শহর তোকে ভোগ করবো বলে

শহর তোকে ভোগ করবো বলে এক ইঞ্চি জমিও রাখি নি অনাবাদী
যেমন জন্মদাতা জনকের রক্ত ধর্ম এনে দিলো তেমন পৈত্রিক শিরস্ত্রাণ
হয়তো এটা যুদ্ধের নাম; স্ফুরিত প্রেমের কাছে ভৃত্য হয়ে গেলাম
শহর তোকে ভোগ করবো বলে উদ্বাস্তু ঘরেও করি করুনাসন্ধান।

হঠাৎ নিস্তব্ধ পোষা পাখি শতাব্দীর পর শতাব্দী যে গায় নি বুনো গান
তার কসম কাটলাম! সখ্য হবে শর্তহীন গাইবে সে গান –
হোক না বোবা কলিংবেলে – এখানে ভোক্তা নয় ভোগটাই প্রধান!

আমি হতে চাই মহৎ, কিছুটা পীড়ন করে সুখী হতে চাই
অনেকটা ডিপ্লোম্যাটিক রাজনীতির মতো দুঃখ তোমার আমি হবো ভাগীদার-
অতঃপর সবুজ তোমাকে দেখালাম বুড়ো আঙ্গুলের ঘাম , এটা সভ্যতার বলিদান।


শহর তোকে ভোগ করবো বলে এক ইঞ্চি জমিও রাখি নি অনাবাদী
যেমন জন্মদাতা জনকের রক্ত ধর্ম এনে দিলো তেমন পৈত্রিক শিরস্ত্রাণ
হয়তো এটা যুদ্ধের নাম; স্ফুরিত প্রেমের কাছে ভৃত্য হয়ে গেলাম
শহর তোকে ভোগ করবো বলে উদ্বাস্তু ঘরেও করি করুনাসন্ধান।

হঠাৎ নিস্তব্ধ পোষা পাখি শতাব্দীর পর শতাব্দী যে গায় নি বুনো গান
তার কসম কাটলাম! সখ্য হবে শর্তহীন গাইবে সে গান –
হোক না বোবা কলিংবেলে – এখানে ভোক্তা নয় ভোগটাই প্রধান!

আমি হতে চাই মহৎ, কিছুটা পীড়ন করে সুখী হতে চাই
অনেকটা ডিপ্লোম্যাটিক রাজনীতির মতো দুঃখ তোমার আমি হবো ভাগীদার-
অতঃপর সবুজ তোমাকে দেখালাম বুড়ো আঙ্গুলের ঘাম , এটা সভ্যতার বলিদান।

এখানে বস্তু আর সম্পর্কের মাঝে যে গুচ্ছ গুচ্ছ স্বপ্ন সেটা আবাসস্থল
রিক্সাওয়ালার দৈনিক ৩০০ টাকা কামাই মানেই সুখ, ছন্নছাড়ার দল!
বাস্তবিক অর্থে এটাই সত্যি হাইলাইটে জীবন্ত কর্পোরেট মাতালের মন
মানুষের গায়ের চামড়ায় আছে উঁচু পাঁচিল – পচা মাংসগুলো নিকৃষ্ট অধম।

শহর তোকে ভোগ করবো বলে, চুলে ত্বকে ওষ্ঠে গ্রীবায় দিয়েছি লালাতুর খামচি
সামাজিক নখ আজ হিংস্র – বিশ্বাসীরা অপবিশ্বাসী; এটা দুরারোগ্য ব্যাধি
আমি চাই সব –
খোলা বুকের মতো মাঠ,চাঁদের আলোয় মরচে পড়ুক নিয়ন আলো থাক
নিঃশ্বাস আছে ৬ নাম্বার বাসে – উষ্ণতা বেড়ে যাক
এটা এয়ার কন্ডিশনড জীবন হোক মূল্যবোধের মুণ্ডুপাত।
কেউ খাচ্ছে চাইনিজ কেউ চিরতার পানি খাক! কি আসে যায়?
শহর গিলেছে বোধ এটা কাঙ্ক্ষিত শহুরে অভিশাপ।

শহর তোকে ভোগ করবো বলে আত্মার কবর খুঁড়লাম
শহর তোকে ভোগ করবো বলে নাম দিয়েছি তোর ঢাকা গ্রাম!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *