নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 7 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • বুলবুল
  • জাকারিয়া হুসাইন
  • সৌরভ দাস
  • মোমিনুর রহমান মিন্টু
  • কাঙালী ফকির চাষী
  • দুর্জয় দাশ গুপ্ত
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী

নতুন যাত্রী

  • আমি ফ্রিল্যান্স...
  • সোহেল বাপ্পি
  • হাসিন মাহতাব
  • কৃষ্ণ মহাম্মদ
  • মু.আরিফুল ইসলাম
  • রাজাবাবু
  • রক্স রাব্বি
  • আলমগীর আলম
  • সৌহার্দ্য দেওয়ান
  • নিলয় নীল অভি

আপনি এখানে

প্রবন্ধ

চকচকে ঝকঝকে হিপোক্রিসি


"একটা ছেলের পাবলিকলি স্মোক করাটা নরমাল কিন্তু একটা মেয়ে করলে সেখানকার এনভায়রন্মেন্ট খারাপ হয়"
এই মুহুর্তের সবচে আলোচিত ডায়ালগ।দুঃখজনক ভাবে অসংখ্য মানুষ বৈষম্য শর্ট ফিল্মের এই লাইনটার সাথে একমত পোষন। পাবলিক প্লেসে থাকলে এই লেখাটা পড়ার সময় ডানে তাকান বামে তাকান। ১০ জনের ভিতর এটলিস্ট ৬ জন এই কথাটা ঠিক মনে করে।
"এনভায়রনমেন্ট যে পুরুষের কামলোলুপতার কারনে হচ্ছে সেটা তারা চিন্তা করতে চায় না।অনেক টা "কাপড় এরকম পড়লে তো রেপ হবেই" যুক্তি।

শিক্ষাব্যবস্থা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও গ্রামসির ধারণা


শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড, এ নিয়ে কারো কোনো সন্দেহ থাকার কথা নয়। কিন্তু এ শিক্ষা কোন ধরণের শিক্ষা এ নিয়ে একটা প্রশ্ন সবসময় রয়ে যায়। কেন এমনটা বলছি তা নিচের উক্তিটির ব্যাখ্যাতেই পরিষ্কার করে দিচ্ছি।

“France was saved by her idlers!”

মানুষের জন্মগত ধর্ম ও...


প্রত্যেকটা মানুষই জন্মগতভাবে হিংসুটে, হিংস্র, স্বার্থপর । এগুলোই মানুষের আসল ধর্ম । মানবধর্ম । এসবকিছু ভুলিয়ে যদি ভালোবাসা, স্নেহ, মমতা ইত্যাদীর মত মিথ্যে ইত্যাদীকে মানবধর্ম বলে মগজে রোপন করা ভালো হয়ে থাকে, তাহলে সামান্য মানসিক প্রশান্তির জন্য ঈশ্বরে বিশ্বাসী হওয়া খারাপ হবে কেন ?

প্রকৃতির নিয়মের উল্টোটাই যদি একান্ত চাওয়া হয়ে থাকে, তাহলেতো এক নম্বরেই ঈশ্বর । মানুষের সমগ্র সভ্যতাটাইতো অনেকগুলো মিথ্যার উপর খাড়া । সব মিথ্যা মুছে দিলেই, যে কে সে, আদিম হিংস্র সত্যি সত্যি মানুষ ।

ঈশ্বর নেই
ঈশ্বর নেই
ঈশ্বর নেই

'প্রকৃত শিক্ষিত' লোকের অভাব নয় কমিউনিষ্ট আন্দোলনে বিপর্যয়ের কারণ অন্যখানে


শ্রদ্ধেয় বদরুদ্দীন উমর তার সম্পাদিত সংস্কৃতি পত্রিকার অক্টোবর–নভেম্বর মহান অক্টোবর বিপ্লবের শত বার্ষিকী বিশেষ সংখ্যায়, ‘সমাজতান্ত্রিক সংগ্রামের পথ’ শিরোনামে কমিউনিস্ট আন্দোলনের মূল্যায়নধর্মী একটি প্রবন্ধ লিখেছেন। ওই প্রবন্ধে তিনি তার রাজনৈতিক অবস্থান থেকে কমিউনিস্ট আন্দোলনকে দেখেছেন। তার এই লেখাটি ছোট হলেও এটিই তার বর্তমান অবস্থানকে নির্দেশ করছে। তিনি কমিউনিস্ট আন্দোলনের সফলতা–ব্যর্থতাকে কিভাবে দেখছেন, তা এই লেখায় স্বল্প পরিসরে হলেও সামগ্রিকভাবেই এসেছে। কিন্তু ওই লেখায় তিনি কমিউনিস্ট আন্দোলনকে মূল্যায়ন করেছেন এক যান্ত্রিক ব্যক্তিকেন্দ্রিক মূল্যায়নের দ্বারা। নিঃসন্দেহে বদরুদ্দীন উমর এদেশের স

এক ছাত্রের নির্ধারিত লক্ষ্য


১.নিজের একাডেমিক পড়া শেষ করে যে কোনভাবে অর্থ সংগ্রহ করে "প্রাইভেট টিউটর ট্রেনিং কেন্দ্র " চালু করব। যারা স্কুল কলেজে মাস্টারি করে না তাদের জন্য।
২.তারপর তারা চাইলে আমাদের শিক্ষা অভিযান মঞ্চে যোগ দিতে পারবে। অথবা নিজেরা স্বাধীনভাবে শিক্ষকতা করতে পারবে।

আইন করে অনাত্তীকৃত বিদেশী শব্দে নাম রাখা বন্ধ করতে হবে


ভাষা অনেকটা স্বয়ংক্রিয় বিজ্ঞান। বিষয়টা এমন- শুধু জন্ম দিলে হয় মানুষ করা লাগে না। ভাষা নিজে নিজেই বিকশিত হয় যদি বাঁধা না দিলে। এরপর ভাষাটি বড় হতে থাকে বিভিন্নভাবে। ভাষাবিদের কাজ হচ্ছে যা ঘটছে তা সংকলন করা এবং বিশ্লেষণ করা।

আমরা কি পারবো সভ্যতা ০ থেকে সভ্যতা ১ হতে?


মিশিও কাকু হলেন একজন জাপানিজ বংশভূত আমেরিকান পদার্থ বিজ্ঞানী ও ভবিষ্যতদ্রষ্টা, তিনি হলেন সিটি কলেজ অফ নিউ ইয়র্ক এর অধ্যপক। তিনি তিনটি নিউ উয়র্ক টাইম বেস্ট সেলার বই লিখেছেন ফিজিক্স অফ দি ইমপসিবল (২০০৮) ফিজিক্স অফ দি ফিউচার (২০১১) দি ফিউচার অফ দি মাইন্ড (২০১৪)

নিজের সমালোচনাঃকঠিন একটি কাজ


সার্বিক দিক দিয়ে নিজের সমালোচনা(ভূল ধরতে পারা) করতে পারাটা আসলেই খুব কঠিন। প্রায়ই সময় আমরা নিজের পক্ষে থাকি। যাকে বলে "আত্নপক্ষ সমর্থন" করা।একটু ভেবে দেখলে দেখা যায়,নিজের ভূলগুলো ধরে নিজেকে পরিবর্তন করা যায় খুব দ্রুতই।
কিন্তু প্রশ্ন যেটা, নিজেদের ভূল ধরা সহজ নয় কেন?

যে বইগুলো বদলে দিয়েছিলো পৃথিবীকে.......


রিপাবলিক - প্লেটো

রিপাবলিক গ্রিক দার্শনিক প্লেটো রচিত এক অমর গ্রন্থ। রাষ্ট্রচিন্তার জগতের যে ক‌জন ক্ষনজন্মা মনীষী অবদান রেখেছেন , তাদের মধ্যে মহামতি প্লেটো ছিলেন অন্যতম । এ গ্রন্থটির প্রধান বৈশিষ্ট্য হলো এর অনুপম রচনা সৌন্দর্য ভাষা মাধুর্য ।

পৃষ্ঠাসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর