বাংলারে হিন্দুস্থান হইতে দেই নাই , বাংলাদেশ হইতেও দেয়া হবে না , বাংলা হবে বাংলাস্থান , বাঙ্গালী হবে আফগান ।

সেই ১৯৪৭ এ বহুত কষ্টে মালাউন জাতি হইতে আলাদা হইসিলাম । এরপরেও সালা কাফেরকা বাচ্চা কাফেররা আমাগু পিছু ছারে নাই । পশ্চিম ফাকিস্তান কাফের মুক্ত করলেও পূর্ব পাকিস্তান কাফের মুক্ত হয় নাই । সালার ৩৪% কাফের গুলারে বহুত বুঝাইলাম যে যা তরা তগু বাপের দেশ ইন্ডিয়াত চইল্লা যা । মাগার কোনো কাম হইলো না । উল্ডা আরো , কোন না কোন পান্ডুলিপিত্তে বাংলা আইন্না হেগো মাতৃভাষা বানায় দিসে । এইডা কিছু হইলো ????? মুসলিম দেশ , কই আরবি না উর্দুতে কথা কইব , তা না হেরা বাংলায় কথা কয় । এইডা কোনো সময় মানন যায় কন ??? বহুত কষ্টে হিয়াহিয়া ভাইজানরে চিটি পাডাইলাম , ”ভাইজান দেখেন এই পুর্ব ফাকিস্তানের মুসলমানগু এই অবস্থা এহন কি করন যায় ?”
হিয়াহিয়া ভাইজান কইলো “ চিন্তা কইর না গো মউদুদ আমি আমার মেশিন বাহীনি পাডাইতাছি , পুরা পাকিস্তান কাফের মুক্ত করবাম , বেকটিরতে মাইরা লাশ বানায়া বাপের দেশ ইন্ডিয়াত পাডাইয়াম “
কয়েকদিন গেলো বুলেটের ঠাস পটাস আওয়াজ শুরু হইলো । হিন্দু নিধন কর্মকান্ড বিরাট ভালা চলতাছে । এহন মাতৃভাষাডা চেইঞ্জ কইরা দেওন লাগব । ঘোষনা দিলাম আইজ হইতে সারা ফাকিস্তানের একমাত্র রাষ্ট্রভাষা হইব উর্দু ।
ও মা এ কি গো । সারা পূর্ব পাকিস্তানের মুসলমানেরাও নাস্তিক কাফের হইয়া গেলো নাকি গ ? হেরা নাকি উর্দু ভাষা মানতো না , আরবিতে কথা কইতো না !!! ইসলাম রাষ্ট্রের ভাষা বাংলা হইব এ কি মাইন্না নেয়া ্যায় ????? যাই হোক এইডিরেও মাইরা লাশ বানায়া বাপের দেশ ইন্ডিয়াত পডায়া দেয়া লাগব । সালা চর কাফেরকা বাচ্চা কাভি হোতা নেহি আচ্চা ।

১৯৫২ পরবর্তী =
কিতা আর কইতাম । বলার আর মুখ নাই । সালা কাফের মুসলামান গুলা এহন নাকি মরা কাফের গুলারে ভাষা শহীদ আখ্যা দিয়া শহিদ মিনার বানাইতাসে । আমার সারা পুর্ব পাকিস্তানের রাস্তার মোড়ে মোড়ে নাকি অই শহীদ গুলার মুর্তি বানানি হইতাসে । শেশ পর্যন্ত এইনের মুসলমানগুলা আর মুসলমান রইল না সবগুলাই নাস্তিক কাফের মালাউন হইয়া গেসে ।

এহনো এইডিরে না মারলে গজব হইতে রেহাই নাই ।
হিয়া হিয়া ভাইজানরে মেসেজ দিলাম ,” ভাই অহন কি করন ? “
হিয়া হিয়া ভাই কইলো ,”চিন্তা কইর না গো , আইতাছে ২৫শে মার্চ ১৯৭১ । রাইতে ঘুমন্ত সবকডা এই মালাউন জাতির মেরুদন্ডোগুলারে শেষ কইরা ফালামু ।“
ভালায় ভালায় ২৫শে মার্চ রাইতটা গেল । রাইতে গরুর মাংসের পার্টি দিছি । সকাল বেলা গুমেত্তে উইট্টা হুনি কোন মালাউনের নাতি বঙ্গবন্ধু না কি জানি নাম হে নাকি সারা বাংলারে উস্কায় দিসে । আমগু বিরুদ্ধে অস্ত্র ধরতে ।

হিয়াহিয়া ভাইজানরে আবার মেসেজ দিলাম ,” ভাই এইবার আর রক্ষা দেওন যাইতো না । ইসলাম প্রতিষ্টা করতে দরকার হইলে এইবার সারা পুর্ব ফাকিস্তান জনশুন্য কইরা দিমু , তবুও একটারে জিন্দা ভারত ভাইজ্ঞা যাইতে দিমু না ।

হিয়াহিয়া ভাই কইলো , “ চিন্তা কইরো না , এইবার আর একটারেও রক্ষা দিমু না “

৯ মাস যুদ্ধ গেলো । শেষ পর্যন্ত অই কাফের গুলাই জিতল । হিয়াহিয়া ভাইজানেরো খুব একটা খবর পাইতাসি না । স্লার এই পৃথিবী হইতে ধর্ম কি শেষ পর্যন্ত উইট্টা গেলো নাকি ? যাই হোক এইবার যেমতেই হোক বাংলারে বাংলাস্তান বানানির মিশনে নামতে হইব । এহন প্রতি বিস্ববিদ্যালয়ে প্রতি রাস্তার মোড়ে অই শহীদ নামক কাফের গুলার মুর্তি স্থাপন করেছে হালা মালাউনরা । প্রতি বছর ২১ এ ফেব্রুয়ারীতে নাকি শ্রদ্ধা জনানো হয় ওগোরে । শ্রদ্ধা না ডং । নেক ব্যাক্তি কাদের ভাই , আজম ভাই , সাইদী সব এহন জেলে । শেখের বেটি এহন নয়া ভাবে দেশটারে হিন্দুস্থান বানানির কামে লাগসে । কয়েকদিন আগে মোদিরেও নাকি আমন্ত্রন জানাইছে । মোদি আইয়া তার নব্য দক্ষীন হিন্দুস্থান রে দেইক্কা গেসে । কি আর কইতাম ।কামের কাম যক্সা হইসে দেশে মালাউন হিন্ধু সংখ্যা সেই ৫২এর ২৮% হইতে বর্তমান্র ৮% এ নামি নিয়া আসছি ( বাংলাদেশে হিন্দু সংখ্যা হ্রাসের পরিসংখ্যান টা দেখতে এখানে ক্লিক করুন । সূত্রঃ উকিপিডিয়া ) । জিএমবি – জামাতশিবির-হেফাজত একটাও কামের কাম করতে পারে নাই । আনসারুল্লা বাংলা টিমের সন্ধান পাইসি । হেরা বুলি খুব কামের । ওপেন রাস্তায় চাইর নাস্তিকরে জবাই কইরা থুয়া গেসেগা । শেখের বেটি এহন ভয়ে ঘরেত্তেই বাইর হয় না । শুরু ডা করসে নাস্তিক দিয়া । সমস্যা নাই , ভবিষ্যতে অন্য কাফের মুসলমানগুলারেও জবাই কইরা হেগো বাপের দেশ ইন্ডিয়াত পাডায় দেয়া হইবে ।
বাংলা হবে বাংলাস্থান ,
জাতি হবে আফগান ,
জয় বাংলাস্থান ,
জয়তু হিয়াহিয়া খান ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *