একটি ফরমালিন সমৃদ্ধ আপেলের পর্যায়ক্রমিক বিবর্তন (সচিত্র)

বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বিষয়ে লিখে থাকি। ইচ্ছে হল ভিন্ন কিছু লিখবার। বিভিন্ন ফলে ফরমালিনের প্রয়োগ কিংবা মানবদেহে ফরমালিনের দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব নিয়ে ইতোমধ্যেই অনেক জ্ঞানগর্ভ আলোচনা হয়ে গেছে তাই সেদিকে যাচ্ছি না। একবার খুব ইচ্ছে হল খাদ্যে সরাসরি ফরমালিনের প্রতিক্রিয়া দেখার। মেঘ না চাইতেই জল পাবার মত সুযোগও এসে গেল। আমার বস শামিমা আপু আমাকে বেশ স্নেহ করেন। মেয়ে বস থাকার অনেক সুবিধা আছে। আপু মাঝে মাঝেই বাসা থেকে শুঁটকির তরকারী (যা আমার খুব পছন্দের) রান্না করে এনে আমাদেরকে খাওয়ান। ফাটফাটি শুঁটকির তরকারী রান্না করেন তিনি।


বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বিষয়ে লিখে থাকি। ইচ্ছে হল ভিন্ন কিছু লিখবার। বিভিন্ন ফলে ফরমালিনের প্রয়োগ কিংবা মানবদেহে ফরমালিনের দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব নিয়ে ইতোমধ্যেই অনেক জ্ঞানগর্ভ আলোচনা হয়ে গেছে তাই সেদিকে যাচ্ছি না। একবার খুব ইচ্ছে হল খাদ্যে সরাসরি ফরমালিনের প্রতিক্রিয়া দেখার। মেঘ না চাইতেই জল পাবার মত সুযোগও এসে গেল। আমার বস শামিমা আপু আমাকে বেশ স্নেহ করেন। মেয়ে বস থাকার অনেক সুবিধা আছে। আপু মাঝে মাঝেই বাসা থেকে শুঁটকির তরকারী (যা আমার খুব পছন্দের) রান্না করে এনে আমাদেরকে খাওয়ান। ফাটফাটি শুঁটকির তরকারী রান্না করেন তিনি।

একদিন আপু আমাদের জন্য আপেল নিয়ে আসলেন। কাজের চাপ বেশি থাকার কারণে সেদিন আর আপেল খাওয়ার সময় পাই নি। পরদিন আপেল খেতে গিয়ে হঠাত মনে হল আচ্ছা এই আপেলে ফরমালিন নেই তো? চিন্তাটা মাথায় ধীরে ধীরে জেঁকে বসল। ফরমালিন আছে কি না সেটা পরীক্ষা করার সহজ উপায় হচ্ছে আপেলটা কিছুদিন রেখে দেওয়া। যদি দ্রুত পচে যায় (সর্বোচ্চ ৭ দিনের মাঝে) তাহলে বুঝতে হবে ফরমালিন নেই। আর ফরমালিন থাকলে পচতে অনেক সময় লাগবে। মিনিমাম ৩ মাস। অতএব এই আপেলের উপর একটা ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলাম। কলিগরা মহা উৎসাহে আমার এই সিদ্ধান্তে সহমত জানাল। এরপর টানা ৪ মাসেরও বেশি সময় নিয়ে আমরা নিয়মিতভাবে আপেলটিকে পর্যবেক্ষণ করেছি। ফলাফল আপনাদের সামনে উপস্থিত করলাম। কিছু বলতে হবে না, যা বোঝার নিজেই বুঝতে পারবেন।

আমরা পর্যবেক্ষণ শুরু করি নভেম্বর মাসে। সবগুলো ছবি যেহেতু মোবাইল ক্যামেরায় তোলা তাই খুব একটা স্পষ্ট হয়ত আসবে না তবে বুঝতে পারবেন আশা করছি। একদম প্রথম দিনের ছবি তোলা হয় নি। এরপর নিয়মিত বিরতিতে আপেলের ছবি তোলা হয়েছে। প্রথম ছবিটি তোলা হয়েছিল আপু আমাকে আপেল খেতে দেওয়ার ঠিক এক সপ্তাহ পরে। সেদিন তারিখটা ছিল ০৯.১১.২০১২। ড্রয়ার থেকে আপেল বের করে দেখি প্রথমদিনের মতই সুন্দর(!) এবং অক্ষত আছে।

এরপরের ছবি আরও ১২ দিন পরের। আপেল এখনও অক্ষত। ২১.১১.২০১২ তারিখের তোলা ছবি।

আরও দুই সপ্তাহ পরে ০৫.১২.২০১২ তারিখে তোলা ছবি।

আরও ১৭ দিন পরে তারিখে ২২.১২.২০১২ তারিখের তোলা ছবি। আপেল বাবাজির চামড়ায় এতদিনে ভাঁজ পড়া শুরু হয়েছে।

দেখতে দেখতে ২০১৩ সাল চলে আসল। কাজের ব্যস্ততায় বেশ কিছুদিন আপেলটার খোঁজ নিতে পারি নি। ০৫.০১.২০১৩ তারিখে আবার আপেলটার দিকে নজর দিলাম। বাহ, আপেল তো দেখি আগের মতই আছে।

জানুয়ারি মাসের ২৬ তারিখ ছিল আমার জন্মদিন। সেদিন ছুটি নিয়েছিলাম। বাড়ি থেকে ছুটি কাটিয়ে পরদিন অফিসে এসে প্রথমেই আপেলটার দিকে নজর দিলাম। হুম, এইবার চামড়ার ভাঁজ আগের থেকে কিছুটা হলেও বেড়েছে। ২৭.০১.২০১৩ তারিখে তোলা ছবি।

এরপরের ছবিটা তুলেছিলাম ১৬.০২.২০১৩ তারিখে। ফরমালিনের ক্রিয়া অবশেষে শেষ হতে শুরু করেছে।

এই মাসের শুরুর দিকে ০৬.০৩.২০১৩ তারিখের তোলা ছবিটা দেখুন। আপেল বাবাজি অবশেষে তাঁর অস্তিত্ব বিসর্জন দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে। আর বেশিদিন নেই বেচারার হায়াত।

এখন যেই ছবিট দেখবেন সেটই আজই (২৪.০৩.২০১৩) তুললাম। আমাদের আপেল বাবাজি ICU তে চলে গেছেন। আর তাঁকে বাঁচানো সম্ভব না। হারানো যৌবন ফিরে পাবার ভেষজ ওষুধের মত ফরমালিন দিয়ে তাঁর যৌবন এতদিন ধরে রাখা সম্ভব হলেও শেষ রক্ষা আর হল না। নিয়তির কাছে তাঁর পরাজয় স্বীকার করতেই হল। আসলেই সকল পদার্থই মরণশীল।

আমাদের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল অবশেষে শেষ হল। ২০১২ সালের নভেম্বর মাসের দুই তারিখ শুরু করেছিলাম আর শেষ করলাম আজ। প্রায় সাড়ে ৪ মাসের অক্লান্ত গবেষণার মাধ্যমে আপেলটিতে ফরমালিনের উপস্থিতি সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয়েছে। আফসোস, এই পরীক্ষার ফলাফল কোন জার্নালে প্রকাশ করতে পারলাম না। পারলে নিশ্চিতভাবে Ph.D করার জন্য একটা স্কলারশিপ জুটিয়ে ফেলতে পারতাম।

সবাইকে সতর্ক করে দিচ্ছি; ঢাকা শহরে আপেল বা অন্য কোন ফল কিনে খাবেন তো নিজ দায়িত্তে খাবেন। বলবেন না যে আমি সতর্ক করি নি। এতদিনে আপেলটার প্রতি কেমন যেন মায়া জন্মে গেছে। তাই আজ ফেলে দিতে গিয়ে ফেলি নি। কিছুদিনের জন্য মমি করে রাখব নাকি সেই চিন্তা করছি।

২১ thoughts on “একটি ফরমালিন সমৃদ্ধ আপেলের পর্যায়ক্রমিক বিবর্তন (সচিত্র)

  1. আমাদের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল

    আমাদের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল অবশেষে শেষ হল। ২০১৩ সালের নভেম্বর মাসের দুই তারিখ শুরু করেছিলাম আর শেষ করলাম আজ।

    এখানে সালটা মনে হয় ভুল হইছে। ২০১২ হবে।
    জোসিলা পোষ্ট হইছে। :থাম্বসআপ:

  2. আমররা এখন ইমিউন হয়ে গেছি। এখন
    আমররা এখন ইমিউন হয়ে গেছি। এখন ফরমালিন ছাড়া আপেল খাইলে পেট খারাপ হবে। তাই ফরমালিনযুক্তগুলাই খাও। :ভেংচি:

  3. শুঁটকির তরকারী

    আই জাস্ট

    শুঁটকির তরকারী

    :চিন্তায়আছি: :চিন্তায়আছি:
    আই জাস্ট হেইট শুঁটকি।

    আমাদের আপেল বাবাজি ICU তে চলে গেছেন। আর তাঁকে বাঁচানো সম্ভব না।

    এই মৃত্যুর দায় কে নেবে?

    প্রায় সাড়ে ৪ মাসের অক্লান্ত গবেষণার মাধ্যমে আপেলটিতে ফরমালিনের উপস্থিতি সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয়েছে। আফসোস, এই পরীক্ষার ফলাফল কোন জার্নালে প্রকাশ করতে পারলাম না। পারলে নিশ্চিতভাবে Ph.D করার জন্য একটা স্কলারশিপ জুটিয়ে ফেলতে পারতাম।

    ইস্টিশনের পক্ষ থেকে ডিগ্রীর ব্যবস্থা করা যায় কিনা ব্লগ কর্তৃপক্ষকে ভেবে দেখার অনুরোধ রইল।

    সর্বোপরি রুপক ভাই :ফুল: :ফুল: :ফুল: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি:

      1. শুঁটকির তরকারি মানুষ হেইট

        শুঁটকির তরকারি মানুষ হেইট করে?

        ইস্টিশন মাষ্টার একটা বমির ইমো চাই…………… :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি:

  4. কিছুদিন আগে আমার পরিচিত এক
    কিছুদিন আগে আমার পরিচিত এক আপুর মিসক্যারেজ হয়… দাক্তার কারন হিসেবে বলেছেন, খাবারে ফরমালিন থাকার কথা…

  5. নেগেটিভ কন্ট্রোল বলে একটা
    নেগেটিভ কন্ট্রোল বলে একটা বিষয় থাকে এধরনের এক্সপেরিমেন্টে। নেগেটিভ কন্ট্রোল ছাড়া রেজাল্ট গ্রহনযোগ্য নয়। সঠিক এক্সপেরিমেন্ট ছাড়া অনুমান নির্ভর বিভ্রান্তি ছড়ানো কাম্য নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *