অন্ধ দেশ, অন্ধ জনগণ ও আমার কিছু অগোছালো কথা !

দেশের সাম্প্রতিকতম সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন আন্দোলন নিয়ে কথা বলছি । সরকার দ্বারা নির্ধারিত বেসরকারী বিশ্ব-বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপর ৭.৫% ভ্যাট ধার্য করা হলে এর প্রতিবাদে দেশের সকল বেসরকারী বিশ্ব-বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানায় । সম্পূর্ন অহিংস প্রতিবাদ সমাবেশে পুলিশ গুলি চালায়, আহত হয় প্রায় ১২ জন শিক্ষার্থী, শিক্ষক । সাথে সাথে চলতে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল মুহিত আর জাতীয় রাজস্ব বোর্ড(এনবিআর)’র পরস্পরবিরোধী বক্তব্য । এমতাবস্থায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে দাঁড়িয়ে ঢাকা’র ধানমন্ডি’র কতিপয় কিছু প্রাইভেট ভার্সিটি’কে উদ্দেশ্য করে কটুক্তি করেন। সরকার এবং প্রসাশন উল্টাপাল্টা বক্তব্যে , ছাত্রসমাজ পুনরায় রাস্তায় নামে ঐ ভ্যাট বাতিলের দাবি নিয়ে, ১২/৯/২০১৫-১৪/৯/২০১৫ পর্যন্ত ডাক দেয়া হয় ছাত্র ধর্মঘটের, সাথে সাথে চলতে থাকে শান্তিপূর্ন অবস্থান-কর্মসূচী এবং প্রতিবাদ সমাবেশ ঢাকা শহরের কমপক্ষে ১০ টি ব্যাস্ততম পয়েন্টে; এর সাথে সংহতি জানিয়ে চট্রগ্রাম এবং সিলেটেও শুরু হয় অনুরূপ কর্মসূচী । যা এখনও চলছে ।

** এই আন্দোলন শুরু হওয়ার সাথে সাথেই বরাবরের মতো বঙ্গদেশের কালচার অনুযায়ী এর পক্ষে ও বিপক্ষে দুই দল দাড়িয়ে যায় ।
একদল , এই আন্দোলনকে স্বাগত জানায় এবং শিক্ষার্থীদের দাবির সাথে সংহতি প্রকাশ করে । তারা, এই আন্দোলন’কে ‘শাহবাগ-আন্দোলনের’ মতোই রাস্ট্রের অন্যায় আবদারের বিরুদ্ধে দেশের মধ্যবিত্ত সমাজের ‘জাগরণ’, মনে করছে । তারা সোশ্যাল মিডিয়া’য় আন্দোলনের পক্ষে মতামত দিচ্ছে এবং জনসমর্থনে কাজ করছে ।
অপরদিকে এই আন্দোলনের বিপক্ষে আছে সরকার এবং সরকারের দালালেরা ; যারা দেখেও না দেখার ভান করছে, যুক্তিযুক্ত জেনেও অজ্ঞানের মতো আচরণ করছে । তারা কেউ একে ‘স্যাবোটোজ’ বলছেন, বলছেন সরকারকে বিপদে ফেলানোর চক্রান্ত এটি । তারা মানছেন না, পুরো ঘটনা’টির জন্য দায়ী সরকার নিজে , যেটা আরও জমিয়ে দিয়েছে তাদেরই সমর্থনপুষ্ট ‘বুড়ো’ অর্থমন্ত্রী ; সাথে আরও আছেন এখন পর্যন্ত কোন বক্তব্য না দিয়ে ঘাপটি মেরে বসে থাকা তাদেরই আপনজন ‘মাননীয়’ শিক্ষামন্ত্রী । অর্থমন্ত্রী, তার এক বক্তব্যে বলেন “এই বছর ভ্যাট দেবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি আর আগামীবছর থেকে শিক্ষার্থীদের এই ভ্যাট দিতে হবে, তোমরা(শিক্ষার্থীরা) শুধু খেয়াল রাখবে যাতে অন্য কোন খাত দেখিয়ে তোমাদের কাছ থেকে যেন এই টাকা;টা আদায় না করা হয়’’! এই কথার মানে দাঁড়ালো রাস্ট্রের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান’গুলোর দ্বারা নির্ধারিত ফি’র ব্যাপারে খোঁজ নেয়া রাষ্ট্রের কাজ না , মানে উনার দায়িত্বের মধ্যে পড়ে’না !!! ক্যামনে কি ??!!!!!!
প্রধানমন্ত্রী সংসদে এই আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে বলেন , “ শুনেছি, ধানমন্ডিতে একটী বিল্ডিঙয়ে নাকি ৩টা ভার্সিটি’র ক্লাস হয়”, উনি জানতে চেয়েছেন এটা কীভাবে হল ???!!!!! মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আমি যদি বলি এর দায়িত্ব আপনাকে নিতে হবে ! কারন, সব বিশ্ববিদ্যালয় সেটা সরকারি হোক অথবা বেসরকারী ; সবগুলোর অনুমোদন আপনারাই দিয়ে থাকেন , তাহলে আপনি জানবেন না কেন ?
অবশেষে কতিপয় সরকারে অন্ধ’ সমর্থকবৃন্দ , তারা সরকারের দোষ ঢাকতে গিয়ে সব দোষ চাপাচ্ছে নিষ্পাপ আন্দোলন কারী শিক্ষার্থীদের উপর, তারা বাজারে একটা কথা ছড়িয়ে দিয়েছে যে, যারা ‘ভ্যাট-বিরোধী’ আন্দোলন করছে , তারা নিজেদের শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানে’র প্রতি বছরে ধার্য করা ‘বর্ধিত ফি’র বিরুদ্ধে আন্দোলন করে না কেন ? তারা হচ্ছে ঐসব অন্ধগোষ্টী যেখানে তাদের সাথে দেশে ‘ছাগু সমাজের’ মধ্যে কোণ ব্যবধান থাকেনা । তারা মনে হয় জানে’না , প্রতিবারই ঐসব ‘বর্ধিত ফি’র বিরুদ্ধে যখন আন্দোলন দানা বাঁধে , তখন ঐসব প্রতিষ্ঠানের প্রশাসন সরকার’দলীয় নেতা(মতান্তরে, দলীয় ক্যাডার) , পুলিশের ভয় দেখিয়ে শিক্ষার্থীদের মুখ বন্ধ করে রাখে । আর , তারা মনে হয় এটা’ও জানেনা , ঐসব প্রতিষ্ঠানের সমস্তকিছু তদারকি করার দায়িত্ব বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের তথা সরকারের; যেখানে বরাবরের মতো ঐসব অন্ধদের(সরকার-সমর্থক) প্রানপ্রিয় সরকার চুড়ান্তভাবে ব্যার্থ ।
## আমি শিক্ষাকে ‘মৌলিক অধিকার’ বলতে চাই’না , এটা আমার কাছে কৌতুকের মতোই শোনায়

নিবেদনে, একটি বেসরকারী মেডিকেল কলেজের পঞ্চম বর্ষের একজন ছাত্র ।
NO VAT ON EDUCATION
(চলবে)

১৩/০৯/২০১৫, বাংলাদেশ

১ thought on “অন্ধ দেশ, অন্ধ জনগণ ও আমার কিছু অগোছালো কথা !

  1. মাল সাহেব অাপনি হইতবা জানেন
    মাল সাহেব অাপনি হইতবা জানেন না দারিদ্রতা কি জিনিস, আর সাধারন মানুষ কত কষ্ট করে টাকা ইনকাম করার জন্য। আপনার মত সবাই জনগনের টাকায় পায়ের ওপর পা তুলে পাগলের প্রলাপ বকে না, আজ যারা রাজপথে নেমেছ তাদের দাবি অাদায়ের জন্য তারা সবাই বড় লোকের সন্তান না, এক একটা সেমিষ্টারের ফি জোগাড় করতে এদের অনেক পরিশ্রম করতে হয়। তাই অান্দলনেরর পরিধি না বাড়িয়ে দাবি মেনে নিন। তাছাড়া শুধু শুধু রাজপথে রক্ত ঝড়বে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *