সত্য ভালোবাসা কোনো বাঁধা মানে না…

রাজ..ইন্টার ২য় বর্ষের ছাত্র..বন্ধুদের মাঝেই চলে তার নানা রকম আড্ডা..ফেসবুকেও চলে তার আনাগোনা..সে নিজে প্রেম না করলেও লিখতো অনেক রকম প্রেমসম্পর্কিত বিষয় নিয়ে..বর্তমানে তার অনেক ফলোয়ার..সে নিজেও মজা পায় এসব বিষয়ে লিখতে..অনেকে তাকে মাঝে মাঝে জিজ্ঞাসা করতো তার লেখা নিয়ে..তো একদিন একটি মেসেজ আসলো এরকম যে,বাহ! ভাইয়া আপনি তো খুব সুন্দর লেখেন..আপনার পোস্টগুলা আমি নিয়মিত দেখি..ভাইয়া প্লিজ আপনি আমার ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট টা এক্সসেপ্ট করেন..আমার নাম প্রতীক্ষা….তো রাজ এটা দেখে ভাবে তার কাছে এরকম অনেক মেসেজ ই আসে..তার ফেসবুক ফ্রেন্ড হতে চায়..তার ধারণা হয় আইডিটা সম্ভবত ফেক হতে পারে..তাই সে পাত্তা দেয় না..এভাবে প্রতিদিন প্রতীক্ষা নামের ঐই মেয়েটি তাকে মেসেজ দিতে থাকে..তো সপ্তাহ খানেক পর রাজ ভাবে সে যখন এতো করেই চাচ্ছে রিকুয়েস্ট টা এক্সসেপ্ট করি..তো সে করে,তখন প্রতীক্ষা ধন্যবাদ জানায় ।পরেরদিন রাজ ভাবে আইডিটা সত্যিই সঠিক কিনা..তাই সে ভাবলো তাকে সরাসরি জিজ্ঞাসা করবে কিনা ..কিন্তু যদি সে কিছু মনে করে ।তাও লজ্জিতভাবে রাজ মেসেজ দেয় তাকে যে আসলেই তুমি কি প্রতীক্ষা নামের মেয়ে ?? তখন মেয়েটি বলে কেনো বিলিভ হচ্ছে না ? রাজ বলে,না আসলে তেমন কিছু না..এরকম ইদানিং নিয়মিত হচ্ছে তো তাই..এইভাবে তাদের মেসেজ আদান-প্রদান বেশ কয়দিন চলে..তো রাজের মোটামুটি তাকে বেশ পছন্দ হয়..সে ভাবছে সামনে ১৪ ফেব্রুয়ারী প্রতীক্ষাকে বিষয়টা বলবে..তাই,সে প্রতীক্ষাকে বলে দেখা করতে ১৪ তারিখ একটা রেস্টুরেন্ট এ..দুজনের মাঝেই বেশ এক কিউরিসিটি চলে আসে..প্রথম দেখা হবে কারণ ফেসবুকে প্রতীক্ষার কোনো প্রোফাইল ফটো ছিলো না..রাজ তার খুব ঘনিষ্ঠ দুই বন্ধু প্রান্ত আর রোহানকে বিষয়টা জানায়,তারাও বলে যা দেখা করে আই..আর মনের কথাটা বলে দে.. রাজ পরদিন বিকেলে অর্থাত্‍ ১৪ তারিখ যায় রেস্টুরেন্ট এ যেখানে সে আসতে বলেছিল প্রতীক্ষাকে..সে এসে দেখে এক চেয়ারে হিজাব পর অবস্থায় একটা মেয়ে মুখ ঢেকে বসে আছে এক চেয়ারে..সে তখন ফেসবুকে তাকে নক করলো,আর দেখলো মেয়েটা তখন মোবাইলে এ হাত দেয় । সে বুঝলো এটিই সে মেয়ে..তাই সে কাছে গিয়ে বল্লো তুমি কি প্রতীক্ষা ?? তখন মেয়েটি বলে হ্যা..তখন সে বলে প্লিজ বসেন..রাজ বসলো,দুটো কফির অর্ডার দিলো..কথা বলার এক পর্যায়ে রাজ তাকে বলে তুমি কি তোমার মুখ থেকে কাপরটা সরাবা,প্লিজ ? তো , প্রতীক্ষা তার অনুরোধ রাখলো এবং খোলার সাথে সাথে রাজ তাকে দেখে মাথা চক্কর দিচ্ছে..তাকে বলে ওঠে তুমি কি !! তুমি এতো সুন্দর কেনো,না মানে তুমি কি সত্যিই তুমি ?? প্রতীক্ষা তার পাগলামি দেখে হাসে শুধু..এক পর্যায়ে রাজ ভাবে এবার তাকে বিষয়টা বলবে..হঠাত্‍ রাজ প্রতীক্ষার হাতটা ধরে..আর বলে তোমার সাথে এইকয়দিনে আমি খুব ঘনিষ্ঠ হয়ে গেছি ..আমি কিছু একটা অনুভব করছি..সে বলে i like u…আমি তোমাকে এইকয়দিনে ভালোবেসে ফেলেছি..।প্রতীক্ষা শুনে পুরা চুপ..কি বলবে বুঝে উঠতে পারছে না..সেও মনে মনে পছন্দ করতো রাজকে ,কিন্তু সে পারবে না বলে । কারণ তার পরিবার সহ সে চলে যাচ্ছে বিদেশ পারমানেন্টলি..তাই সে বলে ওঠে সরি..কিন্তু তার মনের কথাটা সে রাজকে বলে না । বলে তার ফ্লাইট ২০ তারিখ,এটা সে আগে রাজকে জানায়নি ,কারণ সে জানতো না যে বিষয়টা এতো দূর যাবে..এই বলে সে চলে যায় ..ফিরে এসে রাজ খুব মন খারাপ করে বসে থাকে..তখন তার বন্ধু প্রান্ত আর রোহান বিষয়টা কি হয়েছে জানতে চায় আর রাজ প্রতীক্ষাকে বলেছে কিনা এসব ।এরপর রাজ সব কিছু বলে তাদের..তার বন্ধু প্রান্ত বলে,টেনসন নিস না প্রতীক্ষা তোর কাছে আসবেই..আর রোহান বলে ও কোথাও যাবে না দেখিস..প্রতীক্ষাও তোকে ভালোবাসে বাট তোকে বলেনি..আর নিজের ভালোবাসা রেখে ও চলে যাবে না ।ঐদিক,প্রতীক্ষা বাসায় ফিরে ভাবতে থাকে..একসময় সে কেঁদে ফেলে..সে বুঝে উঠতে পারছে না সে কি করবে ..এভাবে ২০ তারিখ চলে আসে,রাজ ভাবে প্রতীক্ষা চলে যাচ্ছে তাকে ছেরে..হঠাত্‍ রাজের ফেসবুকে প্রতীক্ষার মেসেজ,রাজ তুমি কোথায় ? আমি সেই রেস্টুরেন্ট এর সামনে..তুমি এখনি আস..রাজ কিছুই বুঝলো না..রাজ দ্রুত তার দুই বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে বেরিয়ে পরলো ।পৌছাতেই,রাজ দেখলো সেখানে প্রতীক্ষা দাঁরিয়ে..রাজ বলে তুমি এখানে ? তোমার না আজ ফ্লাইট ? তখন প্রতীক্ষা বলে,হ্যা বাট আমি যাবো না । রাজ বলে কেনো ?তখন সে বলে,আরে বুদ্ধু,আমি আমার ভালোবাসাকে ছেরে যায় কি করে? আমি একা থাকবো কি করে ?আমি তো মরেই যাবো তোমাকে ছারা..তাই আমি বাসা থেকে চলে এসেছি তোমার কাছে একেবারে,আমাকে নিয়ে যাও তুমি তোমার সাথে,নাহলে আমার বাবা-মা আমাকে নিয়ে যাবে ।এই বলে সে রাজকে জরিয়ে ধরে কাঁদে,আর বলে i like u too..i love u so much..রাজ ও তখন আনন্দে কেঁদে ফেলে..আর বলে আজ থেকে তুমি আমার..তখন তার বন্ধু প্রান্ত বলে,কি রাজ তোকে বলেছিলাম না ? টেনসন নিস না ,ও তোর ও তোর কাছে আসবেই..রোহান ও প্রান্ত এর সাথে একমত হয়,আর সেও ভাবতে থাকে এভাবে হয়তো নৌশি তার কাছে ফিরে আসবে এবং তাকে ছেরে যাবেনা….
#To be continued..#ঘটনাটি পুরো কাল্পনিক..কেউ দয়া করে কারোর সাথে কারোর চরিত্রে মিল খুঁজবেন না..
Written by:#নীল ক্যানভাস

২ thoughts on “সত্য ভালোবাসা কোনো বাঁধা মানে না…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *