টান হয়েছে তবে ধরতে হবে যে ১০০ জন মুসলিম হয়েছে। সেটা হবে লেভেল। তবু আমি এটা অস্বীকার করব না। যে কিছু মানুষ মুসলিম হচ্ছে তবে ব্যপক বলা যায় না। স্বাভাবিক বিষয় চেঞ্জ হতেই পারে তবে সেটা তেমন কোন আলোচিত কিছু না। হতেই পারে। যেমন কিছু মানুষ মুসলিম হচ্ছে তেমনি অনেক মানুষ কিন্তু ইসলাম ছেড়েও যাচ্ছে। যেমন আমি নিজেই তাদের একজন। স্যার সালমান রুশদী, ওয়াফা সুলতান, তসলীমা নাসরিন এরা ইসলাম ছেড়ে হয়েছেন নাস্তিক।আবার নাবিল কুরেশী ইসলাম বাদ দিয়ে হয়েছেন খ্রিষ্টান। ইউসুফ ইউহানা যেমন ইসলাম গ্রহন করে হয়েছেন মোহাম্মদ ইউসুফ। তেমনি আরেক ক্রিকেটার তোয়াইন মোহাম্মদ ইসলাম ছেড়ে বৌদ্ধ ধর্ম গ্রহন করে হয়ে গেছেন তিলকরত্নে দিলশান।

( যারা ভাবছেন ইসলাম নিয়ে লিখছি বলে অন্যধর্মগুলোকে ছাড় দিবো তারা এখনো মায়ের পেটের ভেতর আছেন। ইসলাম নিয়ে যা লিখছি অন্যধর্ম নিয়ে তারচেয়ে বেশী লেখা হবে। )

হিন্দু, বৌদ্ধ, ইহুদী, খ্রিস্টান এবং ইসলামের বাইরে সকল ধর্মগুলো অনেক নোংরা তাই সেই ধর্মগুলো নিয়ে লেখার রুচি হয়না তবে অরুচি হলেও সেগুলো নিয়েও লিখবো।

ইসলামের ভূলগুলো তুলে ধরা মানে অন্যধর্মগুলোর ভূলগুলোকে অস্বীকার করা নয়, বাংলাভাষী নাস্তিকদের মধ্যে বেশীরভাগই নাস্তিক সেজে থাকা হিন্দু বা নাস্তিকতার মুখোশ পরে থাকা ছদ্মবেশী হিন্দু। ভুয়া নাস্তিক বা নাস্তিক সেজে থাকা ইসলাম বিদ্বেষী হিন্দুদের কারনে প্রকৃত নাস্তিকদের প্রতি সাধারণ মানুষের শ্রদ্ধার যায়গা এখনো সেভাবে তৈরী হতে পারেনি।

১৫ thoughts on “পৃথিবীর সবচেয়ে বড় প্রতারকের নাম মুহাম্মদ আর পৃথিবীর সবচেয়ে বড় প্রতারণার নাম ইসলাম।

  1. ভাইরে আপনারা যেভাবে দল বেধে
    ভাইরে আপনারা যেভাবে দল বেধে জাকির নায়েকের পেছনে লেগেছেন, তাতে জাকির নায়েকের ছেড়ে দে মা কেদে বাচি অবস্থা। প্রকারান্তরে জাকির নায়েকের প্রচারটাই বেশী হচ্ছে।
    সেদিন আবার দেখলাম জাকির নায়েকের বয়ানের পর বেশ কয়েকজন হিন্দুকে কালেমা পড়তে।
    যত্তসব।

  2. আমার মনে হয় জাকির নায়েককে দোষ
    আমার মনে হয় জাকির নায়েককে দোষ না দিয়ে বিবিসি , সি এন এন কে, পিঊ রিসার্চ সেন্টার, টাইমস পত্রিকা বেশী দোষ দেয়া উচিত। তারা সৌদি আরবের টাকা খেয়ে – ইসলাম সবচেয়ে দ্রুত গতিতে বাড়ছে বলে প্রচার চালাচ্ছে–

    নীচের লিংগুলোতে দেখেন না তারা কিরকম মিথ্যা প্রচার করছে–

    http://edition.cnn.com/2015/04/02/living/pew-study-religion/

    http://www.pewresearch.org/fact-tank/2015/04/23/why-muslims-are-the-worlds-fastest-growing-religious-group/

    http://www.theatlantic.com/international/archive/2015/04/islam-could-become-the-worlds-largest-religion-after-2070/389210/

    http://www.liveleak.com/view?i=33e_1420897560&comments=1

    ভিডিও

    https://www.youtube.com/watch?v=VOeAWy2vTCA

  3. পড়িচয়, ভূলগুলো, ছদ্মবেশি,
    পড়িচয়, ভূলগুলো, ছদ্মবেশি, যায়গা, পৃথীবিতে, মুসলীম, ব্যপক, ম্যগাজিনের।
    .
    এই বানান গুলো ঠিক করেন । অন্য ভুল গুলো বাদ দিলাম। এই মাথায় আসছেন ইসলামের সমালোচনা করতে!!!

  4. মূর্খের একখান প্রশ্ন, লোকে
    মূর্খের একখান প্রশ্ন, লোকে একটা ধর্ম থেকে অন্য একটা ধর্ম গ্রহন করলে এত আলোচনা হয়,
    কিন্তু, কেউ ধর্ম ত্যাগ করে নাস্তিক হয়ে গেলে একটা ছোট খবরও হয় না কেন?

    1. কি বলছেন আপনি এসব? ইসলাম
      কি বলছেন আপনি এসব? ইসলাম ত্যাগের ঘোষণা দিয়ে এদেশেরই কতজন সেলিব্রিটি; ইউরোপের নাগরিকত্ব আর এওয়ার্ড পেয়েছে তার কি হিসাব রাখেন!!কত জনের নাম জানতে চান আপনি!!!
      ইসলাম ত্যাগের ঘোষণা দিয়ে ঢাক-ঢোল পেটানোর মত অল্প পুজিতে লাভের ব্যবসা আজকাল আর দ্বিতীয়টি নেই।

      1. আপনি জাকির নায়েককে প্রতারক
        আপনি জাকির নায়েককে প্রতারক প্রমাণ করতে চেয়েছেন! কিন্তু ইসলামকে প্রতারণা ও মুহম্মদ কে প্রতারক বললেন কেন?

  5. আপনি একটা সময় ইসলাম নিয়ে
    :ভাবতেছি: আপনি একটা সময় ইসলাম নিয়ে গর্ববোধ করতেন! একজন মুসলিম হিসেবে গর্ববোধ করতেন!? :-B
    তো ভাইজান আমাকে ব্যাখা করবেন কি কষ্ট করে; কি এমন অঘটন ঘটেছিলো যে আপনি মুসলিম হয়ে গর্ববোধ করা ছেড়ে দিয়ে নাস্তিক হিসেবে গর্ববোধ করা শুরু করে দিয়েছেন!??? :কনফিউজড:

    সংক্ষেপে, আমার প্রশ্নের উত্তরটা দেওয়ার অনুরোধ করছি। কোন বিশেষ ঘটনা থাকলে অবশ্যই উল্লেখ করবেন।
    :বিষয়ডাকী:

    আর হ্যা আজ কতবছর হয় আপনি নাস্তিক ধর্মের অনুসারী হয়েছেন!? হ্যা হ্যা আমি মানি নাস্তিকতাও একটা রিলিজিয়ন!
    :অপেক্ষায়আছি:

  6. আমি ইষ্টিশন ব্লগের ইডিটর ও
    আমি ইষ্টিশন ব্লগের ইডিটর ও সম্পিদককে বলছি, ….. যদি এই নাস্তিকেরর আইপি ব্যান না করেন তাহলে আমরা আপনার ব্লগকে পরিত্যক্ত ঘোষনা করবো। আর এই ধরনের পোস্ট কোনভাবেই ব্লগে প্রকাশ করা কাম্য না। লেখক গাজজা খেয়ে পোস্ট করবে সেটা কখনই এই ব্লগে দেখতে চাই না। আর ন লেখক এলোই বা কি করে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *