জাতীয় দলের অধিনায়ক জাতির অপমান করলো

জাতীয় দলের অধিনায়ক সালমা খাতুন পাকিস্তানে খেলতে গিয়ে ”উর্দু”তে বক্তৃতা দিয়েছেন । ধন্যবাদ তাকে একটি বিদেশী ভাষা রপ্ত করার জন্য।

অনেকে ব্যাপারটা সহজাত প্রবৃত্তিবশত সমালোচনা করেছে। আবার অনেকে ডিফেন্স করেছে সালমাকে।কিন্তু আসলে ব্যাপারটা কেমন? আমাদের কি রিএক্ট করা উচিত?


জাতীয় দলের অধিনায়ক সালমা খাতুন পাকিস্তানে খেলতে গিয়ে ”উর্দু”তে বক্তৃতা দিয়েছেন । ধন্যবাদ তাকে একটি বিদেশী ভাষা রপ্ত করার জন্য।

অনেকে ব্যাপারটা সহজাত প্রবৃত্তিবশত সমালোচনা করেছে। আবার অনেকে ডিফেন্স করেছে সালমাকে।কিন্তু আসলে ব্যাপারটা কেমন? আমাদের কি রিএক্ট করা উচিত?

বারাক ওবামা বা নরেন্দ্র মোদী বাংলায় কথা বললে কিছু হয়না অথচ সালমার বেলায় আপত্তি কেন? অনেকে প্রশ্ন করে সালমার ডিফেন্সে। আর কারো আপত্তি থাকুক না থাকুক আমার আপত্তি আছে। বাংলা এমন একটা ভাষা। যেই ভাষার জন্য প্রান দিতে হয়েছে আর কোন ভাষার জন্য কারো প্রান দিতে হয়নি। বাংলাকে হটিয়ে উর্দুকে রাষ্ট্রভাষা করতে চেয়েছিল যারা। আজ তারা দেখুক বাংলা কোথায় আর উর্দু কোথায়? বারাক ওবামা বা নরেন্দ্র মোদীর বাংলাতে কথা বলা তাদের জন্য সম্মানের । কিন্তু সালমার উর্দুতে কথা বলা অবশ্যই অসম্মানের তার জন্য এবং আমাদের জন্য।

পাকিস্তানিদের সাথে আমাদের অতীত কারো অজানা নেই। সবচেয়ে বড় কথা পাকিস্তান এখনো ক্ষমা চায় নি। এবং উর্দু ভাষা সেই সাম্প্রদায়িক ব্যর্থ রাষ্ট্রের প্রতীক। উর্দু বলাতে সম্মান নেই বরং উর্দু বলাতে অসম্মান। সেই অসম্মান বাংলার এবং বাংলাদেশের । আর আমরা সেই অসম্মান বয়ে বেড়াতে চাইনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *