জামাত ও বি এন পি সমাবেশে নাস্তিকতা!!!

সাইদি যদি নিরাপরাধই হবে তাহলে জামাত আর বিএনপির এতো ভয় কেন? আজ হোয়াইট হাউজের সামনে একদল নারী পুরুষ যারা বিএনপি ও জামাতের টাকায় ভাড়া খাটতেছে সমাবেশে ২৭৫ ডলার পার হেডে, গলা ফাটিয়ে চিৎকার করছিলো সাইদি তারেক জিয়া দুধে দোয়া, ফুলের মত পবি্ত্র (এই কথার যদি ১ ভাগও সত্যি হয় আমি কান কেটে কুকুর দিয়ে খাওয়াবো ফেসবুক ও ব্লগ ছেড়ে ইয়া সাইদু ও ইয়া তারেকু জপ করবো, এও জানি যে ১ ভাগ কেন সিকি ভাগ কেউ প্রমাণ করতে পারবে)। অবাক হলাম নিরাপরাধ পবিত্র ধর্মীও নেতা ও খালেদা পুত্রের মুক্তির দাবীতে আয়োজিত সমাবেশে লোকজন এসেছে টাকার বিনিময়ে। ২০০ ডলার, দুপুরের খাবার ও যাতায়াত ভাড়া সব মিলিয়ে পার হেড ২৭৫ ডলার করে পেয়েছে একেক জন। (সূত্র আশরাফ কাদের, হোটেল বয়, পেন্সিল্ভিয়ানা থেকে আগাত উনি অবশ্য ৩৫০ ডলার পেয়েছে, কেন কারন বলেনি)। ছুটির দিনে ফ্রি ডিসি তে বেড়ানো পরিবারসহ সেই সাথে উপরি মাথা পিছু আয় ২৭৫ ডলার, ওফ সোনায় সোহাগা। সমাবেশের অর্ধেক মানুষ কে দেখলাম ছবি তোলায় ব্যস্ত হোয়াইট হাউজের সামনে ও সামনের পার্কে এবং অনেক কে দেখলাম সমাবেশ থেকে কেটে পরতে ব্যস্ত। বুঝলাম না নিরাপরাধ মানুষ কে নির্দোষ প্রমাণে এতো টাকার ছড়াছড়ি কেন?

সাইদি যদি নিরাপরাধই হবে তাহলে জামাত আর বিএনপির এতো ভয় কেন? আজ হোয়াইট হাউজের সামনে একদল নারী পুরুষ যারা বিএনপি ও জামাতের টাকায় ভাড়া খাটতেছে সমাবেশে ২৭৫ ডলার পার হেডে, গলা ফাটিয়ে চিৎকার করছিলো সাইদি তারেক জিয়া দুধে দোয়া, ফুলের মত পবি্ত্র (এই কথার যদি ১ ভাগও সত্যি হয় আমি কান কেটে কুকুর দিয়ে খাওয়াবো ফেসবুক ও ব্লগ ছেড়ে ইয়া সাইদু ও ইয়া তারেকু জপ করবো, এও জানি যে ১ ভাগ কেন সিকি ভাগ কেউ প্রমাণ করতে পারবে)। অবাক হলাম নিরাপরাধ পবিত্র ধর্মীও নেতা ও খালেদা পুত্রের মুক্তির দাবীতে আয়োজিত সমাবেশে লোকজন এসেছে টাকার বিনিময়ে। ২০০ ডলার, দুপুরের খাবার ও যাতায়াত ভাড়া সব মিলিয়ে পার হেড ২৭৫ ডলার করে পেয়েছে একেক জন। (সূত্র আশরাফ কাদের, হোটেল বয়, পেন্সিল্ভিয়ানা থেকে আগাত উনি অবশ্য ৩৫০ ডলার পেয়েছে, কেন কারন বলেনি)। ছুটির দিনে ফ্রি ডিসি তে বেড়ানো পরিবারসহ সেই সাথে উপরি মাথা পিছু আয় ২৭৫ ডলার, ওফ সোনায় সোহাগা। সমাবেশের অর্ধেক মানুষ কে দেখলাম ছবি তোলায় ব্যস্ত হোয়াইট হাউজের সামনে ও সামনের পার্কে এবং অনেক কে দেখলাম সমাবেশ থেকে কেটে পরতে ব্যস্ত। বুঝলাম না নিরাপরাধ মানুষ কে নির্দোষ প্রমাণে এতো টাকার ছড়াছড়ি কেন?

আরেকটা ব্যাপার বুঝলাম না, জামাত সমর্থক মহিলারা কেন পর পুরুষের ছবি ধরে চিৎকার করছে (এটা তো নাস্তিকতা)। জামাত সমর্থক মহিলারা কেন অশরীয়তি কাজ করছে? বেগানা পুরুষের জন্য ভিনদেশের পুরুষ ও নারীদের সামনে চিৎকার করছে সাইদী সুচরিত্রের পুরুষ দাবী করে (একজন পুরুষের চরিত্র তার ঘরের নারীই বলতে পারে কতটা সু আর কতটা কু, বিষয়টা ব্যাপক টেনশনের উদ্বেগ সৃষ্টি করল এই মহিলারা কেন এতো জোর গলায় বলছে, পরে মনে হল ডলারের গরমেও হইতে পারে)। শাহবাগ কে তারা নাস্তিকতার আখড়া দাবী করল কারন ওখানে বেগানা নারী পুরুষ চিল্লা মিল্লি করে শ্লোগান দেয়, গান গায়। আমি মিনিট দশেক দাড়িয়ে দেখলাম এই সমাবেশে আগত নারী (সংখ্যায় পুরুষের থেকে বেশী) ও পুরুষ চিৎকার করছে শ্লোগান দিচ্ছে, সুর করে উপহাস করে গান করছে, মাথা চুলকাতে চুলকাইতে ভাবলাম শাহবাগীরা যা করছে এরাও তাই করছে তাইলে তো এরাও নাস্তিক। বি এন পি ও নব জামাতের মহিলা আমির খালেদাতুল জিয়াউল জেফাজতে ইসলামী বেগমাতুল নাস্তিকতা বিষয়ে যে আলোক পাত করেছেন, তার প্রেক্ষিতে প্রমাণ হইল, জামাত ও বিম্পি অনুসারীরাও নাস্তিক। সব থেকে অবাক কাণ্ড সমাবেশের দুইজনের কাছ থেকে (যারা সমাবেশের থেকে ফটো সেশনে ব্যস্ত তাদের কাছ থেকে) জানলাম এই শ খানেক লোকের মধ্যে খুব কম লোকই একে ওপর কে জানে। আবারো অবাক হইলাম জামাত ইসলামী নারীরা বেগানা পুরুষদের সাথে কি নাস্তিকতায় মাতছে কি অবাক কাণ্ড, জামাতি আর বিম্পি নাস্তিক দেখলাম। বেগানা পুরুষের সাথে এক কাতারে দাড়াই চীৎকার দেয়া আর বেলেল্লাপনা এক জিনিস, শাহবাগে আগত মেয়েদের নিয়ে করা উক্তিতে প্রমাণ হইল, জামাতের ও বিম্পির নারীরা বেহায়া ও অভদ্র ঘরের। মনে মনে কইলাম কি কাণ্ড মমিন!!!
ক্যামনে কি ভাবতে ভাবতে দিন গেল, যে এক ঘণ্টার সমাবেশের জন্য ১০০ মানুষের জন্য খরচ ২৭৫০০ ডলার যা বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ২২ লাখ টাকা, উরিবাপ রে মমিন!!!। এতো টাকা শুধু এই ১০০ লোকের জন্য তাহলে দেশে এতো হরতাল, এতো খুন, এতো লোক জমায়তের জন্য কি পরিমাণ টাকা খরচ হয় ভাবতেই চান্দি থেকে তিরিশটার মত চুল পরে গেল।

কিন্তু কথা হলো চিৎকার দিয়ে, গলার রগ ফুলিয়ে, লিফলেট ছাপিয়ে বলা হচ্ছে বিনা কারনে জামাত ও বিম্পির উপর অত্যাচার চলছে, হাসিনা মদদে শাহবাগ প্রজন্ম নাটক করছে ওরা মানুষ না নাস্তিক হাসিনার পেটোয়া বাহিনী, যখন জানতে চাইলাম আপনাদের কথা এক বিন্দু সত্যি হলে তো বাংলাদেশে ভূতের উৎপাত শুরু হইছে, কারন জামাত আর বিম্পি তো শিশু নাইলে সাধু, তারা বোতলে খায় দুদ। ওরা তো নিষ্পাপ কিছু করতাছে না, ঘরের মধ্যে বইসা আছে আর পুলিস আর শাহবাগের পোলাপানরা তাণ্ডব চালাইতেছে। এই কথাই আমারে জিগাইল সমাবেশের নেতা গোছের একজন, কোন স্টেট থেকে আসছেন, কইলাম মেরিল্যান্ড থেকে আসছি, নাম কি জানতে চাইলে নাম বলি। তিনি মোবাইল ফোনে হামিদ নামে কাউকে ফোন দিলেন, এবং রাগ রাগ গলায় জিগেসা করে ফারজানা খান নামে কেউ লিস্টে আছে কিনা মেরিল্যান্ডের? ফোনের ঐ পাশ থেকে কেউ কিছু বলার আগেই আমি কই আমার নাম লিস্টে পাইবেন না আলহামদুলিল্লাহ। আমি এমনই আসছি সমাবেশ দেখে। লোকটা আমাকে হেভি চেইত্তা বলে দেখি আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স। আমি কই কেন? নেতা কই, কেন আবার আমাদের সমাবেশ ভণ্ডুল করতে চাও দেখাচ্ছি মজা। দাও তাড়াতাড়ি দাও। আপনি থেকে চট করে তুমি কই সে। আমি অকারনেই হাসি দিয়ে কইলাম, ১০ হাত দূরে যে মামু (ইউ এস পুলিশ) খাড়াই আছে তারে ডাকেন দেখি সেই তল্লাসি নেক, আইডি চেক করুক। উনি আমার প্রতি অগ্নি দৃষ্টি হেনে খারান এইখানে, নড়বেন না (আবার আপনি বলে) খবরদার বলে পুলিশের দিকে পাঁচ পা যেয়েই সাইড চেঞ্জ করে সমাবেশের দিকে চলে গেল। আমি খাড়াই আছি তো আছি কেঊ আসে না একা একা বোকার মত হাসি। না পুলিশ না ন্যাতা (নেতা) কেউ আসে না। কি আর করা যাদের কে নিয়ে ডিসি গেছি ( কানাডা থেকে আগত বন্ধুর ও তার পরিবার) তারা আমাকে জিগেস করে একা একা খাড়াই হাসতাছি কেন? আমি তাদের জিগেসা করি তোমাদের ছবি তোলা হইছে? ওরা জানতে এখানে কিসের ভীর? আমি বলি তাদের ঘটনা, শুনে আমার বন্ধু বলে ইশ ২৪ তারিখ পর্যন্ত এখানে থাকলে তারাও নিশ্চয় যোগ দিত আমাদের সমাবেশে, যুদ্ধাপরাধীদের শাস্তির দাবীতে।

আমি যখন আমার বন্ধুদের কে সব জামাত শিবির আর বিম্পির নারকীয় কাহিনী বলছিলাম তখন আমাদের আশে পাশে জামাত আর বিম্পির লোক ঘোরাফেরা করছিলো আর আঁখিও সে গুলি মারছিলস পারলে গলা টিপেই ধরত। কিন্তু আমি কি ডরাই সখি ভিখারি রাঘব বোয়ালে।

১৯ thoughts on “জামাত ও বি এন পি সমাবেশে নাস্তিকতা!!!

  1. এইসব ছাগুরা কিছু পারুক আর না
    এইসব ছাগুরা কিছু পারুক আর না পারুক মানুষকে বিনোদন দিতে কিন্তু এরা কৃপণতা করে না।যাই হোক আপু ঐ নেতার দেহের পশ্চাৎ প্রান্তে জোড়সে একটা উসঠা মারলে বেশি খুশি হইতাম।পরবর্তী সময়ে এই সুযোগ মিস না করার জন্য অনুরোধ জানালাম।লিখা ভাল হয়েছে,এরকম আরো লিখার মাধ্যমে বিদেশের তথ্যাবলী আমাদের সামনে যাতে তুলে ধরতে পারেন সেই শুভ কামনা রইল।

    1. যে দেশে এখন আছি রে ভাই ইচ্ছাই
      যে দেশে এখন আছি রে ভাই ইচ্ছাই মরে গেলেও লাত্থি মারা তো দূরে একটা কিলও দেয়া যাবে না পাবলিকের সামনে। বাক স্বাধীনতার দেশ। এক কারনে আমার কানাডার বন্ধুদের সাথে জোরে জোরে জামাত বিম্পির নোংরামো তুলে ধরতে পেরেছি।

      1. হুম,তাইলে আপনি চালিয়ে যান
        হুম,তাইলে আপনি চালিয়ে যান তাদের প্রোপাকান্ড নসাৎ করে দেবার চেষ্টা। নিজ নিজ অবস্থান থেকে সাধ্য মত এগিয়ে আসলে এরা টিকতে পারবে না।

  2. যে যেরকম, সে মানুষকে ওইরকমই
    যে যেরকম, সে মানুষকে ওইরকমই ভাবে। জামাত-বিএনপি টাকা দিয়া লোক ভাড়া কইরা মিটিং মিছিল, হরতাল চালায়। আর ঐদিকে গলা ফাটায়ে চেঁচায়, শাহবাগে মানুষ নাকি বিরিয়ানী খাওয়ার লোভে যায়। এদের রুচিও নিম্নমানের।

    পোষ্টটা সবাই শেয়ার করেন প্লীজ।

    1. সহমত,এই সব শুকুনদের
      সহমত,এই সব শুকুনদের প্রোপাকান্ড মানুষের সামনে শেয়ার করে সাধারণ মানুষের চোখ কান খুলে দেওয়া দরকার।

  3. যারা বেশী নাস্তিক, বেশী
    যারা বেশী নাস্তিক, বেশী হারামি, বেশী লুইচ্চা, বেশী খাইস্টা তারাই অন্য কে খারাপ বলে…আপা আপনি লেখেন। জেখানেই হারামি সেখানেই প্রতিরোধ।

  4. টাকায় বাঘের দুধও নাকি কেনা
    টাকায় বাঘের দুধও নাকি কেনা যায় তবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার যে আরেক ধাপ উল্লম্ফন ঘটেছে তাকে কেনা যাবে না ডলার-পাউন্ডে।হয়তো আন্দোলন ছিনতাই হবে,অনেক দাবিই থাকবে অপূরিত।তবু আমি বিশ্বাস করি এই অপূরিত আকাঙ্খার আর্তনাদই একদিন ইসরাফিলের সিংগার ফুত্‍কারের মতো লন্ড ভন্ড করে দেবে রক্ষক আর রক্ষিতার পাপের সাম্রাজ্য।

    1. মুক্তিযুদ্ধের নবজাগরণ কে ডলার
      মুক্তিযুদ্ধের নবজাগরণ কে ডলার পাউন্ডে বাধতে চাইছে…সফল যে হইতাছে জায়গায় জাউগাউ তা তো মিথ্যা না।

      1. কিছু কিছু ক্ষেত্রে সফল হতে
        কিছু কিছু ক্ষেত্রে সফল হতে পারে,হতেও পারে আমরা আমাদের টার্গেটে পৌঁছাতে পারি নি কিন্তু চেতনার যে যুদ্ধ শুরু হয়েছে তা চলবে,তাকে দখল নিতে পারবে না।

    1. সহমত,টাকাই বাঘের চোখ কিনে
      সহমত,টাকাই বাঘের চোখ কিনে নিতে পারবে হয়তো কিন্তু সংগ্রামী মানুষের সংগ্রামকে কিনে নিয়ে যেতে পারবে না।

  5. চিৎকার সাপেক্ষে পেমেন্ট টা
    :তালিয়া: :থাম্বসআপ: :তালিয়া: :থাম্বসআপ: চিৎকার সাপেক্ষে পেমেন্ট টা হ্যান্ডসাম। লেখা পড়ে ভাল লাগলো

  6. মহিলারা জামাতের সাঈদীর জন্য
    মহিলারা জামাতের সাঈদীর জন্য রাস্তায় নামে ক্যান বুঝি না। মিনিমাম একটা রুচি তো থাকা উচিত ওয়াক………
    জামাত শিবিরের জন্য মহিলাদের আহাজারি সানি লিওনের ধর্ষন ব্যাখ্যা ক্করার মতোই

    1. জামাত শিবিরের জন্য মহিলাদের

      জামাত শিবিরের জন্য মহিলাদের আহাজারি সানি লিওনের ধর্ষন ব্যাখ্যা ক্করার মতোই

      হা হা হা মিতু আপু,জটিল একটা কথা বলছেন

  7. যারা প্রকৃত সংগ্রামী, মনে
    যারা প্রকৃত সংগ্রামী, মনে প্রাণে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী তাদেরকে ডলার, পাউন্ড, রিয়াল, টাকা যাই দেন না কেন, কিনতে পারবেন না। আমি দৃঢ়ভাবে এটা বিশ্বাস করি। আর বিএনপি-জামাতের জন্মই তো লোভের মাঝে তাদের সমাবেশ, মিছিল, হরতাল টাকা ছাড়া হবে কিভাবে? (বিএনপি’র নেতারা বিভিন্ন টক-শোতে চাপা মারে আমাদেরকে নিরাপত্তা দিয়ে অনুমতি দেয়া হোক আমরা শাহবাগের ৪ গুন সমাবেশ ছয় মাস যাবৎ চালিয়ে যারো!) আরে ভোদাই যারা পারে তাদের এত অজুহাত লাগে না। ৬ মাস তো দুরের কথা ১২ ঘন্টা একটা শাহবাগ বানিয়ে দেখা কত পারিস! আসলে ভাঙ্গা পাতিল বাজে জোরে…

    পরিশেষে পোস্ট লেখক আপু’কে বলব যেখানে দেখবেন ছাগু সেখানেই গদাম দিয়ে যান। দেখবেন এরা আর বের হতে পারবে না। কারণ এরা সত্যের মোকাবেলা করতে ভয় পায়। এরা জ্ঞানী লোকের কাছে টিকতে পারে না। ছাগুরা শুধু অশিক্ষিত, ধর্মান্ধ লোকদের বোকা বানিয়ে নিজেদের স্বার্থ হাসিল করতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *