ধর্মের কোনও প্রয়োজন নেই

ধর্ম নামক অপ্রয়োজনীয় জিনিসটা নিয়ে মাথা ঘামাতে একদম ভাল লাগে না। তবু ইসলাম ধর্মটার প্রতি আমার আজকাল একটা খারাপ লাগা জন্মাচ্ছে। এই একমাত্র সম্প্রদায়ের কিছু মানুষের ধর্মভীরুতা, ধর্মান্ধতা এবং ধর্মের নামে উগ্রতার সুযোগ নিয়ে প্রত্যেকটা উন্নত এবং শক্তিশালী দেশ রাজনীতি আর ব্যবসা করে চলেছে। আবার বিশ্ববাসীর রাগ-ক্ষোভ-ঘৃণার সবটুকু কৌশলে তাদের দিকেই ঘুরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।


ধর্ম নামক অপ্রয়োজনীয় জিনিসটা নিয়ে মাথা ঘামাতে একদম ভাল লাগে না। তবু ইসলাম ধর্মটার প্রতি আমার আজকাল একটা খারাপ লাগা জন্মাচ্ছে। এই একমাত্র সম্প্রদায়ের কিছু মানুষের ধর্মভীরুতা, ধর্মান্ধতা এবং ধর্মের নামে উগ্রতার সুযোগ নিয়ে প্রত্যেকটা উন্নত এবং শক্তিশালী দেশ রাজনীতি আর ব্যবসা করে চলেছে। আবার বিশ্ববাসীর রাগ-ক্ষোভ-ঘৃণার সবটুকু কৌশলে তাদের দিকেই ঘুরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

যুগে যুগে সব বড় ধর্ম সাধারণের রক্ত বইয়েছে। সব ধর্মই কোনও না কোনও শতাব্দীতে অভাবনীয় অত্যাচার করেছে। কিন্তু সময়ের সঙ্গে মানুষ মানবিকতার শিকড়ে জল ঢেলেছে। ধীরে ধীরে ধর্মান্ধতা ত্যাগ করেছে। জীবনে ধর্মকে গৌণ করে ফেলেছে। তাই একবিংশ শতাব্দীতে দাঁড়িয়ে গোটা বিশ্বে আর কোনও ধর্ম নিয়ে না তো এভাবে নির্বিচারে রাজনীতি বা ব্যবসা চলে, না আর কোনও ধর্মের নামে এত রক্ত ঝরে।

সত্যি বলছি, সাধারণ মানুষের ধর্মের কোনও প্রয়োজন নেই। এক জীবনে ভালভাবে বেঁচে থাকার জন্য মানবধর্মই যথেষ্ট। বিভাজনরেখা শুধু শয়তানের হাতিয়ার হতে পারে। ওর কোনও গঠনমূলক ক্ষমতা নেই। থাকতেই পারে না…

৩ thoughts on “ধর্মের কোনও প্রয়োজন নেই

  1. কল্পনা করতে পার যেখানে
    কল্পনা করতে পার যেখানে মানুষের পরকালিন জবাবদিহিতার ভয় নেই, কে তাদের প্রবৃত্তির অনুসরন থেকে নিবৃত্ত করবে ? ।

    আর” মানবতা “? ।
    চ্যালেন্জ্ঞ পৃথিবীর সবার কাছে যে ইসলামের একটা অনুশাসন অথবা বিধান দেখাও যেটা মানবতার প্রতিকুলে ? কখোনো পারবা না

  2. ধর্মের অবশ্যই প্রয়োজন আছে। আর
    ধর্মের অবশ্যই প্রয়োজন আছে। আর এর প্রয়োজনীয়তা থাকবে। এখানে ধর্মের কোনো দোষ নাই। দোষ শুধু ধর্মের লেবাসধারী ভণ্ডদের। এদের ধর্ম থেকে বের করে দিতে পারলেই ধর্ম নিয়ে আর কারও ক্ষোভ থাকবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *