ফেসবুকে এপস বিড়ম্বনা

ফেসবুকে অনেক রিকোয়েস্ট আসে বিভিন্ন বন্ধুর কাছ থেকে বিভিন্ন কিছু খেলতে বলে। নোটিফিকেশনে আসে Somebody(নাম) requested you to play something(ক্যাণ্ডি ক্রাশ, তোমার উপর কার গোপন অভিশাপ আছে, কে তোমাকে মিস করে ইত্যাদি নামে)। এই লিংক গুলোতে ক্লিক করলেই যেটা সবার আগে আসে তা হল- এই এপ্লিকেশন আপনার পাবলিক তথ্য, বন্ধুতালিকাতে প্রবেশ করতে পারবে। সচারচর আমি এই এপ্রিকেশন গুলি প্রায়ই এড়িয়ে চলি। আমি আমার নিজের একাউন্টের অথ্য অন্য কোন এপ্লিকেশন ব্যবহার করবে এটা চাইনি। তাই বরাবরই এই স্টেজে গেলে আমি ব্রাউজারের ট্যাব বন্ধ করে দিই।


ফেসবুকে অনেক রিকোয়েস্ট আসে বিভিন্ন বন্ধুর কাছ থেকে বিভিন্ন কিছু খেলতে বলে। নোটিফিকেশনে আসে Somebody(নাম) requested you to play something(ক্যাণ্ডি ক্রাশ, তোমার উপর কার গোপন অভিশাপ আছে, কে তোমাকে মিস করে ইত্যাদি নামে)। এই লিংক গুলোতে ক্লিক করলেই যেটা সবার আগে আসে তা হল- এই এপ্লিকেশন আপনার পাবলিক তথ্য, বন্ধুতালিকাতে প্রবেশ করতে পারবে। সচারচর আমি এই এপ্রিকেশন গুলি প্রায়ই এড়িয়ে চলি। আমি আমার নিজের একাউন্টের অথ্য অন্য কোন এপ্লিকেশন ব্যবহার করবে এটা চাইনি। তাই বরাবরই এই স্টেজে গেলে আমি ব্রাউজারের ট্যাব বন্ধ করে দিই।

গত কয়েকদিন ধরেই বিভিন্ন বন্ধুর কাছ থেকে রিকোয়েস্ট আসতে থাকে অমুক রিকোয়েস্টেড ইউ টু প্লে চেন্জ ইউর ফেসবুক স্কিন। ফেসবুকে নীল দেয়াল এর থেকে যদি ছুটি পেয়ে নিজের ইচ্ছা মত কোন রঙে ফেসবুক কে রাঙাতে পারি এই ভেবে আমি লিংকে যাই। এই লিংকেরও ওই একই কথা যে এই এপ্লিকেশন আমার পাবলিক প্রোফাইল এবং বন্ধুতালিকায় প্রবেশ করতে পাবে। অনেক বন্ধুই যেহেতু রিকোয়েস্ট পাঠিয়েছে, এ নিয়ে নেতিবাচক কোনো লিখা কোথাও পড়িনি এবং সর্বোপরি প্রবল কৌতুহলের কারণে এই এপটাকে আমি অনুমতি দিলাম আমার বন্ধুতালিকা এবং পাবলিক প্রোফাইলে ঢোকার। এর পরের ধাপে দেখলাম আমাকে এই এপে প্রবেশ করতে হলে বন্ধুদেরকে আমণ্ত্রণ জানাতে হবে। অনুমতি দিলাম। দেখি সারি বদ্ধভাবে আমার বন্ধুতালিকার বন্ধুদের নাম চলে এসেছে। এর মধ্যে এমন কোনো কোনো বন্ধুর নাম আছে যারা ভীষণ ব্যস্ত, যাদের কাছে আমার ইনভাইটেশন পাঠালে হয়ত বিরক্ত হতে পারে। তাই তাদের নাম রিমুভ করতে গেলাম। দেখি রিমুভ করার অপশন নাই। অর্থাৎ সবাইকেই পাঠাতে হবে। অতিরিক্ত কৌতুহলের কারণে ইনভাইটেশন পাঠালাম সবাইকে। এভাবে ছয় সাত বার পেজ আসল আর ছয় সাত পেজ ভর্তি নাম অনুসারে বন্ধুদের ইনভাইটেশন পাঠালাম। এর পর আরেকটি পেজ আসল যে পেজে কিছু এন্সক্রিপ্টেড লেখা আছে। ইংরেজিতে লেখা আমি যদি সার্ভেতে অংশনিই তাহলে এ পেজ আনলক হবে। এন্সক্রিপ্টেড লেখার একটায় ক্লিক করে প্রবেশ করতে দেখলাম নতুন আরেক ট্যাব খোলা যাতে দেখাচ্ছে- তোমর নামের অর্থকি জেনে নাও। আমি পূর্বের ট্যাবে গিয়ে দেখি সেখানে লেখা আছে- আমরা দেখছি আপনি সার্ভে ঠিক মত করছেন কি না। বাধ্য হয়ে আবার নামের অর্থ জানার ট্যাব ওপেন করে তাতে নিজের মোবাইল নাম্বার টাইপ করলাম। আমার মোবাইলে এস এম এসে কোড আসল। কাঙ্খিত ঘরে কোড দিয়ে এন্টার চাপ দিলাম। এরপর নাম ডাউনলোডের একটা লিংক আসল। আমি পূর্বের ট্যাবে গিয়ে দেখি পেজ আনলক হয়েছে কিন্তু কোনো অপশন নেই। সেখানে কিছু সময় পর আবার কিছু বিজ্ঞাপন এসেছে আর সে গুলোকে ক্লিক করতে বলছে। আলটিমেটলি হতাশ হয়ে ট্যাবগুলো বন্ধ করে দিলাম। কাজের কাজ বলতে যা হয়েছে তা হল আমার মোবাইল নাম্বারে দিনে দুইটাকা দরে ফ্রি ডাউনলোড কনটেন্ট লিংক আসার কোনো সার্ভিস চালু হয়ে গিয়েছে যা বন্ধ করার উপায় আমি পাচ্ছিনা।

এখন নিজেকে ভীষণ প্রতারিত মনে হচ্ছে। আমার বন্ধু তালিকার যারা আমাকে এই এপসের অনুরোধ পাঠিয়েছেন তাদের জিজ্ঞেস করছি আপনার কি আপনাদের ফেসবুক দেয়ালের রঙ পরিবর্তন করতে পেরেছেন? নাকি আমার মত প্রতারিত হয়েছেন? সেই সাথে এটা কোনো হ্যাকিং প্রচেষ্টাকিনা তা নিয়ে চিন্তায় আছি। কেউ আমার মত অবস্থায় পূর্বে পরে থাকলে বা আমার কিছু করণীয় থাকলে জানাবেন দয়করে। আর আমার বন্ধুতালিকার সকলের কাছে ক্ষমা চাচ্ছি উটকো রিকোয়েস্ট পাঠানোর জন্যে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *