রাজধানীতে তাইওয়ান টেক্সটাইল মেলা

উন্নত টেক্সটাইল প্রযুক্তি পণ্য দক্ষিণ এশিয়ায় নিয়ে আসতে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে তাইওয়ান টেক্সটাইল মেলা। মেলার মূল উদ্দেশ্য হলো আন্তর্জাতিক টেক্সটাইল মেলার মাধ্যমে বাংলাদেশের পোশাক তৈরিকারক ও রাপ্তানিকারকদের জন্য আন্তর্জাতিক সুযোগ তৈরি করে দেয়া। তাইওয়ান বাংলাদেশের গার্মেন্টস শিল্পের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিভিন্ন দেশে তাইওয়ানে বিনিয়োগের জন্য বাজেট রয়েছে। বাংলাদেশ সরকার এ ধরনের বৈদেশিক বিনিয়োগকে উৎসাহিত করে। বিনিয়োগদাতাদের সব ধরনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে সরকার। গত অর্থবছরে তাইওয়ান ৩১ বিলিয়ন ইউএস ডলার রফতানি করে। এ বছরের টার্গেট ৩৩ বিলিয়ন। বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে চান তাইওয়ানের ব্যবসায়ীরা। তাইওয়ান টেক্সটাইল মেলা- ২০১৫ বাংলাদেশে তাইওয়ানের সর্বশেষ ও সর্বাধুনিক উন্নত প্রযুক্তি ও মানের বস্ত্র, সুতা, ফেব্রিকস ও পোশাক নিয়ে এসেছে। এই মেলাটি উন্নত, বিশ্বস্ত ও প্রকৃত টেক্সটাইল পণ্যের দারুণ এক কেন্দ্র ও বিনিময়ের মাধ্যম হিসেবে পরিণত হয়েছে। সারা বিশ্বের সহস্রাধিক আন্তর্জাতিক ডিজাইনার, ব্র্যান্ড, রফতানিকারক ও পোশাক নির্মাতাদের কাছে তাইওয়ানের পোশাকভিত্তিক বিভিন্ন পণ্যের দীর্ঘদিন ধরে সৃজনশীলতা ও সক্ষমতার জন্য দারুণ জনপ্রিয়তা আছে। এই মেলায় প্রর্দশিত হচ্ছে ভবিষ্যৎ টেক্সটাইল পণ্যও। মেলায় অংশগ্রহনকারীরা জানান, বাংলাদেশের বাজারকে সম্ভাবনাময় মনে করেই অংশ নিয়েছে তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *