বদলে যাওয়ার কাহিনী-২

আজকে নতুন বছরে প্রথম দিন , ঘন ঘন
সিগারেটে টান দিচ্ছে ভাদ্র।
পিকনিকে তার সাথে আরো ৮ জন
আছে। কচিং থাকায়
বাড়িতে যেতে পারেনি সে।
বাড়ির বন্ধুদের ব্যাপকভাবে মিস
করছে সে। গত বছর কত মজাই
না করেছিল সে ,
সে কথা ভেবে আলতো হাসি ফুটে উঠে ভাদ্রর
ঠোটের কোনে। হঠাতই তার
মনে পড়ে যায় মেঘার কথা। যেই
মেয়ে তার সাথে এক মুহুর্ত
কথা না বলে পারত না সেই
মেয়ে তার সাথে ২ দিন ধরে কোন
যোগাযোগই করে নি তার সাথে।
কারনটাও ছিল রাগ করার মতোই ,
ভাদ্র মেঘাকে কথা দিয়েছিল
যে সে আর কখনো ধুমপান
করবে না কিন্তু সেদিন সে তার
দেওয়া কথা রাখে নি।
দীর্ঘ তিনদিন পরে অবশ্য তার রাগ
ভেঙ্গেছিল তাও আবার ভাদ্রর

আজকে নতুন বছরে প্রথম দিন , ঘন ঘন
সিগারেটে টান দিচ্ছে ভাদ্র।
পিকনিকে তার সাথে আরো ৮ জন
আছে। কচিং থাকায়
বাড়িতে যেতে পারেনি সে।
বাড়ির বন্ধুদের ব্যাপকভাবে মিস
করছে সে। গত বছর কত মজাই
না করেছিল সে ,
সে কথা ভেবে আলতো হাসি ফুটে উঠে ভাদ্রর
ঠোটের কোনে। হঠাতই তার
মনে পড়ে যায় মেঘার কথা। যেই
মেয়ে তার সাথে এক মুহুর্ত
কথা না বলে পারত না সেই
মেয়ে তার সাথে ২ দিন ধরে কোন
যোগাযোগই করে নি তার সাথে।
কারনটাও ছিল রাগ করার মতোই ,
ভাদ্র মেঘাকে কথা দিয়েছিল
যে সে আর কখনো ধুমপান
করবে না কিন্তু সেদিন সে তার
দেওয়া কথা রাখে নি।
দীর্ঘ তিনদিন পরে অবশ্য তার রাগ
ভেঙ্গেছিল তাও আবার ভাদ্রর
প্রবলভাবে ক্ষমা চাওয়ার পরে।
হঠাত কে যেন ডাক দিল ভাদ্রকে ,
তাই ভাদ্রও
কল্পনা ছেড়ে বাস্তবে ফিরল। আজও
সে সিগারেট খাচ্ছে আবার তার
দেওয়া কথা ভাঙ্গছে তবে আজ আর
তার কারো কাছে এর জন্য
ক্ষমা চাইতে হবে না। কারন
মেঘা যে তাকে ছেড়ে চলে গেছে যা রেখে গেছে তাহল
তার জন্য শতভাগ ভালবাসা, কিন্তু
ভালবাসার মানুষটিই
যদি না থাকে তবে সেই
ভালবাসার কোন মূল্যই
থাকে না জীবনে , থাকে শুধু
আক্ষেপ।
এভাবেই হয়ত চলে যাবে জীবন!!

১ thought on “বদলে যাওয়ার কাহিনী-২

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *