বাংলা বাদ! হিন্দি বানাও!!!

হিন্দি ছবি চালালে বাংলা ছবি আর কেউ দেখবে না! বাংলাদেশের সিনেমা ইন্ডাষ্ট্রি ধ্বংস হয়ে যাবে। হাজার হাজার শিল্পি-কলাকুশলী পথে বসবে! সরকার হারাবে রাজস্ব। সিনেমা হল মালিক হারাবে ব্যবসা! বাংলা বাদ দিয়ে সব হিন্দিতে কথা বলবে! হিন্দু সংস্কৃতির আমদানী হবে! বাংলাদেশ বি..শাল সমস্যার মধ্যে পড়ে যাবে! সবকিছু প্রায় ধ্বংস হওয়ার পথে চলে যাবে….. ব্লা…ব্লা…ব্লা..


হিন্দি ছবি চালালে বাংলা ছবি আর কেউ দেখবে না! বাংলাদেশের সিনেমা ইন্ডাষ্ট্রি ধ্বংস হয়ে যাবে। হাজার হাজার শিল্পি-কলাকুশলী পথে বসবে! সরকার হারাবে রাজস্ব। সিনেমা হল মালিক হারাবে ব্যবসা! বাংলা বাদ দিয়ে সব হিন্দিতে কথা বলবে! হিন্দু সংস্কৃতির আমদানী হবে! বাংলাদেশ বি..শাল সমস্যার মধ্যে পড়ে যাবে! সবকিছু প্রায় ধ্বংস হওয়ার পথে চলে যাবে….. ব্লা…ব্লা…ব্লা..

গত এক দশকে বাংলাদেশের হাজারখানেক সিনেমা হল বন্ধ হয়ে গেছে। কার জন্য হয়েছে এটা? বাংলা ছবির জন্য? না কি হিন্দি ছবির জন্য? আগে বছরে ১০০র উপরে সিনেমা তৈরী হতো। এখন তৈরী হচ্ছে ৩০-৪০টা? কে এর জন্য দায়ী? হিন্দি সিনেমা?? একসময় স্বপরিবারে বাঙালীরা সিনেমা হলে গিয়ে সিনেমা দেখতেন! মাঝে-মধ্যেই হাউজফুল হতো অনেক হল! এখন সিনেমা হলে শ্রমজীবী মানুষও যেতে চান না! হিন্দি সংস্কৃতি কি এর জন্য দায়ী? নায়িকাদের ল্যাংটা করার পরেও রিক্সাওয়ালাদের পর্যন্ত হলমূখী করতে পারা যায়নি! এর জন্য দায়ী কারা?? বাংলাদেশী সিনেমা শিল্পী-ব্যবসায়ীরা? না কি হিন্দি সিনেমার পরিচালকরা??

হিন্দি সিনেমার পেটের মধ্যে থেকে মারমার-কাটকাট ব্যবসা করছে তামিল সিনেমা! হিন্দি সিনেমার সাথে টক্কর দিয়ে জনপ্রিয়তা পাচ্ছে কান্নাডা (কর্ণাটকের) সিনেমা! হিন্দি সিনেমার দাপটকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে ব্যবসা করছে টালিগঞ্জের বাংলা সিনেমা! আর এদিকে ঢাকাইয়া ধাড়িরা ম্যা ম্যা করছে…. হিন্দি আইলে তাগো সব শ্যাষ হইয়া যাইবো!! দেশের মানুষ সব হিন্দু হইয়া যাইবো!!

বসুন্ধরা সিনেপ্লেক্স, যমুনা ফিউচার পার্কের সিনেপ্লেক্সে ইংরেজিসহ বিদেশী ভাষার ছবি দেখতে লাইন দিয়ে টিকিট কাটে এদেশের মধ্যবিত্ত বাঙালীরাই! টিকিটের দাম সেখানে ৩-৪ শত টাকা! মানসম্মত বাংলা সিনেমাও সেখানে হাউজফুল হয়! আর এদিকে ৫০ টাকার টিকিট কেটে সিনেমা দেখার লোক পাওয়া যায় না! কিন্তু তারপরও ধাড়িদের ম্যা ম্যা বন্ধ হয় না! হিন্দি সিনেমা যদি এতই চলে, যোগ্যতা থাকলে তোরাই বাংলা ছবি বন্ধ করে হিন্দি ছবি বানা! বিশ্ববাজারে ব্যবসা কর! নিষেধ করলো কে?

বছরের পর বছর ধরে বাংলাদেশের মানুষের শিল্পরুচিকে যে ধর্ষণ করা হলো! মানসম্মত সিনেমা দেখতে না দিয়ে বঞ্চিত করা হলো! বস্তাপঁচা, কুরুচিপূর্ণ আর গাধামিতে ভরা সিনেমা দেখতে বাধ্য করে রুচিশীল বাঙালীদের সিনেমাবিমূখ করা হলো! অশ্লিলতা দিয়ে অসংখ্য মানুষকে বিপথগামী করা হলো…. এগুলোর দায়ভার এই ঢাকাইয়া ধাড়িদের উপর চাঁপিয়ে এদেরকে আইনের কাঠগড়ায় হাজির করা উচিত!

শুধু হিন্দি ছবি নয়! বরং বিশ্বের সকল ভাষার বিখ্যাত ছবিগুলো, মানসম্মত সিনেমাগুলো বাংলাদেশের সিনেমা হলে প্রদর্শন করা উচিত। সম্ভব হলে বাংলায় ডাবিং করে বা অন্তত বাংলা সাবটাইটেল দিয়ে দেখানো যেতে পারে। তা হলেই কেবলমাত্র এদেশের সিনেমাশিল্প টিকে থাকতে পারবে! রুচিশীল মানুষ আবার হলমূখী হবে। আর ধাড়িদের দল তখন বাধ্য হবে প্রতিযোগিতায় টিকতে দু’একটি হলেও মানসম্মত সিনেমা তৈরী করতে।

পাঠক লাল গোলদার
২৩ জানুয়ারী ২০১৫

৫ thoughts on “বাংলা বাদ! হিন্দি বানাও!!!

  1. শুধু হিন্দি ছবি নয়! বরং

    শুধু হিন্দি ছবি নয়! বরং বিশ্বের সকল ভাষার বিখ্যাত ছবিগুলো, মানসম্মত সিনেমাগুলো বাংলাদেশের সিনেমা হলে প্রদর্শন করা উচিত। সম্ভব হলে বাংলায় ডাবিং করে বা অন্তত বাংলা সাবটাইটেল দিয়ে দেখানো যেতে পারে।

    শতভাগ সহমত।

  2. বছরের পর বছর ধরে বাংলাদেশের

    বছরের পর বছর ধরে বাংলাদেশের মানুষের শিল্পরুচিকে যে ধর্ষণ করা হলো! মানসম্মত সিনেমা দেখতে না দিয়ে বঞ্চিত করা হলো! বস্তাপঁচা, কুরুচিপূর্ণ আর গাধামিতে ভরা সিনেমা দেখতে বাধ্য করে রুচিশীল বাঙালীদের সিনেমাবিমূখ করা হলো! অশ্লিলতা দিয়ে অসংখ্য মানুষকে বিপথগামী করা হলো…. এগুলোর দায়ভার এই ঢাকাইয়া ধাড়িদের উপর চাঁপিয়ে এদেরকে আইনের কাঠগড়ায় হাজির করা উচিত!

    কে দাঁড় করাবে? কেউ নেই। তারচেয়ে বরং এদের শাস্তি হিসাবে আমাদের বিনোদন খোরাক মেটানোর জন্য নীচের কোডকৃত কাজটি করা হোক।

    শুধু হিন্দি ছবি নয়! বরং বিশ্বের সকল ভাষার বিখ্যাত ছবিগুলো, মানসম্মত সিনেমাগুলো বাংলাদেশের সিনেমা হলে প্রদর্শন করা উচিত। সম্ভব হলে বাংলায় ডাবিং করে বা অন্তত বাংলা সাবটাইটেল দিয়ে দেখানো যেতে পারে।

  3. বাংলা ছবির যে অবস্থা,তাতে
    বাংলা ছবির যে অবস্থা,তাতে হিন্দি চলুক ভালো হবে! সর্বশেষ হল ভেঙে মার্কেট তৈরি করলে আরও বেশি ভালো হবে৷

  4. বছরের পর বছর ধরে বাংলাদেশের
    বছরের পর বছর ধরে বাংলাদেশের মানুষের শিল্পরুচিকে যে ধর্ষণ করা হলো! মানসম্মত সিনেমা দেখতে না দিয়ে বঞ্চিত করা হলো! বস্তাপঁচা, কুরুচিপূর্ণ আর গাধামিতে ভরা সিনেমা দেখতে বাধ্য করে রুচিশীল বাঙালীদের সিনেমাবিমূখ করা হলো! অশ্লিলতা দিয়ে অসংখ্য মানুষকে বিপথগামী করা হলো…. এগুলোর দায়ভার এই ঢাকাইয়া ধাড়িদের উপর চাঁপিয়ে এদেরকে আইনের কাঠগড়ায় হাজির করা উচিত!-একমত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *