কবিতাঃ নিপুণকারু কাজ

সূর্যের কিরণ দেখ সবুজ মেঘের দিন
চাঁদ ভরা রাতে দেখ নীল আর নীল-
এ আইল পাথার জুড়ে দেখ বিচিত্র
অরণ্য ছায়া ঘেরা মায়াবী এক ধরণী।
গ্রাম বল- শহর বল- বল অভয়
জলের বালুচর- সবখানেতে আছে-খুঁজে
নাহি দেখো-নাই বা দিলে প্রস্ফুটন-
নাই বা চিনলে- এ বক্ষ ভরা ধন।



সূর্যের কিরণ দেখ সবুজ মেঘের দিন
চাঁদ ভরা রাতে দেখ নীল আর নীল-
এ আইল পাথার জুড়ে দেখ বিচিত্র
অরণ্য ছায়া ঘেরা মায়াবী এক ধরণী।
গ্রাম বল- শহর বল- বল অভয়
জলের বালুচর- সবখানেতে আছে-খুঁজে
নাহি দেখো-নাই বা দিলে প্রস্ফুটন-
নাই বা চিনলে- এ বক্ষ ভরা ধন।
তুমি দেখেছ নিশ্চিয়- জানো কি? ঐ
শামুক ঝিনুকের ভিতর কি? ক্লান্তহীন
ঘামহীন তাদের কি শ্রম-যে শ্রমে হীরা মুক্ত
বিলিন করে- অপরূপ সৌন্দর্য। তুমি তো
হও মুগ্ধ-এ যে নিপুণকারু কাজে এক মেধা
সম্পূর্ণ- চিন্তা নাহি কর।তোমার মাঝে আছে
দেখ- শামুক ঝিনুক চেয়েও- সোনার ধন
নিঘামে ঝরাও দেখবে উজ্জ্বল শ্যামল- জয়
হোক- ঘৃষ্টচন্দন ঝরুক- হোক তার পদচরণ।

লেখার তারিখঃ ২৯/০৩/১৩

১ thought on “কবিতাঃ নিপুণকারু কাজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *