নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 6 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মিশু মিলন
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • দ্বিতীয়নাম
  • নিঃসঙ্গী
  • সাইয়িদ রফিকুল হক
  • মিঠুন বিশ্বাস

নতুন যাত্রী

  • চয়ন অর্কিড
  • ফজলে রাব্বী খান
  • হূমায়ুন কবির
  • রকিব খান
  • সজল আল সানভী
  • শহীদ আহমেদ
  • মো ইকরামুজ্জামান
  • মিজান
  • সঞ্জয় চক্রবর্তী
  • ডাঃ নেইল আকাশ

আপনি এখানে

বেগম জিয়া বললেন, আমি দেশ ছেড়ে যাবোনা


রাত ঠিক তিনটা, শেখ হাসিনা অতি গোপনে বেগম জিয়াকে দেখতে জেলের ভিতরে চলে গেলেন,
সঙ্গে অতি বিশ্বস্ত দু'জন প্রহরী।

বেগম জিয়া গভীর রাতে হাসিনাকে দেখেই হঠাৎ প্রথমে হতচকিত ও কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে গেলেন!

তারপর বেগম জিয়া বললেন:- আপনি এখানে এসেছেন কেন? আরো বড় কোনো ষড়যন্ত্র করতে এসেছেন নাকি ?

শেখ হাসিনা বললেন:- জ্বি না, বিশ্বাস করেন!
আমিও একজন মা, আপনার সমবয়সীও,
আপনার কষ্টটা বুঝতে পারছি,
সত্যি আমার ঘুম হচ্ছে না,
তাই এত রাতে আপনাকে দেখতে ও মুক্ত করতে এসেছি!

বেগম জিয়া বললেন:- আমাকে বিনা দোষে জেল দিলেন,
আমাকে আবার মুক্ত করতে এসেছেন?

শেখ হাসিনা:- আপনি অসুস্থ, সত্তোরোর্ধ একজন মহিলা, আপনার এই কষ্ট আমার সহ্য হচ্ছে না,
তাই আপনাকে লন্ডনে আপনার ছেলের কাছে চলে যাওয়ার ব্যবস্থা করতে এসেছি!

বেগম জিয়া:- না, আমার মুক্তির আগে নিরপরাধ মানুষ গুলার সন্ধান দিন!
ইলিয়াস আলী, ব্রিগেডিয়ার আমান আযমী, ব্যারিস্টার আরমান সহ অসংখ্য নিখোঁজ নেতাদের সন্ধান দিন! সাঈদী সহ হাজার হাজার নির্দোষ বন্ধি নেতা কর্মীদের মুক্তি দিন! এদের ছাড়া আমি মুক্ত হতে চাইনা।
একটা কথা পরিষ্কার মনে রাখুন!
আপনার মতো বিদেশে পালানোর মেয়ে আমি নই।

শেখ হাসিনা:- আপনি ঐ রাজাকারদের সঙ্গ ছাড়েন!

বেগম জিয়া:- শোনেন! আগে যে ভুল করেছি সেই ভুল আর না,
জামায়াতের নেতাদের বিষয়ে আমরা নীরব না থেকে যদি তখন থেকে ঝাঁপিয়ে পড়তাম তাহলে আপনি ওদের কিছুই করতে পারতেননা, আমার অসংখ্য নেতা কর্মীর গুম, খুন এমনকি সালাউদ্দিন কাদেরে ফাঁসিও হতনা।
আমি তখন দেশের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হবে সেটা ভেবে তখন কিছুই বলিনি।
এখন যদি সকল বন্ধিদের মুক্তি ও গুম হওয়া নেতাদের সন্ধান এবং নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করেন,
তাহলে দেশের স্বার্থরক্ষায় পিছনের সব কথা ভুলে যাবো।

হাসিনা:- আপনার এইসব শর্ত মানা অসম্ভব!

বেগম জিয়া:- কেন?

শেখ হাসিনা:- কারণ বিশ্বাস করেন! দেশের কন্ট্রোল কিন্তু আমার হাতে নেই, আমি আপগানিস্তানের হামিদ কারজাই সরকারের মত আছি,
দিল্লীর যা ইশারা হয় তাই করতে বাধ্য হচ্ছি,
আর এইজন্য দায়ী আপনি!

বেগম জিয়া:- কিভাবে? আমি কেন দায়ি হব?

শেখ হাসিনা:- শোনেন! ৫ই জানুয়ারির নির্বাচনে আপনি অংশ না নেয়াতে পুরো বহির্বিশ্বের কাছে আমি অবৈধ সরকার বলে বিবেচিত হয়েছি,
এবং প্রচণ্ড চাপে ছিলাম একটা অংশ গ্রহণ মূলক নির্বাচন দেয়ার জন্য।
সেখান থেকে দিল্লীর একক প্রচেষ্টায় আমি কোন মতে ঠিকে যাই,
কিন্তু তাদের অনেক শর্ত আমাকে মেনে নিতে হয়েছে, নইলে আমার ক্ষমতা ধরে রাখতে পারতামনা।
আপনি কি মনে করেন ভারতীয় পতাকাবাহী শাড়ী আমি শখের বশীভূত হয়ে পরি?
না, এটা তাদেরকে দেখানো যে, আমি তাদের আনুগত্য ও তাদের প্রদেশের ন্যায় আছি।
তাই আপনার ভালর জন্য বলছি, আমি আপনাকে মুক্ত করে দেব, আপনি বের হয়ে দেশের বাইরে চলে যান!

বেগম জিয়া:- না, অসম্ভব!
আমি আপনার মত না,
আমি ৮৬তে বেঈমানি করিনি,
১/১১তেও বেঈমানি করেনি,
এখনো করবো না।

এই কথা শোনে শেখ হাসিনা রেগে গিয়ে বললেন:- বুঝেছি আপনি জেলেই পঁচবেন,
আর শুনুন! আমি এখানে এসেছি তা প্রচার করলে তাহলে লন্ডনে যে ছেলে রয়েছে তাকেও ফাঁসিতে লটকানোর ব্যবস্থা করে দেবো,
তাছাড়া আপনার কথা কেউ বিশ্বাসও করবে না,
দেশের পুরো মিডিয়া এখন আমার কেনা,
আমার নিয়ন্ত্রণে!

শেখ হাসিনা হতাশ হয়ে যখন জেল থেকে বের হলেন, সঙ্গের একজন হাসিনাকে জিজ্ঞেস করলো:- আপনি কেনো উনাকে মুক্ত করতে এতো উদগ্রীব?

শেখ হাসিনা:- শোনো! জামায়াত নেতাদের ফাঁসি দেয়ায় দেশের অধিকাংশ মুসলিম আমাকে ঘৃণা করছে, আর বেগম জিয়াকে জেলে ঢুকানোর পর থেকে আমার আরো জনপ্রিয়তার ক্ষতি হয়েছে, মানুষ আমাকে পাক্কা হিংসুক, বেঈমান, মোনাফেক বলছে,
তাই চাইছিলাম, উনাকে মুক্ত করে দিয়ে বিদেশ পাঠিয়ে দিলে আমার উভয়টা রক্ষা হতো।

সাথের অন্যজন বলল:- নেত্রী! আপনার সাথে তো দেশের অনেক পীর বুজুর্গ আছেন?

শেখ হাসিনা:- শোনো! অধিকাংশ বিবেকবান মানুষ জানে, এই পীর বুজুর্গরা বিভিন্ন লোভে আমার সাথে আছে, মানুষ আমার মত তাদেরও মোনাফেক বলছে।

হঠাৎ সবার জন্য উম্মুক্ত মোবাইলটার রিং বেজে উঠলে হাসিনা বললেন:- দেখো! কে যেন কল দিয়েছে।

একজন বলল:- তেতুল হুজুর ফোন দিয়েছে।

শেখ হাসিনা:- তাকে বলো! নেত্রী এখন তাজ্জুদ নামাজে আছেন, পরে কল দিতে বলো!

এমন মিথ্যা কথা শুনে আমার ঘুমটাও ভেঙ্গে যায়,
পরে কি হলো আর জানা যায়নি।

[উপরের ঘটনাটি স্বপ্নে প্রাপ্ত। বাস্তবের সাথে এর কোন মিল নেই এবং বাস্তবের সাথে এর মিল পাওয়া গেলে উহা সম্পুর্ন কাকতালীয়।]

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

উদয় খান
উদয় খান এর ছবি
Offline
Last seen: 2 দিন 3 ঘন্টা ago
Joined: সোমবার, অক্টোবর 20, 2014 - 12:21অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর