জীবনের কিছু কথা…….

“জীবনের প্রত্যেকটা দিন সমান যায় না … কোন কোন দিন খুব খারাপ যায় … হাজার চেষ্টা করেও লাভ হয় না, ভাগ্য সহায় হয় না … কত শত সকাল শুরু হয় প্রচন্ড বাজে অনুভূতির মধ্যে দিয়ে … অনেকগুলো দুপুরে প্রচন্ড ক্ষুধা নিয়েও মুখে খাবার তুলতে ইচ্ছে হয় না … অনেকগুলো বিকাল কাটে নিঃসঙ্গতায় … কিছু বিচ্ছিরি রকমের রাত কেটে যায় বালিশে মাথা রেখে ছটফট করতে করতে … চোখের নিচের কালিটুকু জানিয়ে দেয়ঃ
“তুমি ভালো নেই … সত্যিই ভালো নেই !!”


“জীবনের প্রত্যেকটা দিন সমান যায় না … কোন কোন দিন খুব খারাপ যায় … হাজার চেষ্টা করেও লাভ হয় না, ভাগ্য সহায় হয় না … কত শত সকাল শুরু হয় প্রচন্ড বাজে অনুভূতির মধ্যে দিয়ে … অনেকগুলো দুপুরে প্রচন্ড ক্ষুধা নিয়েও মুখে খাবার তুলতে ইচ্ছে হয় না … অনেকগুলো বিকাল কাটে নিঃসঙ্গতায় … কিছু বিচ্ছিরি রকমের রাত কেটে যায় বালিশে মাথা রেখে ছটফট করতে করতে … চোখের নিচের কালিটুকু জানিয়ে দেয়ঃ
“তুমি ভালো নেই … সত্যিই ভালো নেই !!”

সময়টা তখন আস্তে চলে … ঘড়ির কাটা থেমে যায় … কাছের মানুষগুলা কেমন জানি দূরে সরে যায় … যেই কাজেই হাত দাও তুমি, সেই কাজটাই ঠিকভাবে হয় না … পুরো পৃথিবীটাই তোমার বিপক্ষে চলে যায় … তুমি প্রচন্ড হতাশ হয়ে যাও … দিনের অনেকটা সময় দুই হাত দিয়ে মাথা চেপে বসে থাকো … তোমার বেঁচে থাকতে ইচ্ছে হয় না তখন … এই সময়টা বড্ড খারাপ … বড্ড বেশিই খারাপ !!

তুমি এই সময়টায় ডিপ্রেসড হয়ে হাল ছেড়ে দিলেই সব শেষ … তুমি ডিপ্রেসড হও, তুমি হতাশ হও, তুমি দু ফোঁটা চোখের পানি ফেলো … সমস্যা নেই … কিন্তু তবুও হাল ছেড়ে দিও না … তোমাকে বাঁচতে হবে … ধৈর্য্য ধরে বাঁচতে হবে !!

অনেকগুলো অমাবস্যার রাত এর পরেই জোছনা আসে … কোন এক অমাবস্যার রাতে তুমি হাল ছেড়ে দিলে ঐ জোছনা দেখবে কে ??

রাতটা খুব কষ্টের … সময়টা খুব ধীরে চলে … তুমি দাঁতে দাঁত চেপে সয়ে যাও … এই তো আরেকটু পরেই ভোর হবে … আর একটু পরেই খারাপ সময়টা কেটে যাবে … তুমি আরেকটু সয়ে যাও … “আর পারিনা” বলতে বলতেই সয়ে যাও … ট্রাস্ট মি, এক সময় সূর্যটা উঁকি দিবেই !!

“খারাপ সময়” আসবে … অনেক অনেকটা সময় ধরে সে থাকবে … একটা সময় সে চলে যাবেই … ট্রাস্ট মি … তুমি শুধু অপেক্ষা করো …

“খারাপ সময়” ই চলে যাবে … তুমি চলে যেও না … “অপেক্ষা” আর “ধৈর্য্য” এর হাত দুটো শক্ত করে ধরে তুমি টিকে থাকো … তোমার চলে যাওয়া নিষেধ … একদম নিষেধ !!”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *