আপনি, নাস্তিকতা এবং আমি

দেখুন, আমরা মানুষ। সমাজে বাস করি। একেক জন একেক ধর্ম মেনে চলি। কেউ কেউ উপরে উপরে ধর্ম মানলেও, মনের দিক থেকে নাস্তিক হয়। আমাদের সমাজে নাস্তিক হওয়াটাকে ঘৃণার চোখে দেখা হয়। না, এতে অপ্রাধ নেই। আপনি নাস্তিক হতেই পারেন। আমি বাধা দেবো না, গালিও দেবো না।

অপরদিকে কিছু মানুষ ধর্মপ্রেমিক হয়। কিছু না, অধিকাংশ মানুষ ধর্মপ্রেমিক হয়। ধর্ম মানুষের বিশ্বাসের অনেকটা অংশ জুড়ে থাকে। ধর্ম বিষয়টা এতোটাই সেন্সেটিভ হয়, এর উপর আঘাত পড়লে মানুষ পশুকেও হার মানায়। নিজে জীবন দিয়ে হলেও ধর্মের উপর আঘাত লাগতে দিতে চায় না। সে যে ধর্মের লোকই হোক না কেন।


দেখুন, আমরা মানুষ। সমাজে বাস করি। একেক জন একেক ধর্ম মেনে চলি। কেউ কেউ উপরে উপরে ধর্ম মানলেও, মনের দিক থেকে নাস্তিক হয়। আমাদের সমাজে নাস্তিক হওয়াটাকে ঘৃণার চোখে দেখা হয়। না, এতে অপ্রাধ নেই। আপনি নাস্তিক হতেই পারেন। আমি বাধা দেবো না, গালিও দেবো না।

অপরদিকে কিছু মানুষ ধর্মপ্রেমিক হয়। কিছু না, অধিকাংশ মানুষ ধর্মপ্রেমিক হয়। ধর্ম মানুষের বিশ্বাসের অনেকটা অংশ জুড়ে থাকে। ধর্ম বিষয়টা এতোটাই সেন্সেটিভ হয়, এর উপর আঘাত পড়লে মানুষ পশুকেও হার মানায়। নিজে জীবন দিয়ে হলেও ধর্মের উপর আঘাত লাগতে দিতে চায় না। সে যে ধর্মের লোকই হোক না কেন।

আপনি আপনার বিশ্বাস নিয়ে থাকুন। আপনাকে তো কেউ মানা করেনি। কিন্তু আপনি অন্যের বিশ্বাসে কীভাবে আঘাত করেন? আপনার যেমন নিজের বিশ্বাস নিয়ে থাকার অধিকার আছে, অন্যদেরও আছে। ভুলে যাবেন না। আপনি একজন বড় মাপের মানুষ, লেখক, ব্লগার। এমন কিছু লিখুন, যেনো মানুষের উপকার হয়। কারো মনে আঘাত দেয়াটাকে মুক্তমনা বা স্বাধীনতা বলে, এমনটা আমি বিশ্বাস করি না।

আপনাকে বরং বলি কী, আপনি আপনার বিশ্বাস নিয়ে থাকুন। অন্যের বিশ্বাসে আঘাত দেবেন না। কোনো ধর্মের সম্পর্কে এমন কিছু লিখবেন না, যে কেউ মনে আঘাত পায়। ফলাফলটা তো দেখছেন। আমি হত্যার পক্ষে নই। ধর্মের বিপক্ষে নই। একজন মুসলিম। এবং আমি গর্বিত আমি একজন মুসলিম।

২ thoughts on “আপনি, নাস্তিকতা এবং আমি

  1. কেনো পারবেন না? ভালো কিছু
    কেনো পারবেন না? ভালো কিছু লিখুন, যেনো মানুষের উপকার হয়। যেসব লিখে কারো কোনো উপকারও হলো না, বরং আপনারই প্রাণনাশের আশঙ্কা থেকে গেলো, সেসব না হয় না-ই লিখলেন। আর আমি আগেই বলেছি, কারো বিশ্বাসে আঘাত দেয়াটা স্বাধীনতা হতে পারে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *