পারিবারিক এবং সামাজিকভাবে তাকে মেথর হতে বাধ্য করানো হয় পেট চালাতে।

ছোটো একটা গল্প বলতে এলাম ।
আমার পূর্বের একটা স্ট্যাটাসে একটি উদাহরন দিয়েছিলাম ” একজন মেথরকে দেখে নাক কুঁচকে ফেলি , অথচ এই মেথর না থাকলে আপনার মলমুত্র থেকে আবর্জনা আপনার নিজেরই পরিষ্কার করতে হতো। অন্ততঃ তাদের বুকে টানার মতো রুচি না থাকলেও সম্মান দেবার চেষ্টাটা করি?”
সেখানে একজন মন্তব্য করলো ”মেথররা ময়লা পরিষ্কার করে কারন এটা তার কাজ। সে অন্য কোনো কাজ পারেনা বলেই এই পেশায় এসেছে। পারলে আসতো না।”

ছোটো একটা গল্প বলতে এলাম ।
আমার পূর্বের একটা স্ট্যাটাসে একটি উদাহরন দিয়েছিলাম ” একজন মেথরকে দেখে নাক কুঁচকে ফেলি , অথচ এই মেথর না থাকলে আপনার মলমুত্র থেকে আবর্জনা আপনার নিজেরই পরিষ্কার করতে হতো। অন্ততঃ তাদের বুকে টানার মতো রুচি না থাকলেও সম্মান দেবার চেষ্টাটা করি?”
সেখানে একজন মন্তব্য করলো ”মেথররা ময়লা পরিষ্কার করে কারন এটা তার কাজ। সে অন্য কোনো কাজ পারেনা বলেই এই পেশায় এসেছে। পারলে আসতো না।”
যিনি এই কথাটি বলেছেন তিনি হয়তো জানেনা তাই বলেছেন। মেথর সম্প্রদায়কে ব্রিটিশদেরও আগে থেকে আলাদা করে দলিত করে রাখা হয়েছিল। তাদের পড়াশোনার কোনো সুযোগ কখনো দেয়া হয়নি এবং হতো না। এখনও হয়না। তাদেরকে অচ্ছ্যুত বলে আলাদা অংশে ফেলে রাখা হতো। বংশানুক্রমিকভাবেই প্রত্যেককেই জোর করে এই কাজের সাথে যুক্ত হতে হতো এবং হয়। সে অন্যকাজ করবে কিভাবে যদি তাকে সুযোগ না দেয়া হয়। তাদের জন্যে তো কোনো মানবাধিকার সংস্থা কথা বলেনা কারন লাইম লাইট পাবেনা। মেথর হবার আগে তো সে মেথর থাকেনা। পারিবারিক এবং সামাজিকভাবে তাকে মেথর হতে বাধ্য করানো হয় পেট চালাতে।
একটা ছোটো তবে সত্য একটা গল্প বলি। একটা স্কুলে অনেকবছর আগে একটা ছেলে পড়াশোনা করতো। ঐ ছেলের বন্ধুও ছিলো অনেক। তার বন্ধুদের মাঝে আমাদের একজন বড় ভাইও ছিলেন। তবে ছেলেটা স্কুলে আসলেও তার পরিবারের ব্যপারে কখনো কিছু বলতোনা। কেউ জানতোনা ছেলেটির বাবা মা কে কিংবা ছেলেটি কোথায় থাকে। আমাদের ঐ বড়ভাই ছেলেটিকে একদিন অনুসরন করলো এবং দেখলো ছেলেটা তার জামা পাল্টে মেথরের পল্লীতে ঢুকছে। ছেলেটি পরিচয় গোপন করেছিল পড়াশোনা করার জন্যে। আমাদের ঐ বড়ভাইটি কিন্তু ছেলেটিকে মেথরের ছেলে বলে কখনো ছোটো করেনি বরং একদিন ঐ ছেলের বাসায় গিয়ে দুপুরের খাবার পর্যন্ত খেয়েছে। ছেলেটির পরিচয় প্রকাশ করেনি কারন সে হয়তো পড়ালেখা করতে পারতোনা পরিচয় প্রকাশ করলে। মেথররা আসলেই কাজ পায়না বলেই মেথর হয়েছে। কাজ পেতে দেয়না বলেই জোর করে এই পেশায় আসতে হয়েছে । তারা এই সমাজের অবহেলিত প্রানী। কিন্তু তারা মেথর হলেও তাদের পক্ষ নেয়াটা অপরাধ, তাইনা?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *