নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 10 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • অর্বাচীন উজবুক
  • নুরুন নেসা
  • সুজন আরাফাত
  • সংবাদ পর্যবেক্ষক
  • নাস্তিকের আত্মকথা
  • আবীর সমুদ্র
  • মূর্খ চাষা
  • নরসুন্দর মানুষ
  • দ্বিতীয়নাম
  • পৃথু স্যন্যাল

নতুন যাত্রী

  • সোহম কর
  • অজিতেশ মণ্ডল
  • আতিকুর রহমান স্বপ্ন
  • অ্যালেক্স
  • মিশু মিলন
  • আগন্তুক মিত্র
  • গাজী নিষাদ
  • বেকার
  • আসিফ মহিউদ্দীন
  • সাধনা নস্কর

আপনি এখানে

কোরআন শরীফ একটি সাধারন কাল্পনিক গল্পের বই মাত্র...!!


ছোট বেলায় যখন মক্তবে পড়তে যেতাম তখন কোরান শরীফকে বুকে জড়িয়ে শক্ত করে ধরতাম আর খেয়াল রাখতাম কোন প্রকার যাতে বুক থেকে পড়ে যাওয়ার আশংকা না থাকে আর কত কি করতাম কোরান শরীফ রাখার জন্য নতুর গজ কাপড় কিনে খোলস বানাইতে হতো আবার প্রত্যেক সপ্তাহে সেইটা ধুয়ে দিতে হতো নইলে ময়লা পড়ে অপবিত্র হয়ে যাবে!! এর চাইতে বেশি যত্ন করে বাসায় রাখা হতো আমাদের সো-কেচ এর একদম উপরে যাতে কোরানের পবিত্রতা রক্ষা পায়!

মক্তবের হুজুর কোরানের পবিত্রতা রক্ষার্থে ছিলেন কঠোর, এমন এমন বয়ান দিতো যে ভয়ে কোরান মাথায় নিয়ে হাটার জন্য প্রস্তুত থাকতাম। হুজুরের ছোট একটি বয়ান- যে কোরানকে অবহেলা করবে বা কোরানের যত্ন নেবে না তার জন্য বেহেস্ত হারাম ও কোটি কোটি বছর জাহান্নামের আগুনে পোড়ানো হবে!! কেউ স্ব-ইচ্ছায় কোরান শরীফ যদি লাথি মারে বা তাহার উপর পা রাখে সাথে সাথে তার পা লুলা হয়ে পঁচে যাবে বা কিছু দিনের মধ্যে মারাও যেতে পারে!!!

একদিন কোরান শরীফ নিয়ে ভোরবেলায় মক্তবের উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হলাম আর প্রতিদিনের মতো শক্ত করে ধরে হাটছিলাম, আমাদের পাড়ায় ছিলো কুকুরের ঝাক তখন আরো ভাদ্র মাস অতিবাহিত হচ্ছিলো! আমি আমাদের বাসার গলি থেকে বের হয়ে কিছু দূর যাওয়ার হঠাৎ দুই তিনটা কুকুর দৌড়ে এসে আমার চারপাশে শুকতে লাগলো। আমি ভয়ে দৌড়ে পালাচ্ছিলাম আর হোঁচট খেয়ে পড়ে গেলাম আর কোরানটাও আমার কাছ থেকে অনেক দূরে গিয়ে ছিটকে পড়ে, আমার ভয়ে প্রায় প্রাণ যায় যায় এই বুঝি আমার পা লুলা হয়ে পঁচে গেলো!! বার বার হাত পায়ের দিকে তাকাচ্ছিলাম!! ভয়ে ভয়ে বিষয়টা মক্তবের হুজুরকে জানালাম তিনি বললেন আল্লা মাফ করে দিবে আর এক বোতল পানি পড়া দিলেন যাতে আমার ভয় কেটে যায়!!!

কিছু দিনপর আমাদের পাড়ার একটি ঘরে হঠাৎ ধাও ধাও করে আগুন জ্বলে উঠলো, ঘরটি ছিলো এক লাইব্রেরীর মালিকের। তিনি বেশ ইমানদার বান্দা, ঘরে অনেকগুলো হাদিস ও কোরান লাইব্রেরীতে বিক্রয়ের জন্য স্টোক করে রাখা হয়েছিলো। আগুনে সব পুড়ে ছাই হয়ে গেছে!!! কোরানের পবিত্রতা ও আজগুবী শক্তি সমন্ধে টের পেতে বেশিক্ষন হয়তো লাগেনি আমার!!

এখন একটি গুরুত্বময় বিষয় না লিখে পারছি না--

হুমায়ুন আজাদ স্যারের একটি কবিতা বাংলা বই থেকে বাতিল করা হয়েছে, কি কারনে করা হয়েছে!

যে বই তোমাকে ভয় দেখায়,
সে বই তুমি পড়বে না,
যে বই তোমাকে অন্ধকারে নিয়ে যায়
সে বই তুমি পড়বে না।।

এই কবিতাটি বাতিল হওয়ার মূল কারনটা হলো এই যে, কোরান নামের কাল্পনিক বইটির বেশিরভাগ আয়াতে ভয় দেখানো হয়েছে! আর শিক্ষাবোর্ডের ইমানদার বান্দারা সেইটা টের পেয়েছে, তারা যানে কোরানে মানুষকে ভয়ভীতি দেখিয়ে আল্লা নামের কাল্পনিক ঈশ্বরে বিশ্বাস করাচ্ছে!!!

এইবার আসুন অন্য একটি বিষয় নিয়ে কথা বলি- "বিসমিল্লাই গলদ" নামের একটি কথা আমরা অহরহ শুনতে পাই আর এই বিসমিল্লাহ আয়াতটি যে আল্লার নাজিলকৃত আয়াত না তার একটি ছোট প্রমাণ দিচ্ছি!

"বিসমিল্লাহির রাহমানির রহিম" এর বাংলা অর্থ- পরম করুণাময় আল্লার নামে শুরু করছি!

আর এই আয়াতটি আল্লার কাছ থেকে যদি প্রেরিত হয় বা আল্লার নাজিল করা হয়, তাহলে আল্লা এখানে কোন আল্লাকে স্মরণ করছেন ? মুমিন বান্দারা চুপ!!

এইসব প্র্যাক্টিকাল তথ্য ও বিসমিল্লা নামের ভূয়া আয়াতটি জানার পর কোরান শরীফ নামের গল্পের বইটি নিয়ে আর কিছু বলার থাকে না, আর কোরান নামের গল্পের বইটিতে সাধারন বইয়ের মতই নবীদের জীবনী লিখে একটি বই প্রকাশ করেছিলো মুহাম্মদের সাহাবীরা। আর মুহাম্মদও সেটাকে আল্লার বাণী বলে প্রচার করেছিলো। আর এখন কিছু ধর্মান্ধ মোল্লারা ব্যাবসার তাগিদে কোরান প্রচার করে বেড়াচ্ছে.....

মন্তব্যসমূহ

শুভ্র পল্লব এর ছবি
 

সুন্দর ! কুরানের শক্তি পরীক্ষা করে ফেললেন আপনি।

 
ফরিদ এর ছবি
 

আল্লাহ 'বিসমিল্লাহ'য় বান্দাকে শিখিয়ে দিচ্ছে তাঁকে এভাবে স্মরণ করে যে কোন কাজ শুরু করতে হয়। আপনার প্রমাণ অসার। ----- এটি মুমিন বান্দাদের পক্ষ থেকে যুক্তি হতে পারে। কুরানের অসংখ্য আয়াত এমন আছে যেখানে বান্দাদেরকে প্রার্থনা করা শেখানো হয়েছে। এরকম আরেকটি উদাহরণ হল- 'রাব্বির হাম হুমা কামা রাব্বাইয়ানি সাগিরা'। যাই হোক আমার নিজেরও ব্যক্তিগত ধারণা যে কুরান এক বা একাধিক মানব-দরদী,কুশলী ও জ্ঞানী ব্যক্তির রচনা। একদিন হয়তো সেটা প্রমাণিতও হবে। তবে আপনার উপস্থাপনা আমার কাছে খুব জোরালো মনে হয়নি। এমন স্পর্শকাতর বিষয়ে এমন হাল্কা যুক্তিতর্ক দিয়ে কোন লেখা না লেখাই ভাল। তা না হলে ধর্মান্ধ ভাওতাবাজদের সাথে একজন বিজ্ঞানমনস্ক মানুষের পার্থক্য থাকে কোথায় বলুন?

 
আব্দুর রহিম রানা এর ছবি
 

জনাব ফরিদ, আমার লিখা আপনার কাছে জোরালো লাগলো বা না লাগলো তার জন্য আমি লিখিনি, আমি প্র্যাক্টিকাল কিছু বিষয় তুলে ধরেছি আর "রাব্বিল হাম হুমা কামা রাব্বায়ানী ছাগিরা"র সাথে কিভাবে কি করলেন?! মাথায় আসছে না.... বিসমিল্লা আয়াতটা নিয়ে আমি কি বলেছি/?

 
ফরিদ এর ছবি
 

জনাব রানা, পাঠকের প্রতিক্রিয়ার কি কোন গুরুত্ব নেই আপনার কাছে? অপরিপক্কতার পরিচয় দিলেন। আমার ধারণা আপনার বয়স ২২-২৮ বছর। আমি আগ্রহ নিয়ে আপনার লেখাটা পড়েছি। মূল ভাবের সাথে একমতও পোষন করি। এগুলি আপনি বিবেচনা করলেন না।

 
কাঠমোল্লা এর ছবি
 

সুরা ফাতিহা -১:১: শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।

আপনার বক্তব্য হলো আল্লাহ মুহাম্মদকে শিখাচ্ছে কিভাবে মানুষ আল্লাহকে ডাকবে , তাই তো ?

কিন্তু প্রশ্ন হলো , কোরানের লেখক কে ? কোরানের বানীর বক্তা কে ? যদি এর উত্তর 'আল্লাহ' হয় , তাহলে উক্ত আয়াতটা কি যেভাবে আমরা দেখি সেটা কি ঠিক হবে ? তাহলে সেটা কি নিচের মত করে হলেই বিষয়টা পরিস্কার হতো না ?

বলো , হে মুহাম্মদ, শুরু করছি আল্লাহর নামে ------------

 
আব্দুর রহিম রানা এর ছবি
 

সূরা ফাতেহায় বলা হচ্ছে, "আমরা কেবল তোমরাই ইবাদত করি তোমারই কাছে সাহায্য চাই"। কোরান যদি আল্লার বাণী হয় তাহলে আল্লা কার ইবাদত করে এবং কার কাছে সাহায্য চায়? জনাব ফরিদ ভাই...

 
ফরিদ এর ছবি
 

নাদান! আহাম্মক!

 

নতুন কমেন্ট যুক্ত করুন

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

Facebook comments

বোর্ডিং কার্ড

আব্দুর রহিম রানা
আব্দুর রহিম রানা এর ছবি
Offline
Last seen: 1 week 1 দিন ago
Joined: শনিবার, ডিসেম্বর 17, 2016 - 6:55অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর