আমি মুক্তিযোদ্ধা, এগিয়ে চলি…

মনে পড়ে সেই দিনগুলোর কথা…
চারপাশে অন্ধকার। হা হা কার যেন সবকিছু। যেদিকে তাকাই সেদিকে যেন শূন্য আর শূন্য।
অনিশ্চিত আগামীকাল..
সকাল সূর্য ওঠবে কিনা তাও ভাবতে পারছি না। কোথায় থাকবো বলাও সম্ভন নয়। তবে একা থাকায় বেশী দূঃচিন্তা করতে হয়নি।
আজ এখানে তো কাল সেখানে…
ছোটকালেই হারিয়েছি বাবা-মা’কে।



মনে পড়ে সেই দিনগুলোর কথা…
চারপাশে অন্ধকার। হা হা কার যেন সবকিছু। যেদিকে তাকাই সেদিকে যেন শূন্য আর শূন্য।
অনিশ্চিত আগামীকাল..
সকাল সূর্য ওঠবে কিনা তাও ভাবতে পারছি না। কোথায় থাকবো বলাও সম্ভন নয়। তবে একা থাকায় বেশী দূঃচিন্তা করতে হয়নি।
আজ এখানে তো কাল সেখানে…
ছোটকালেই হারিয়েছি বাবা-মা’কে।
পরিবারের সবার ছোট হবার পরও তেমন আদর ভালোবাসা ভাগ্যে জোটেনি। সবার এক রকমের অবহেলার পাত্র ছিলাম বলে মনে হয়েছে। যখন যেখানে ডাক দিতো সেখানে পেটের যন্ত্রনা নিবাড়ন করতে চলে যেতাম। এক প্লেট ভাত সাথে একটা কিছু হলেই হলো…
পড়নে কি ছিলো ঠিক মনে করতে পারছিনা। তবে লজ্জ্বাস্থান ঢাকার জন্য মোটামুটি কিছু একটা পড়ে বেড়িয়ে পড়তাম। বড় ভাই বৌ’দের আদর আপ্যায়ন তেমন ভালো এ কথা বলা হলে মিথ্যে হবে। কেমন জানি অভিশপ্ত ছিলাম তাদের সংসারে…
সবাই যাচ্ছে, আমি যাবো…
দেশ কে স্বাধীন করার জন্য…
মাতৃ ভূমি থেকে শত্রু কে নির্মূল করার জন্য…
বঙ্গবন্ধুর ডাকে যাবো…
যুদ্ধে যাবো…
বঙ্গবন্ধু সেই বর্জ্র কন্ঠের বানী আমার কানে এখনো ভাজে…

“এবারে সংগ্রাম, আমাদের মুক্তির সংগ্রাম
এবারের সংগ্রাম, আমাদের স্বাধীনতার সংগ্রাম”।

আমি মুক্ত হয়ে আকাশে উড়তে চাই। আমি সবার মত করে সুন্দর জীবন চাই। আমি মর্যাদার সাথে জীবন চালাতে চাই। আমি মানুষের মত করে মানুষ হয়ে বাচঁতে চাই। আমি পরাধীন থাকতে চাই না।
আমি হাসঁতে চাই…
আমি হাঁসাতে চাই…

শুরু হলো যুদ্ধ। চারপাশে গুলির শব্দ আর গুলির শব্দ…
আমার ভয় নেই…
আমার স্বপ্নের ক্ষয় নেই…
আমি ক্লান্ত নই…
আমি শান্ত নই…
দূর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছি সবার সাথে। পাকিস্তানীদের এক এক করে খতম করে চলিছি। আজ এক বেলা খেলে তো কাল খেতে পারিনী। আমার তেমন সমস্যা হয়নি। ভাই’দের পরিবারে অভিশপ্ত জীবন আমার। পাশের লোকদের অবস্থা দেখে আর নিজেকে শান্ত রাখতে পারিনী। আমি যেন অগ্নী পুরুষ।
পাকিস্তানী আমার সামনে…
শত্রু আমার সামনে…
রাজাকার আমার সামনে…
আল বদর আমার সামনে…
আল সামস্ আমার সামনে…
দেশের শত্রু আমার সামনে…

আমি মুক্তিযোদ্ধা ! আমি ভয় করি না, এগিয়ে চলি। গুলি করি। হত্যা করতে চেষ্টা করি দেশের শত্রুদের। খতম করতে ঝাপিয়ে পড়ি পাকিস্তানীদের। আমি এগিয়ে চলি।

আমি মুক্তিযোদ্ধা…
আমি মুক্তি সংগ্রামী…
আমি বঙ্গবন্ধুর সৈনিক…
আমি দেশের সৈনিক…

(বাবা’র মুখ থেকে শোনা)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *