নিজের বেলায় ষোল আনা

এক বৃদ্ধা তার বিদেশ ফেরত ভাইয়ের সাথে তার মেয়ের জামাই আর পুত্র বধূর গল্প করছিলেন।

বুঝেছিস ভাই,মেয়ের জামাই আমার খুবই ভালো। এমন জামাই পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। প্রতিদিন সব কাজে আমার মেয়েকে খুব হেল্প করে। রান্না করা কাপর কাঁচা এবং ঘরের অন্য সব কাজেও অফিস থেকে ফিরেই মেয়ের সাথে লেগে যায়। এমন কি রাতে শোবার সময় মশারিটাও খাটায় জামাই। তাছাড়া মেয়ের কথার বাইরে একটুও যায় না। জামাই আমার মেয়েকে বড় সুখে রেখেছে।

আর ছেলের বউ কেমন?


এক বৃদ্ধা তার বিদেশ ফেরত ভাইয়ের সাথে তার মেয়ের জামাই আর পুত্র বধূর গল্প করছিলেন।

বুঝেছিস ভাই,মেয়ের জামাই আমার খুবই ভালো। এমন জামাই পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। প্রতিদিন সব কাজে আমার মেয়েকে খুব হেল্প করে। রান্না করা কাপর কাঁচা এবং ঘরের অন্য সব কাজেও অফিস থেকে ফিরেই মেয়ের সাথে লেগে যায়। এমন কি রাতে শোবার সময় মশারিটাও খাটায় জামাই। তাছাড়া মেয়ের কথার বাইরে একটুও যায় না। জামাই আমার মেয়েকে বড় সুখে রেখেছে।

আর ছেলের বউ কেমন?

বউটার কথা আর বলিস না ভাই,অলসের শেষ। ডাইনী একটা! আমার ছেলের হাড় মাংস জ্বালিয়ে খেল। সকাল দশটার সময় ঘুম থেকে উঠে। উঠার সাথে সাথে ছেলে গিয়ে বেড টি দিয়ে আসে। ঘরের কোনো কাজতো করেইনা। অফিস থেকে ফিরে ক্লান্ত শরীরে ছেলে কেই সব কাজ করতে হয়। ছোট মেয়েটার হোম ওয়ার্কটাও দেখিয়ে দিতে হয়। আর নবাবজাদি পায়ের উপর পা তুলে বসে বসে ঘণ্টার পর ঘণ্টা টিভি দেখে আর মোবাইলে গল্প করে।

৯ thoughts on “নিজের বেলায় ষোল আনা

  1. গল্পটা বাংলাদেশের একটা মডারেট
    গল্পটা বাংলাদেশের একটা মডারেট মুসলিম পরিবারের কমন চিত্র। যারা ধর্ম কর্ম পালন করে তারা এই ধরনের দ্বিমূখী আচরণ করে।

    1. ভাইরে,আপনে সব কিছুর মধ্যে
      ভাইরে,আপনে সব কিছুর মধ্যে ধর্ম টেনে আনেন কেন? ধর্ম ভালো না লাগলে মানবেন না। এর জন্য কেউ আপনার কল্লা কাটবেনা। কিন্তু শুধু শুধু আরেক জনের বিশ্বাসে আঘাত দেয়া কী ঠিক কাজ বলেন?

        1. অবশ্যই কাটবেনা। কেউ ধর্ম না
          অবশ্যই কাটবেনা। কেউ ধর্ম না মানলে তার গলা কাটতে হবে এমন কথা কোনো ধর্ম গ্রন্হেই বলা হয় নাই। কেউ নাস্তিক হতেই পারে ধর্মের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রশ্ন তুলতেই পারে এতে সমস্যা নাই। সমস্যাটা তখনি হয় যখন কেউ ধর্ম নিয়ে আজেবাজে কথা বলে। আপনি যদি ভদ্রভাবে বলেন ধর্মে আপনার বিশ্বাস হয়না তাই আপনি মানেন না। তাহলে আপনাকে কিছু বলার বা করার অধিকার কারো আছে বলে মনে করিনা। কিন্তু যদি কারো ধর্ম নিয়ে বা ধর্মগুরুদের নিয়ে বাজে কথা বলেন তাহলে তো তার খারাপ লাগতেই পারে। আপনার মা-বাবা অথবা যাদেরকে আপনি শ্রদ্ধা করেন তাদের নামে আমি যদি বাজে কথা বলি সেটা কী আপনার ভালো লাগবে?

          1. তারমানে গুরিয়ে পেছিয়ে বুঝাইতে
            তারমানে গুরিয়ে পেছিয়ে বুঝাইতে চাইলেন ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে বললে কল্লা কাটলে কিছু করার নাই। কলমের বিরুদ্ধে অস্ত্র। ধর্ম আফিমের চাইতেও খারাপ।

  2. হুম কী করবো বলুন আমি যে বিষয়ে
    হুম কী করবো বলুন আমি যে বিষয়ে লিখতে পারি। সে বিষয়ে লিখলে এই ব্লগের কারোই ভালো লাগবেনা। তাই এখন পুরোনো জোকস নতুন মোড়কে দেয়াই ভালো।

  3. এই ছোট জোকসটির মধ্যে অনেক বড়
    এই ছোট জোকসটির মধ্যে অনেক বড় একটা সত্যি লুকিয়ে রয়েছে। চাইলে এটা নিয়ে অনেক লেখা যায়।
    আসলে যে বৃদ্ধাটি ছেলের বউয়ের সমালোচনা করছে সেও নিজেও এই জাতীয় সমালোচনার শিকার হয়েছে তার শ্বশুর শ্বাশুরির কাছ থেকে যখন সে নিজে তার স্বামীর স্ত্রী হিসেবে এই সংসারটিতে এসেছিল। পুরুষতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থায় নারীদের দেখা হয় এক ধরনের বোঝা হিসেবে। যুগ যুগ ধরে চলে আসা এই প্রবণতার কারনে মেয়েরাও এক ধরনের হীন মন্যতায় ভোগে । তারা কোন পুরুষকে অবলম্বন করে সারাটি জীবন বাঁচতে চায়। তাদের সংসারটিতে বাড়তি কোন নারী আসুক এটা তারা চায় না কিন্ত বাস্তবতার খাতিরে না মেনে উপায় থাকে না। অপর দিকে মেয়ের বিয়ে দিয়ে দিয়ে মেয়ে জামাই পাওয়া মানে সংসারে আরো একজন বাড়তি পুরুষের আবির্ভাব হওয়া। আর সেই পুরুষটি যদি অর্থনৈতিক ও সামাজিক ভাবে শক্তি শালী হয় তাহলে তো কথাই নেই ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *