নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 6 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • রবিউল আলম ডিলার
    • নুর নবী দুলাল
    • এন্টারকটিকায় পড়ছি
    • রাজর্ষি ব্যনার্জী
    • নরসুন্দর মানুষ
    • মৃত কালপুরুষ

    নতুন যাত্রী

    • রবিউল আলম ডিলার
    • আল হাসিম
    • মাহের ইসলাম
    • এহসান মুরাদ
    • ফাহিম ফয়সাল
    • সানভী সালেহীন
    • সাঞ্জানা প্রমী
    • অতৃপ্ত আত্বা
    • মনিকা দাস
    • আব্দুল্লাহ আল ম...

    আমেরিকা এবং গং সিরিয়াতে কী উদ্ধার করলো মিসাইল মেরে?



    মিসাইল ইন্টারসেপ্ট করা নিয়ে অনেক কথা চলছে। বর্তমান বিশ্বে আমেরিকার চেয়ে রাশিয়ান মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেমগুলা বেশি কার্যকর ও আধুনিক। আবার এসব সিস্টেম খুবই ব্যয়বহুল। আমার ধারণা, রাশিয়া কিছু মিসাইল ইন্টারসেপ্ট করেছিল, আর বাকীগুলো এমনিতেই করেনি। মিসাইল ইন্টারসেপ্ট করতেও মিসাইল লাগে, যার একেকট্র মূল্য কোটিকোটি টাকা। শখানেক মিসাইলে যে স্থাপনা ধ্বংস হব, তা ঠেকানোর চেয়ে ওগুলো ধ্বংস হতে দিয়ে আবার গড়ে ফেলা কম খরচের ব্যাপার। পরাশক্তিরা এই গ্যাস হামলার হুমকি পাল্টা হুমকির ও মিসাইল স্ট্রাইক পরবর্তী হিসেব নিকেশে নো উইন সিচুয়েশনে আছে। পশ্চিমারা মুখ রক্ষা করলো কিছু উধার না করেই, আর রাশিয়া মিসাইল হামলা প্রতিহত করবার জন্য সেভাবে কিছু না করেই বাগাড়ম্বর করলো। তাদেরও তেমন লাভ হয়নি, ক্ষতিও না। আসাদ সরকারের সর্বাত্মক বিজয়ের চেয়েও সিরিয়াতে তাদের অবস্থান বেশি জরুরী। সেটা তারা নিশ্চিত করবেই।

    সর্বহারা ১


    ১০ই ফেব্রুয়ারী, ১৯৫০ | পূর্ব পাকিস্তানের ১২ টা জেলায় ছড়িয়ে পরলো হিন্দুবিরোধী দাঙ্গা | জুম্মার নমাজ সেরেই আল্লাহর নামে কোতল শুরু ! ভাবি কি ভয়ানক দিনের প্রেক্ষাপটে ঠাকুমা দাদুকে আর বাবাদের নিয়ে হাঁটা লাগিয়েছিল এপারে |

    ২৫ এপ্রিল দুজন মানুষকে হত্যা করা হয়েছিলো, একবার তাদের মানুষ বলুন।


    ২৬ তারিখ ২০১৬তে বিকালের দিকে ইউটিউবে একটা ভিডিও দেখলাম, জুলহাজ রক্তের মাঝে পড়ে আছে, পাশে তাকে ঘিরে কিছু মানুষের কন্ঠস্বর, জুলহাজের মরদেহর সাথে একবৃদ্ধা নারী, চুল সব পাকা, মেক্সিপরা। জুলহাস উপুড় হয়ে পড়ে আছে, মুখ দেখা যাচ্ছে, পরনে টি-শার্ট আর থ্রি-কোয়ার্টার। বৃদ্ধা মহিলা কাকে যেন বলছেন এভাবে ধরো, ধরে টেনে নিয়ে আসো। জানেন বৃদ্ধা রক্তের উপর দাঁড়িয়ে ছিলো, কার রক্ত জানেন? ওই বৃদ্ধানারীর গর্ভের সন্তানের রক্তের উপর................

    চীনে মেয়েদের পোশাক ইউরোপের মতো।



    চীনা মেয়েরা জামাকাপড়-চালচলনে ইউরোপ-আমেরিকার মেয়েদের মত খোলামেলা। স্তনের আভাস দেখা যায় - তবুও কোনো টিজ নেই। চুরি করে কোনো ছেলে বুক বা দেহ দেখছে - চোখে পড়েনি। মেয়েরা রাস্তাঘাট, যানবাহন বাস আন্ডারগ্রাউন্ডে চলাফেরা করছে - স্বাধীন।

    জাকির নায়েক ও মুসলমানরা মিথ্যা বলে - ইউরোপ আমেরিকায় নারীরা বুরখা পরে না - তাই ওখানে বেশি যৌন-অত্যাচার ও ধর্ষণ চলে। এবং পক্ষান্তরে ইসলাম নারীকে দিয়েছে মহান মর্যাদা!

    মোহাম্মদের মেরাজ ঘটনার মতই আর একটি গল্প।



    মোহাম্মদের মেরাজ ঘটনার মতই আর একটি গাজাখুরিপ্রথমেই নিচের সূরা দুটি খেয়াল করুন-

    আমি কোরআনকে সহজ করে দিয়েছি বোঝার জন্যে। অতএব, কোন চিন্তাশীল আছে কি?কোরান, 55:17

    আমি কোরআনকে বোঝার জন্যে সহজ করে দিয়েছি। অতএব, কোন চিন্তাশীল আছে কি?কোরান, 55:22

    প্রসঙ্গ মলেস্টিং ও হ্যারেজমেন্ট


    মেয়েদের শরীর দেখলেই কামের আগুন জ্বলে উঠে তাই না! "আহহ!! কি চিজ!! " স্বরূপ বাক্য মনে প্রতিধ্বনিত হয় তাই না!

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর