এবং তিনিই বঙ্গবন্ধু

দেশ স্বাধীন বিজয়ে ১৬ ডিসেম্বর বাঙালির স্বপ্নের লাল সবুজের পতাকা আর ৫৬ হাজার বর্গমাইল এর এক সুজলা সুফলা মানচিত্র, পাকিস্তানের ২৪ বছরের শোষণের অবসান হয়ে,  দেশের নাম হল জয় বাংলার বাংলাদেশ।

শেখ মুজিব এমন এক নাম যার নামের আগে বলা হয়েছে বঙ্গের বন্ধু বঙ্গবন্ধু।
পাকিস্তানের ২৪ বছর শাসন আমলের ১২ বছর তিনি কারাভোগ করেছেন শুধু সোনার বাংলার জন্য, বাঙালি জাতির জন্য, ৫৬ হাজার বর্গমাইলের জন্য।
শুধু মাত্র এই জাতির জন্য নিজ সন্তান, স্ত্রীকে সময় পর্যন্ত দিতে পারি নি, খালি এই বাংলার জন্য।
১০ই জানুয়ারি ১৯৭২ বাংলার আকাশ বাতাস কম্পিত,  কোন এক পথ নেই গলি নেই কখন আসবে সেই সোনার বাংলার স্বপ্নদ্রষ্টা।

দেশ স্বাধীন বিজয়ে ১৬ ডিসেম্বর বাঙালির স্বপ্নের লাল সবুজের পতাকা আর ৫৬ হাজার বর্গমাইল এর এক সুজলা সুফলা মানচিত্র, পাকিস্তানের ২৪ বছরের শোষণের অবসান হয়ে,  দেশের নাম হল জয় বাংলার বাংলাদেশ।

শেখ মুজিব এমন এক নাম যার নামের আগে বলা হয়েছে বঙ্গের বন্ধু বঙ্গবন্ধু।
পাকিস্তানের ২৪ বছর শাসন আমলের ১২ বছর তিনি কারাভোগ করেছেন শুধু সোনার বাংলার জন্য, বাঙালি জাতির জন্য, ৫৬ হাজার বর্গমাইলের জন্য।
শুধু মাত্র এই জাতির জন্য নিজ সন্তান, স্ত্রীকে সময় পর্যন্ত দিতে পারি নি, খালি এই বাংলার জন্য।
১০ই জানুয়ারি ১৯৭২ বাংলার আকাশ বাতাস কম্পিত,  কোন এক পথ নেই গলি নেই কখন আসবে সেই সোনার বাংলার স্বপ্নদ্রষ্টা।
জয় বাংলার স্লোগান শুধু সেদিন বাংলাই হই নি, ইংল্যান্ড,  দিল্লী বিমানবন্দর সব জায়গাই, সবার ইচ্ছা কখন আসবে সেই নেতা, কারও কাছে পরিচত  কবি, কারও আবার সোনার  বাংলার সপ্নদ্রষ্টা।
দুপুর ১টা ৪১ মিনিট, ব্রিটিশ রাজকীয় বিমানে আসলেন সেই বাংলাই , এসে তিনিই তার আবেগ ভরা চোখে চারদিক তাকালেন, চারদিকে খালি জয় বাংলার তীব্র বলিষ্ঠ কণ্ঠের স্লোগান।
লক্ষ জনতার ময়দান তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানে সেই বলিষ্ঠ কণ্ঠে বললেন,  নতুন করে গড়ে উঠবে এই বাংলা। বাংলার মানুষ হাসবে, বাংলার মানুষ খেলবে, বাংলার মানুষ মুক্ত হাওয়াই বাস করবে, বাংলার মানুষ পেট ভরে ভাত খাবে।
এটাই আমার জীবনের কাম্য, এটাই আমার সাধনা।

সেই সাধনার পথ ধরে আমরা পেয়েছি আজকে বাংলাদেশ। জানি না আজকের প্রজন্ম বঙ্গবন্ধুরে কি ভাবে ভাবছে? কিভাবে জানছে? নতুন নতুন কুলাঙ্গার ইতিহাস রচনা করছে!! জাতির পিতা বলতে মুখে তিতা লাগে, কিন্তু ঠিকই ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করে যাচ্ছে।
সেই চেতনা, সেই ভালবাসা সেই ধারাকে নিয়ে এগিয়ে যেতেই হবে আমাকে আপনাকে তোমাকে।

জয় বাংলা
জয় বঙ্গবন্ধু

২ thoughts on “এবং তিনিই বঙ্গবন্ধু

  1. বঙ্গবন্ধু ১০ ই জানুয়ারি দেশে
    বঙ্গবন্ধু ১০ ই জানুয়ারি দেশে ফিরে যে ভাষণটি দিয়েছিলেন তা যে কোন বিচারেই অসাধারন ছিল । যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটির প্রায় সকল ইস্যু নিয়ে দিক নির্দেশনা ছিল তার ঐ ঐতিহাসিক ভাষণটিতে। ৭ই মার্চের ভাষনের মত এই ভাষণটিও অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *