আমাদের লাইনে মানুষগুলো

আমাদের লাইনে মানুষ গুলো চেটেপুটে খায় শহর যেখানে
ভদকা খেলেও নেশা হয় না – ঠোঁটে মুখে কেবল
তৃষ্ণা
তৃষ্ণা
তৃষ্ণা
এমন ভোগে যাওয়া ক্ষতচিহ্নে লবন ছিটালে পাওয়া যায় অর্ধনমিত পতাকা
গুচ্ছ গুচ্ছ ভালবাসা কে মাটি চাপা দিলে সৎকার হয় না
এমন প্রনয়ের মুখে শানবাঁধানো আত্মাকে আগুনের দোরগোড়ায় পাঠিয়ে দিলাম
পুড়ে গেলে আমি টের পাই দৈহিক উষ্ণতা। তার মাঝে জানা যায়
আমাদের পাকস্থলী ভরা উঁচু আদর্শের নাম – সাংসারিক অনুশাসন
নিজের চাবুকেই খুনখারাবি – নিজেতেই মরন।

আমাদের লাইনে লেনিন টাইম পায় নাহ
ডাস্টবিনে দুর্গন্ধ ধ্বংসের মুখোমুখি আত্মা
এমন ঝাপসা হারিকেনের কাঁচে কি মিলবে শুদ্ধ সভ্যতা?

আমাদের লাইনে মানুষ গুলো চেটেপুটে খায় শহর যেখানে
ভদকা খেলেও নেশা হয় না – ঠোঁটে মুখে কেবল
তৃষ্ণা
তৃষ্ণা
তৃষ্ণা
এমন ভোগে যাওয়া ক্ষতচিহ্নে লবন ছিটালে পাওয়া যায় অর্ধনমিত পতাকা
গুচ্ছ গুচ্ছ ভালবাসা কে মাটি চাপা দিলে সৎকার হয় না
এমন প্রনয়ের মুখে শানবাঁধানো আত্মাকে আগুনের দোরগোড়ায় পাঠিয়ে দিলাম
পুড়ে গেলে আমি টের পাই দৈহিক উষ্ণতা। তার মাঝে জানা যায়
আমাদের পাকস্থলী ভরা উঁচু আদর্শের নাম – সাংসারিক অনুশাসন
নিজের চাবুকেই খুনখারাবি – নিজেতেই মরন।

আমাদের লাইনে লেনিন টাইম পায় নাহ
ডাস্টবিনে দুর্গন্ধ ধ্বংসের মুখোমুখি আত্মা
এমন ঝাপসা হারিকেনের কাঁচে কি মিলবে শুদ্ধ সভ্যতা?
মাঝে মাঝে আওয়াজে কিংবা উপদেশে তার জিজ্ঞাসা!
প্রশ্নঃ শান্তি কোথায়? যার আশায় শান্ত ছিলাম।
আমরা লাইনচ্যুত চৌবাচ্চা – বাচ্চা ধ্বংসের বার্তা
এমন সাংবিধানিক কফির পেয়ালায় এলকোহলিক ঘ্রাণ
জন্ম-জনম জীবন রক্ত – পুঁজে মাখা।

আমাদের লাইনে মানুষ গুলো অ- সুখে ভোগে
বন্ধুর চোখে হিংসা – প্রেমিকার বুকে ক্রোধ দেখে
তারপর আবসলিউট হতাশা , শ্বাসকষ্ট – নিঃশ্বাসে যন্ত্রণা
তবু মনুষ্যপশুর হিংস্রতায় এরা গা ভাসায়
এরা যথাক্রমে
যন্ত্রমানব
সভ্যমানব
উচ্চাভিলাষী
নিজের ক্ষুধায় মানুষ খায় – নেপথ্যে লোভ আর নোংরামি।

আমাদের লাইনে মানুষ গুলো স্বার্থপর – এরা সবাই সুখ চায়
যদিও কেউ জানে নাহ , সুখ কি আছে? সুখ কারে কয়?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *